PM Narendra Modi: ‘গোটা একটা দশক নষ্ট হয়েছে দুর্নীতিতে’, সনিয়াকে পাল্টা আক্রমণ মোদীর

PM Narendra Modi: 'গোটা একটা দশক নষ্ট হয়েছে দুর্নীতিতে', সনিয়াকে পাল্টা আক্রমণ মোদীর
ফাইল চিত্র

PM Narendra Modi: কংগ্রেসের এই দোষারোপ শুনে চুপ করে থাকেননি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। শুক্রবারই ভার্চুয়াল মাধ্যমে মধ্য প্রদেশের স্টার্ট-আপ কনক্লেভের উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী জানান, ২০১৪ সালে দেশে মাত্র ৩০০-৪০০ স্টার্টআপ সংস্থা ছিল। কিন্তু বিগত আট বছরে স্বীকৃত স্টার্টআপ সংস্থার সংখ্যাই ৭০ হাজার পার করেছে।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: ঈপ্সা চ্যাটার্জী

May 14, 2022 | 12:12 PM

নয়া দিল্লি: চিন্তন শিবিরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী(Narendra Modi)-কে আক্রমণ করেছেন কংগ্রেস নেত্রী সনিয়া গান্ধী(Sonia Gandhi)। শুক্রবারই তার পাল্টা জবাব দিলেন প্রধানমন্ত্রী। কংগ্রেসের পরিবারতন্ত্রকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “গোটা একটা দশক নষ্ট হয়ে গিয়েছে স্বজনপোষণ, নীতি গ্রহণের অক্ষমতা ও দুর্নীতিতেই।” বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পরই যুবদের উদ্ভাবনী শক্তির উপর ভরসা তৈরি হয়েছে এবং স্টার্ট-আপ সংস্থা চালু করার জন্য যথাযথ পরিবেশ তৈরি হয়েছে বলেও দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী।

রাজস্থানের উদয়পুরে তিনদিনের জন্য চিন্তন শিবিরের আয়োজন করেছে কংগ্রেস(Congress)। দলের অন্দরের যাবতীয় সমস্যার সমাধান ও সাংগঠনিক পরিবর্তনের লক্ষ্যেই এই চিন্তন শিবিরের আয়োজন করা হয়েছে। শিবিরর প্রথমদিনেই প্রধানমন্ত্রী মোদী ও কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে আক্রমণ করেছেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী। বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে তিনি ধর্মীয় মেরুকরণ ও গোটা দেশে ভয়ের পরিবেশ তৈরি করার অভিযোগ এনেছেন। একইসঙ্গে কংগ্রেস নেত্রীর দাবি, দেশের আসল সমস্যাগুলি থেকে সাধারণ মানুষের নজর ঘোরাতেই ধর্মীয় মেরুকরণের রাজনীতিকে তুরুপের তাস বানিয়েছে বিজেপি।

কংগ্রেসের এই দোষারোপ শুনে চুপ করে থাকেননি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। শুক্রবারই ভার্চুয়াল মাধ্যমে মধ্য প্রদেশের স্টার্ট-আপ কনক্লেভের উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী জানান, ২০১৪ সালে দেশে মাত্র ৩০০-৪০০ স্টার্ট-আপ সংস্থা ছিল। কিন্তু বিগত আট বছরে স্বীকৃত স্টার্ট-আপ সংস্থার সংখ্যাই ৭০ হাজার পার করেছে। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ভারতে বরাবরই নতুন কিছু তৈরি করার একটা অদমিত আগ্রহ থাকে। তথ্য প্রযুক্তি ক্ষেত্রের উদ্ভাবনের সময়ই আমরা তা দেখেছি। কিন্তু নতুন সংস্থা তৈরির জন্য যে পরিবেশ ও সমর্থনের প্রয়োজন, তা এতদিন হয়নি। আমরা দেখেছি কীভাবে স্বজনপোষণ, নীতি গ্রহণের অক্ষমতা ও দুর্নীতিতেই গোটা একটা দশক নষ্ট হয়ে গিয়েছে। আমাদের যুব প্রজন্মের কাছে নতুন স্বপ্ন রয়েছে, নতুন কিছু তৈরি করার জন্য আগ্রহ রয়েছে, কিন্তু আগের সরকারের কোনও স্বচ্ছ নীতি না থাকায় তারা বিভ্রান্তই হত শুধু। ২০১৪ সালে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর দেশের যুব প্রজন্মের মধ্যে উদ্ভাবনী শক্তিকে জাগিয়ে তোলা হয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “২০১৪ সালের পর আমরা নতুন চিন্তাধারা, উদ্ভাবন ও শিল্পের উপর জোর দিয়েছি। প্রথমেই আমরা পরিকাঠামোর উন্নয়নে বিনিয়োগ করেছি। নতুন নতুন চিন্তাভাবনাকে বাস্তবে পরিণত করতে যা কিছু সাহায্যের প্রয়োজন, তা দেওয়ার চেষ্টা করেছি আমরা। আমাদের কারণেই স্টার্ট-আপ আজ শুধুমাত্র মেট্রো শহরগুলির মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “২০১৪ সালে দেশে মোট ৩০০ থেকে ৪০০টি স্টার্ট-আপ সংস্থা ছিল। কিন্তু বিগত আট বছরে ৭০ হাজারেরও বেশি স্টার্ট-আপ সংস্থা তৈরি হয়েছে। স্টার্ট-আপের ক্ষেত্রে আমাদের দেশই বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম দেশ, যেখানে যথাযথ বাস্তুতন্ত্র রয়েছে নতুন সংস্থা গড়ে তোলার। আজ স্টার্ট-আপ আর মেট্রো শহরে সীমাবদ্ধ নেই, ৫০ শতাংশ স্টার্ট-আপই ছোট ছোট শহরে অবস্থিত।”

এই খবরটিও পড়ুন

কংগ্রেস জমানার তুলনায় বিগত আট বছরে দেশ যে ব্যাপক পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে গিয়েছে, তাও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA