রাজস্বমন্ত্রীর উপর হামলার প্রতিবাদ, কার্ফুর মাঝেই ২৪ ঘণ্টার বনধ পালন আইপিএফটির

গত বুধবার রাজ্যের রাজস্বমন্ত্রী নরেন্দ্র চন্দ্র দেববর্মাকে ঘিরে কালো পতাকা দেখিয়ে প্রতিবাদ প্রদর্শন করে তিপরা দলের সমর্থকরা। বৈঠক চলাকালীন পুলিশের উপস্থিতিতে ইটবৃষ্টিও করেন তাঁরা। এর প্রতিবাদেই বনধের ডাক দিয়েছিল আইপিএফটি সমর্থকরা।

রাজস্বমন্ত্রীর উপর হামলার প্রতিবাদ, কার্ফুর মাঝেই ২৪ ঘণ্টার বনধ পালন আইপিএফটির
রাস্তা আটকে দাঁড়িয়ে বনধ সমর্থকরা।

আগরতলা: শাসকদল বিজেপির জোটসঙ্গী আইপিএফটি(IPFT)-র প্রধান তথা রাজ্যের রাজস্বমন্ত্রী নরেন্দ্র চন্দ্র দেববর্মা(Narendra Chandra Debbarma)-র উপর হামলার ঘটনার প্রতিবাদে ত্রিপুরা উপজাতি অধ্যুষিত এলাকায় ২৪ ঘণ্টার বনধ পালন করল আইপিএফটি দল। করোনা সংক্রমণের জেরে রাজ্যজুড়ে নৈশ কার্ফু চলছে। তারই মাঝে বনধ পালন করল সমর্থকরা।

গত বুধবার রাজ্যের রাজস্বমন্ত্রী নরেন্দ্র চন্দ্র দেববর্মা জামপুইজালা-তাকারজালা কেন্দ্রে করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে ও উন্নয়নের কাজ কতদূর এগিয়েছে, তা নিয়ে বৈঠক করতে যান। সেখানেই তার উপর চড়াও হয় পরিষদের শাসক দল তিপরার ৫০-৬০ জন সমর্থক। কালো পতাকা দেখিয়ে গো ব্যাক স্লোগান দেয় তাঁরা। বিক্ষোভের খবর শুনেই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ।

বিক্ষোভকারীদের সরানোর চেষ্টা করতেই তাঁরা কমিউনিটি হল লক্ষ্য করে ইট ছুড়তে শুরু করে। কোনওমতে দেববর্মাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ।

এই ঘটনার সমালোচনা করে সরব হয়েছিলেন স্বয়ং নরেন্দ্র চন্দ্র দেববর্মাই। তিনি বলেছিলেন, “রাজ্যজুড়ে কেবল অরাজকতা চলছে। আমি কোনও গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে এমন ঘটনা দেখিনি। এখানে কোনও আইনের শাসন নেই, গণতন্ত্রই বিপন্ন হয়ে পড়েছে। স্বরাষ্ট্র দফতরের উচিত, দ্রুত কোনও পদক্ষেপ করা, নাহলে পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে।”

এরপরই বনধের ডাক দেয় আইপিএফটি-র সমর্থকরা। তবে রাজ্যজুড়ে করোনা সংক্রমণের জেরে নৈশ কার্ফু চলায় বিকেল থেকেই সমস্ত দোকান-পাট বন্ধ ছিল। ফলে কোথাও অশান্তির সৃষ্টি হয়নি। মান্ডাই সহ পশ্চিম ত্রিপুরার কয়েকটি জায়গায় বনধ সমর্থনকারীদের পুলিশ বাড়ি চলে যাওয়ার অনুরোধ করলে তারা সেই কথা মেনে নেন বলেও জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: ‘টিকা কিনতে গেলে তো দেউলিয়া হয়ে যাব’, করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্রের ভূমিকায় অসন্তুষ্ট সোরেন

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla