Corona Outbreak: একধাক্কায় ২ হাজার কমল সংক্রমণ! মৃতের সংখ্যা কমে দাঁড়াল ১৯০

India Corona Update: করোনাকে জয় করেছেন ১০ হাজার ১১৬ জন।

Corona Outbreak: একধাক্কায় ২ হাজার কমল সংক্রমণ! মৃতের সংখ্যা কমে দাঁড়াল ১৯০
শিক্ষাকার করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় বন্ধ হল স্কুল। প্রতীকী চিত্র।

নয়া দিল্লি: দশ হাজারের নীচে রইল সংক্রমণ। গত কয়েকদিন ধরেই সংক্রমণ কখনও আট হাজার কখনও নয় হাজার কখনও বা দশ হাজারের নীচে ঘোরাঘুরি করছিল। এরপর গতকালের তুলনায় আজ দুহাজার কমল সেই সংক্রমণ।তবে এখনই পিছু ছাড়ছে না করোনা (Corona)। ইতিমধ্যে আবিষ্কৃত হয়েছে করোনার নতুন স্ট্রেন। যার কারণে চিন্তার ভাঁজ বিশেষজ্ঞদের কপালে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ২৪ ঘন্টায় দেশে (India) আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৯৯০ জন। গতকাল সেই সংখ্যাটা ছিল ৮ হাজার ৩০৯ জন। একদিনে সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা বেড়েছে। করোনাকে জয় করেছেন ১০ হাজার ১১৬ জন। করোনাকে হারিয়ে মোট সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা ৩ কোটি ৪০ লাখ ১৮ হাজার ২৯৯ জন। শনিবারের বুলেটিন অনুযায়ী, দেশে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৩ হাজার ৩১৬ জন। মোট সক্রিয় রোগী ১ লক্ষ ৫৪৩ জন। তবে ধীরে ধীরে ফের বেড়েছে মৃত্যু। একদিনে করোনার বলি ১৯০ জন।

এখনও সংক্রমণের নিরিখে কেরলে(Kerala)সংক্রমণ সর্বোচ্চ। সেই রাজ্যে একদিনে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৩ হাজার ৩৮২ জন। মৃত্যু হয়েছে ১১৭ জনের। এরপরই রয়েছে মহারাষ্ট্র। গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণের কোনও খবর মিললেও নমুনা পরীক্ষা বাড়তেই ধরা পড়ল আক্রান্তের সংখ্যা। এদিকে, মহারাষ্ট্রে একদিনে ৫৩৬ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তবে একদিনে মৃত্যু হয়েছে ২১ জনের। মহারাষ্ট্রের পরে রয়েছে কর্নাটক। সেই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ২৫৭ । গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের। আর তামিলনাড়ুতে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৩০ জন।

বিগত তিন থেকে চার মাসের পরিসংখ্যান লক্ষ করলে দেখা যাবে দেশের বাকি রাজ্যগুলির তুলনায় উত্তর প্রদেশে কিন্তু করোনা সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রিত। দেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় রাজ্য হওয়ার দরুণও সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা কিন্তু তুলনামূলক অনেক কম।গত ২৪ ঘণ্টায় সেই রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছেন মাত্র ৫ জন। একজনের মৃত্যু হয়নি। রাজধানী দিল্লিতে একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪ জন।

এক লাফে দৈনিক সংক্রমণ অনেকটাই কমল সোমবার। তবে এই পরিসংখ্যানে খুব একটা স্বস্তির কোনও কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না চিকিৎসকরা। কেন না, একদিকে শনিবার ও রবিবার নমুনা পরীক্ষা যেমন কম হয়। অন্যদিকে একদিনের সংক্রমণ কমলেও সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কিন্তু মোটেই খুব একটা আশাব্যঞ্জক নয়। সোমবার রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৫১১ জন। মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৭ হাজার ৭৩৩। সোমবার শুধুমাত্র কলকাতাতেই সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২ হাজার ১৮৪ জন।

রোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের আতঙ্ক এখন থরহরিকম্প গোটা বিশ্ব। শুক্রবারই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ওমিক্রনকে ‘উদ্বেগজনক ভ্যারিয়েন্ট’ তালিকাভুক্ত করেছে। গত সোমবার দক্ষিণ আফ্রিকার নেটওয়ার্ক ফর জিনোমিকস সারভিল্যান্স (NGA-SA) এই নতুন ভ্যারিয়েন্টের হদিশ পায়। তারা সার্স কোভ-২ ভাইরাসের এই নতুন ভ্যারিয়েন্টকে খুঁজে পান। এই নতুন ভ্যারিয়েন্টের লাইনেজ বি.১.১.৫২৯।

আরও পড়ুন: Omicron: বিশ্লেষণ: দাঁত-নখ বের করছে ওমিক্রন, কতটা ভয়ের কারণ হতে পারে?

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla