জ্ঞান হারালেন করোনা টিকা নেওয়ার পরেই, রহস্যমৃত্যু টিকাপ্রাপকের

জানুয়ারি মাসে করোনার প্রথম টিকা (COVID-19 Vaccine) নিয়েছিলেন মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা। মঙ্গলবার দ্বিতীয় ডোজ় নেওয়ার পর নিয়ম মতোই তাঁকে অবজারভেশনে রাখা হয়েছিল। সেখানেই তিনি সংজ্ঞা হারান। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 11:09 AM, 3 Mar 2021
জ্ঞান হারালেন করোনা টিকা নেওয়ার পরেই, রহস্যমৃত্যু টিকাপ্রাপকের
প্রতীকী চিত্র।

মুম্বই: প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা হিসাবে একমাস আগেই নিয়েছিলেন করোনার প্রথম টিকা( COVID-19 Vaccine)। ২৮ দিনের ব্যবধানে দ্বিতীয় টিকা নিতে মঙ্গলবারই পৌছে গিয়েছিলেন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। কিন্তু টিকা নেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই মৃত্যু হল বছর ৪৫-র ওই ব্যক্তির। যদিও ঠিক কি কারণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে, সেই বিষয়ে এখনও জানা যায়নি।

মহারাষ্ট্রের ভিওয়ান্ডি জেলার বাসিন্দা সুখদেব কিরদত (৪৫) এক চক্ষু বিশেষজ্ঞের গাড়ির চালকের কাজ করতেন। গত জানুয়ারি মাসের ২৮ তারিখ তিনি প্রথম টিকা নিয়েছিলেন। এরপর গতকাল তিনি দ্বিতীয় টিকা নেন। কিন্তু টিকা নেওয়ার ১৫ মিনিটের মধ্যেই তিনি অবজ়ারভেশন রুমে জ্ঞান হারান। তাঁকে ইন্দিরা গান্ধী মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

হাসপাতালের চিকিৎসক কেআর খারাত বলেন, “উনি একমাস আগেই টিকা নিয়েছিলেন। তখন কোনও সমস্যা ছিল না। প্রতিবার টিকা দেওয়ার আগেই চেক-আপ করা হয়। সেখানেই জানা গিয়েছিল, তিনি দীর্ঘদিন ধরেই রক্তচাপের সমস্যায় ভুগছিলেন। তাঁর পায়ের পাতাও ফুলেছিল। তবে দ্বিতীয় টিকা দেওয়ার আগে স্বাস্থ্য পরীক্ষায় তাঁর রক্তচাপ ও অক্সিজেনের পরিমাণ ঠিকই ছিল।”

আরও পড়ুন: ‘দেশে জরুরি অবস্থা জারি করে ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ঠাকুমা’, বিস্ফোরক রাহুল গান্ধী

টিকা নেওয়ার পর ওই ব্যক্তির মৃত্যু ঘিরে সংশয় তৈরি হলেও চিকিৎসকদের মত, টিকা নেওয়ার সঙ্গে ওনার মৃত্যুর কোনও সম্পর্ক নেই। তবে সঠিক কারণ জানতে ময়নাতদন্ত করা হবে। এরপরই তাঁর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

গত ১ মার্চ থেকে দেশজুড়ে দ্বিতীয় দফার টিকাকরণ শুরু হয়েছে। এই দফায় ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি ও ৪৫ বছরের বেশি, যাঁদের কো-মর্ডিবিটি (Co-Mordibity) রয়েছে, তাঁদের টিকা দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে একাধিক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও রাজনৈতিক নেতারা টিকা নিয়েছেন।

আরও পড়ুন: বিজেপিকে জিততে দেওয়া যাবে না, আবেদন নিয়ে কলকাতায় আসছেন সিঙ্ঘুর কৃষকরা