Corona Outbreak: স্বস্তি! সাত মাসে দেশে সর্বনিম্ন সংক্রমণ, বেড়েছে সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা

India Corona Update: গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ হাজার ১৪৬ জন।

Corona Outbreak: স্বস্তি! সাত মাসে দেশে সর্বনিম্ন সংক্রমণ, বেড়েছে সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা
নিম্নমুখী দেশের করোনা সংক্রমণ (ফাইল ছবি)

নয়া দিল্লি: উৎসবের মরসুমে স্বস্তি দিচ্ছে দেশের করোনা সংক্রমণের চিত্র। বিগত বেশ কয়েকদিন ধরে ২০ হাজারের নিচে রয়েছে কোভিড গ্রাফ। যেহেতু দেশে ইতিমধ্যে শুরু হয়েছ উৎসবের মরশুম, সেই কারণে সংক্রমণে দাড়ি টানতে বারবার সতর্ক হতে বলেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। তারপর বিগত কয়েকদিনের এই সংক্রমণ গ্রাফ অনেকটাই আশা জোগাচ্ছে স্বাস্থ্যকর্মী থেকে শুরু করে আম-জনতাকে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে (India) নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ হাজার ১৪৬ জন। গতকাল সেই সংখ্যাটা ছিল ১৫ হাজার ৯৮১ জন। করোনাকে হারিয়ে দেশে সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যাও বেড়ে গিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৯ হাজার ৭৮৮ জন।

দেশের মৃত্যুর গ্রাফও নিম্নমুখী। গত একমাস আগেও ভয় ধরাচ্ছিল মৃতের সংখ্যা। কখনও ২০০ কখনও বা ৩০০-র গণ্ডি ছুঁইছুঁই ছিল সেই সংখ্যাটা। এরপর তা কমে দেড়শোর কম হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় গোটা দেশে ১৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

উৎসবের মরশুমে কেরলে (Kerala) বেড়ে গিয়েছিল আক্রান্তের সংখ্যা। বিগত কয়েকদিন সংখ্যাটা কখনও বেড়েছে কখনও বা কমেছে। এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে সেই রাজ্যের আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭ হাজার ৯৫৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫৭ জনের। এর আগে মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা এক ধাক্কায় অনেকটাই কমে গিয়েছিল। কিন্তু পুনরায় সংখ্যাটা বেড়ে গিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় অনেকটাই কমে গিয়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৫৫৩ জন। অন্যদিকে, তামিলনাড়ুতেও বেড়ে গিয়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে আক্রান্তে হয়েছেন ১ হাজার ২৩৩ জন। চতুর্থস্থানে থাকা কর্নাটকে আক্রান্তের সংখ্যা কমে দাঁড়াল ২৬৪ জন।

এদিকে, পশ্চিমবঙ্গের সংক্রমণ গ্রাফও কিন্তু স্বস্তি দিচ্ছে। এতদিন দুর্গাপুজো চলছিল এই রাজ্যে। যার কারণে তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কারয় ছিল সকলে। প্রাশাসন থেকে শুরু করে চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞ প্রত্যেকে একাধিকবার সাধারণ মানুষকে সচেতন করেছিল। এতদিন পর্যন্ত সংক্রমণ প্রায় ৭০০ থেকে ৮০০-র গণ্ডি ছুঁয়েছিল। গত ২৪ ঘণ্টায় সেই আক্রান্ত অনেকটাই কমে গিয়ে ৪৪৩ জনে দাঁড়িয়েছে। মোট মৃত্যু হয়েছে ১৮ হাজার ৯৬৩ জন।

এদিকে, উত্তর প্রদেশের মতো বড় রাজ্যে কিন্তু সংক্রমণের রিপোর্ট অনেকটাই কম। গোটা রাজ্যে দৈনিক মোট আক্রান্ত হয়েছেন মাত্র ৫ জন। বিগত দু’সপ্তাহ ধরে এই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩ এর নীচেই রয়েছে। তবে মোট মৃতের সংখ্যা ২২ হাজারের আশে পাশেই ঘোরাঘুরি করছে। অন্যদিকে, রাজধানী দিল্লিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২১ জন। অন্যদিকে, গত কয়েকদিন ধরে ভাবাচ্ছিল মিজ়োরামের সংক্রমণের গ্রাফ। এখনও সেই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ভাবাচ্ছে দেশকে। এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা একধাক্কায় বেড়ে ৯৪৮ জন।

টিকাকরণের (Corona Vaccine) হার বাড়িয়ে করোনা সংক্রমণকে নিয়ন্ত্রেণে রাখার চেষ্টা চলছে দেশজুড়ে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪১ লাখ ২০ হাজার ৭৭২ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। মোটি টিকা দেওয়া হয়েছে ৯৭ কোটি ৬৫ লাখ ৮৯ হাজার ৫৪০ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: Singhu Border: সিংঘু সীমান্তে নৃশংস হত্যালীলা থেকে শিক্ষা, সিসিটিভি বসাবে আন্দোলনকারী কৃষকরা

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla