Sanjay Raut: আলিবাগের ৮টি জমি, দাদরের আলিশান ফ্ল্যাট এল কোথা থেকে? টানা ১০ ঘণ্টা ধরে রাউতকে ম্যারাথন জেরা ইডির

Sanjay Raut: পত্র চাউল নামক একটি হাউসিং কমপ্লেক্স তৈরি যে বিপুল অর্থের দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছিল, সেই সংক্রান্ত মামলাতেই সঞ্জয় রাউতকে জেরা করছে ইডি। তাঁর বিরুদ্ধে বেআইনি আর্থিক লেনদেনের অভিযোগ করা হয়েছে।

Sanjay Raut: আলিবাগের ৮টি জমি, দাদরের আলিশান ফ্ল্যাট এল কোথা থেকে? টানা ১০ ঘণ্টা ধরে রাউতকে ম্যারাথন জেরা ইডির
ইডির হেফাজতে সঞ্জয় রাউত। ছবি:PTI
TV9 Bangla Digital

| Edited By: ঈপ্সা চ্যাটার্জী

Jul 02, 2022 | 6:21 AM

মুম্বই: আগেরবার হাজিরা এড়ালেও, এবার ইডির (ED) প্রশ্নবাণ এড়াতে পারলেন না শিবসেনা নেতা তথা সাংসদ সঞ্জয় রাউত (Sanjay Raut)। শুক্রবারই তাঁকে বেআইনি আর্থিক লেনদেন মামলায় জেরা করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (Enforcement Directorate)। প্রায় ১০ ঘণ্টা ধরে চলে সেই জেরা। রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ ইডির দফতর থেকে বের হতে দেখা যায় সঞ্জয় রাউতকে। বিগত এক সপ্তাহ ধরে মহারাষ্ট্রে যে মহা নাটক চলেছে, তাতে পতন হয়েছে মহা বিকাশ আগাড়ি সরকারের। শিবসেনার ভবিষ্যৎ নিয়েও শুরু হয়েছে টানাপোড়েন। এই পরিস্থিতিতেই ইডির মুখোমুখি শিবসেনা সাংসদ।

শুক্রবার সকালেই সঞ্জয় রাউত টুইট করে জানান, তিনি ইডির দফতরে হাজিরা দিতে যাবেন। কথা মতোই তিনি সকাল সাড়ে ১১ টা নাগাদ দক্ষিণ মুম্বইয়ের বালার্ড এস্টেটে অবস্থিত ইডির দফতরে উপস্থিত হন। সেখানেই সারাদিন ধরে তাঁকে জেরা করেন ইডি আধিকারিকেরা। জেরা শেষে রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ ইডির দফতর থেকে বেরিয়ে রাউত নিজেই জানান যে, তদন্তে যাবতীয় সহযোগিতা করছেন তিনি এবং আগামিদিনেও সেই কাজই করবেন।

শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত বলেন, “তদন্তকারী সংস্থার কাজ হল তদন্ত করে সত্য উদঘাটন করা. আমি তদন্তে যাবতীয় সহযোগিতা করব। আমি হাজিরা দিতে এসেছিলাম কারণ ইডির তরফেই ডাকা হয়েছিল। আগামিদিনেও আমি তদন্তে সহযোগিতা করব।”

পত্র চাউল নামক একটি হাউসিং কমপ্লেক্স তৈরি যে বিপুল অর্থের দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছিল, সেই সংক্রান্ত মামলাতেই সঞ্জয় রাউতকে জেরা করছে ইডি। তাঁর বিরুদ্ধে বেআইনি আর্থিক লেনদেনের অভিযোগ করা হয়েছে। শিবসেনা নেতার ঘনিষ্ঠ সহকারী প্রবীণ রাউত এই দুর্নীতির সঙ্গে সরাসরি যুক্ত বলে অভিযোগ। আর্থিক তছরুপের অভিযোগে প্রবীণ রাউতকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। অন্যদিকে, গত এপ্রিল মাসেই জেরা ও তল্লাশি অভিযান চালিয়ে সঞ্জয় রাউতের স্ত্রীর নামে থাকা ১১ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়। এরমধ্যে আলিবাগের আটটি জমি ও মুম্বইয়ের দাদরে একটি ফ্ল্যাট রয়েছে।

এই খবরটিও পড়ুন

মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক ডামাডোলের মাঝেই সঞ্জয় রাউতকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরে ইডির জেরাকে ভাল চোখে দেখছে না শিবসেনা নেতারা। এনসিপি নেতা শরদ পওয়ারও চলতি সপ্তাহেই আয়কর দফতরের নোটিস পেয়েছেন, যাকে তিনি লাভ লেটার বলে উল্লেখ করেছেন।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla