নাইট কার্ফুর তোয়াক্কা না করে চলছিল বিয়ে বাড়ি, লাঠিপেটা করে অতিথিদের বের করলেন ‘দাবাং’ জেলাশাসক

ভাইরাল ভিডিয়োতে (Viral Video) দেখা যাচ্ছে, বিয়ের কনেকেও নেমে আসতে বলছে জেলাশাসক (DM)।

নাইট কার্ফুর তোয়াক্কা না করে চলছিল বিয়ে বাড়ি, লাঠিপেটা করে অতিথিদের বের করলেন 'দাবাং' জেলাশাসক
ভাইরাল সেই ভিডিয়ো

আগরতলা: দেশ জুড়ে মানুষে মৃত্যুর খবর। সংক্রমণ ছড়াচ্ছে হু হু করে। আইসিইউ-তে বেড নেই, অক্সিজেন নেই। প্রতি মুহূর্তে সতর্কতার বার্তা দিচ্ছে প্রশাসন। আর এর্ মধ্যে বহাল তবিয়তে চলছিল বিয়ে বাড়ি। নাইট কার্ফুকে তোয়াক্কা না করে হৈ হৈ করে অতিথিদের নিয়ে বিয়ে বাড়ি চলছিল। আর সেখানে গিয়ে কার্যত অতিথিদের ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করলেন ত্রিপুরার জেলাশাসক। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিয়ো।

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে ত্রিপুরায় জারি করা হয়েছে নাইট কার্ফু৷ কিন্তু সেই কোভিড বিধি এড়িয়ে আগরতলার দু’টি বাড়ি ভাড়া নিয়ে চলছিল বিয়ের অনুষ্ঠান৷ সরকারি বিধি ভেঙে নিমন্ত্রিতের সংখ্যাও ছিল যথেষ্ট বেশি৷ আর সেই দুই বিয়ে বাড়িতে পুলিশ নিয়ে হানা দেন জেলাশাসক। নাইট কার্ফু পালন হচ্ছে কিনা, খতিয়ে দেখতেই টহল দিচ্ছিলেন তিনি। এরপর বিয়ে বাড়িতে ঢুকে অনুষ্ঠানই বন্ধ করে দিলেন ত্রিপুরা পশ্চিমের জেলাশাসক শৈলেশ কুমার যাদব৷ বর কনে সহ বিয়েবাড়িতে উপস্থিত প্রত্যেককেই গ্রেফতারের নির্দেশ দেন তিনি।

ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, লাঠিপেটা করে অতিথিদের বের করে দিচ্ছেন পুলিশকর্মীরা। এমনকি বিয়ের কনেকেই মঞ্চ থেকে নেমে আসতে বলছেন তিনি। জেলাশাসকের অভিযোগ, ওই দুই বিয়েবাড়ির বাইরে পুলিশও মোতায়েন করা ছিল, তা সত্ত্বেও তারা ব্যবস্থা নেয়নি। আগরতলা পূর্ব থানার ওসি-কে সাসপেন্ড করার জন্য তিনি সরকারকে সুপারিশ করবেন বলেও জানান জেলাশাসক শৈলেশ কুমার যাদব৷ পাশাপাশি ওই বিয়ে বাড়ি দু’টি এক বছরের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি৷

আরও পড়ুন: করোনা পরিস্থিতি নিয়ে দিল্লিতে জরুরি বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী

ত্রিপুরায় শতাধিক মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন প্রত্যেকদিন। অথচ, রাজ্যে হাজারের বেশ রোগীরে পরিষেবা দেওয়ার পরিস্থিতি নেই। তাই নাইট কার্ফু জারি করা হয়। জেলাশাসকের এই পদক্ষেপে খুশি অনেকেই।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla