PM Narendra Modi: প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে বড় ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর, সাতটি নয়া সংস্থা পাচ্ছে দেশ

Defence: একবিংশ শতাব্দীতে যে কোনও দেশের বৃদ্ধি ও ব্র্যান্ড ভ্যালু অথবা কোনও সংস্থার পরিচিতি তার উদ্ভাবন এবং গবেষণা ও উন্নয়নের ওপর নির্ভরশীল।

PM Narendra Modi: প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে বড় ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর, সাতটি নয়া সংস্থা পাচ্ছে দেশ
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। (ফাইল ছবি)

নয়া দিল্লি: স্বাধীনতার পর প্রথম বার দেশে প্রতিরক্ষা খাতে অনেকগুলি সংস্কার করা হয়েছে। যা আগের তুলনায় অনেক বেশি স্বচ্ছ ও বিশ্বাসযোগ্য। এর লক্ষ্য, নিজের বলে বলিয়ান হয়ে বিশ্বের দরবারে সর্বাপেক্ষা শক্তিশালী সামরিক শক্তিসম্ভারের অধিকারী হিসাবে ভারতের স্বীকৃতি। শুক্রবার অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরি বোর্ড (ওএফবি) থেকে সাতটি নতুন প্রতিরক্ষা সংস্থার ঘোষণার পর বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)। দেশের ৪১ টি অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরিকে এদিন সরকার পরিচালিত সাতটি কর্পোরেট সংস্থায় রূপান্তরিত করা হয়েছে। ভারতকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামরিক শক্তিতে রূপান্তরিত করাই হবে যার লক্ষ্য।

এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, “গত সাত বছরে দেশ মেক ইন ইন্ডিয়া মন্ত্রের সঙ্গে নিজেদের সংকল্পকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজ করেছে। আজ দেশের প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে যে স্বচ্ছতা, যে বিশ্বাস রয়েছে, যে তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ে কাজের সুবিধা রয়েছে তা আগে কোনওদিনও ছিল না। স্বাধীনতার পর প্রথমবার আমাদের প্রতিরক্ষা বিভাগে এত সংস্কার হচ্ছে। এতে আত্মবিশ্বাস বেড়েছে।”

যে সাতটি নতুন প্রতিরক্ষা সংস্থা হবে, সেগুলি হল মিউনিশন ইন্ডিয়া লিমিটেড (এমআইএল), আরমার্ড ভেহিকেলস নিগম লিমিটেড (অবনি), অ্যাডভান্স উইপনস অ্যান্ড ইক্যুইপমেন্ট ইন্ডিয়া লিমিটেড (এডব্লুই ইন্ডিয়া), ট্রুপ কমফোর্টস লিমিটেড (টিসিএল), যন্ত্র ইন্ডিয়া লিমিটেড (ওয়াইআইএল), ইন্ডিয়া অপটেল লিমিটেড (আইওএল) এবং গ্লিডার্স ইন্ডিয়া লিমিটেড (জিআইএল)।

প্রধানমন্ত্রী এদিন বলেন, এই সংস্থাগুলি তৈরির সিদ্ধান্ত দীর্ঘদিন ধরে আটকে ছিল। এই নতুন সাতটি সংস্থা আগামিদিনে দেশের সামরিক শক্তির ক্ষেত্রে এক শক্তিশালী ভিত তৈরি করবে। ভারতীয় অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরিগুলি গৌরবময় অতীতের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী জানান, এই সাতটি প্রতিরক্ষা সংস্থা পরিস্থিতি পরিবর্তনে প্রধান ভূমিকা পালন করবে।

ইতিমধ্যেই ৬৫ হাজার কোটি টাকার বেশি বরাত এই সংস্থাগুলিকে দেওয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে এই সংস্থাগুলির প্রতি দেশের ক্রমবর্ধমান আস্থা প্রতিফলিত হয়েছে। সম্প্রতি বিভিন্ন নীতির পরিবর্তনের ফলে যুব সম্প্রদায় এবং অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প সংস্থাগুলির সামনে নতুন সুযোগ তৈরি হয়েছে। গত পাঁচ বছরে ভারতের প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম রফতানির পরিমাণ ৩২৫ শতাংশ বেড়েছে বলে প্রধানমন্ত্রী জানান।

দেশীয় সংস্থাগুলিকে কেবলমাত্র দক্ষ প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলা নয় বরং উৎপাদিত সামগ্রীকে বিশ্বের বাজারে ব্র্যান্ডে পরিণত করাও এর লক্ষ্য। প্রধানমন্ত্রী বলেন, একবিংশ শতাব্দীতে যে কোনও দেশের বৃদ্ধি ও ব্র্যান্ড ভ্যালু অথবা কোনও সংস্থার পরিচিতি তার উদ্ভাবন এবং গবেষণা ও উন্নয়নের ওপর নির্ভরশীল। তিনি নতুন সংস্থাগুলির কাছে আবেদন করেন, গবেষণা ও উদ্ভাবনী চিন্তাভাবনা যেন তাদের কর্ম সংস্কৃতির অঙ্গ হয়ে ওঠে। এতে তারা ভবিষ্যৎ প্রযুক্তি ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিতে পারবে।

আরও পড়ুন: PM Narendra Modi: অতিমারির কঠিন সময় কাটিয়ে দ্রুত ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ভারতীয় অর্থনীতি: নরেন্দ্র মোদী

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla