‘থার্ড ওয়েভ আসতে পারে, নাইট কার্ফুতে কোনও লাভ হবে না’, সতর্ক করলেন এইমস প্রধান

লকডাউনই সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের একমাত্র পথ বলে মনে করছেন ডাঃ রণদীপ গুলেরিয়া। তিনটি বিষয়ে নজর দেওয়ার কথা বললেন।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 21:11 PM, 4 May 2021
'থার্ড ওয়েভ আসতে পারে, নাইট কার্ফুতে কোনও লাভ হবে না', সতর্ক করলেন এইমস প্রধান
প্রতীকি ছবি। সৌজন্যে- পিটিআই

নয়া দিল্লি: নতুন বছরে ভ্যাকসিনের হাত ধরে আশার আলো দেখতে শুরু করেছিলেন অনেকেই। কিন্ত করোনার দ্বিতীয় ঢেউ যে এ ভাবে নাজেহাল করে দেবে, তা বোধ হয় ভাবেননি কেউ। ভয়ও কমেছিল অনেকটাই। কিন্তু নতুন করে সংক্রমণের স্রোত বুঝিয়ে দিয়েছে যে ভাইরাসের ক্ষমতা আসলে কতটা। দ্বিতীয় ঢেউতেই কি শেষ হবে সংক্রমণ? সেই আশায় জল ঢাললেন এইমসের ডিরেক্টর ডঃ রণদীপ গুলেরিয়া। তাঁর আশঙ্কা যে ভাবে নিজের রূপ বদলে স্থায়ীত্ব বাড়াচ্ছে এই ভাইরাস, তাতে তৃতীয় ঢেউ আসতে পারে। আর তার রুখতে এই সপ্তাহান্তের লকডাউন বা নাইট কার্ফু বিশেষ কার্যকরী হবে না বলেই মনে করছেন তিনি।

বিশিষ্ট এই চিকিৎসকের মতে, করোনা নিয়ন্ত্রণে আনতে দেশ জোড়া লকডাউনের পথে হাঁটাই শ্রেয়। একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত লকডাউন করলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসতে পারে বলে মনে করছেন তিনি। তাঁর দাবি কোনও কোনও রাজ্যে সপ্তাহান্তের লকডাউন বা নাইট কার্ফু চালু করা হলেও, এতে বশেষ লাভ হয় না।

মূলত তিনটি বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়ার কথা বলেন গুলেরিয়া। মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘তিনটি বিষয়ে আমাদের নজর দেওয়া উচিত। প্রথমত, হাসপাতালগুলির পরিকাঠামো উন্নয়ন করতে হবে, দ্বিতীয়ত, সংক্রমণের সংখ্যা কমানোর দিকে জোর দিতে হবে আর অতি অবশ্যই টিকাকরণ কর্মসূচি চালিয়ে যেতে হবে।’’ মানুষের সঙ্গে মানুষের সংযোগ কমালে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসতে পারে বলে মনে করেন তিনি।

আরও পড়ুন: করোনা রুখতে গিয়ে এই ভুল করবেন না, বাড়তে পারে ক্যানসারের আশঙ্কা, সতর্কবাণী এইমস প্রধানের

ডাঃ গুলেরিয়া আরও বলেন, ‘ইউকে-র মতো লকডাউন জারি করা যেতে পারে। তবে পূর্ণ লকডাউন জারি করার আগে রাজ্যের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। কারণ তঁর মতে মানুষের জীবন-জীবিকা, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও পরিষেবার বিষয় নিশ্চিত করে তবেই এই ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া প্রয়োজন। কয়েক মাস আগেই গুলেরিয়া সতর্ক করেছিলেন, করোনার ভারতীয় প্রজাতি অন্যগুলির চেয়ে বেশি ভয়ঙ্কর। এ ছাড়া, ডাঃ রণদীপ গুলেরিয়ার মতে, রিপোর্ট নেগেটিভ আসার সিটি স্ক্যান করালে ভবিষ্যতে ক্যানসারের আশঙ্কা বাড়ে। গুলেরিয়া জানান, বারবার সিটি স্ক্যান করলে বৃদ্ধ বয়সে ক্যানসারের সম্ভাবনা বেড়ে যেতে পারে। তাঁর পরামর্শ, সিটি স্ক্যান তখনই করা প্রয়োজন, যখন আপনার জ্বর আছে এবং আপনি হাসপাতালে ভর্তি।