১৫১ কোটি টাকার প্রকল্পের উদ্বোধন করতে গিয়ে বাড়তি ১৩০০ কোটির ‘উপহার’ দিলেন অর্থমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী বলেন, "এই প্রকল্পগুলির সাহায্যেই আগামিদিনে হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ আসবে ত্রিপুরায়। রাজ্যের পাশাপাশি দেশের অর্থনীতিতেও উন্নতি হবে। উন্নত হবে গোটা উত্তর পূর্ব ভারতের যোগাযোগ ব্যবস্থাই।" 

১৫১ কোটি টাকার প্রকল্পের উদ্বোধন করতে গিয়ে বাড়তি ১৩০০ কোটির 'উপহার' দিলেন অর্থমন্ত্রী
মুখ্য়মন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের সঙ্গে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। ছবি:PTI

আগরতলা:  আরও ১৩০০ কোটি টাকার প্রকল্প হবে ত্রিপুরায়। একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধনে দু’দিনে ত্রিপুরা গিয়ে জনজাতির জীবনযাত্রা উন্নয়নে নতুন করে ১৩০০ কোটি টাকার একটি  অতিরিক্ত প্রকল্পের ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন (Nirmala Sitharaman )।

বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথম কোনও অর্থমন্ত্রী ত্রিপুরা সফরে এলেন। দু’দিনের সফরের প্রথমদিনেই যাবতীয় কর্মসূচি রেখেছিলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। ১৫১ কোটি টাকার মোট ১১টি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন তিনি শুক্রবার। পাশাপাশি উদ্বোধন করেন গান্ধীগ্রামের একটি টিকাকরণ কেন্দ্রেরও। মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব সহ রাজ্যের বিভিন্ন দফতরের আধিকারিকদের সঙ্গেও তিনি কথা বলেন রাজ্যের উন্নয়ন সহ একাধিক বিষয়ে।

আগরতলার মোহনপুর এলাকায় একটি জনসভায় অর্থমন্ত্রী কথা বলতে গিয়ে অতিরিক্ত ১৩০০ কোটি টাকার প্রকল্পের ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, “ত্রিপুরার আদিবাসী অঞ্চলগুলির পরিকাঠামো উন্নয়ন ও তাদের জীবনযাত্রা উন্নয়নের জন্য ১৩০০ কোটি টাকার একটি প্রকল্পের ঘোষণা করা হচ্ছে। আগামী ১০ দিনের মধ্যে কেন্দ্রের তরফে এই প্রকল্পে ছাড়পত্র দেওয়া হবে।”

ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে পুজো দিলেন অর্থমন্ত্রী। ছবি:PTI

অর্থমন্ত্রী বলেন, “প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অন্ত্য়োর্দয়ের লক্ষ্যে যে স্বপ্ন দেখেছেন, সকলকে একটি সম্মানজনক ও মর্যাদাপূর্ণ জীবন উপহার দেওয়ার লক্ষ্য স্থির করেছেন, সেই কাজেই সাহায্য করবে এই প্রকল্প।” তিনি জানান, শুক্রবার সকালেই কেন্দ্রের তরফে ২১ কোটি টাকার প্রকল্পের জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। রাজ্য সড়ক চওড়া করায় ১৪.১৫ কোটি টাকা ও আগরতলায় নানা উন্নয়ন প্রকল্পে ৭.৪ কোটি টাকা খরচ করা হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, “এই প্রকল্পগুলির সাহায্যেই আগামিদিনে হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ আসবে ত্রিপুরায়। রাজ্যের পাশাপাশি দেশের অর্থনীতিতেও উন্নতি হবে। উন্নত হবে গোটা উত্তর পূর্ব ভারতের যোগাযোগ ব্যবস্থাই।”  শুক্রবার অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতাারামন ডিজিটাল মাধ্যমে তিনটি ভূগর্ভস্থ জল পরিশুদ্ধ প্ল্যান্টের উদ্বোধন করেন। রামপুর, প্রগতি ও ডুলকিতে হওয়া এই তিনটি প্রকল্পের জন্য খরচ হবে ২০ কোটি টাকা। এই প্ল্যান্টগুলি তৈরি হয়ে গেলে প্রতিদিন ২২.৪০ মিলিয়ন লিটার পরিশুদ্ধ জল উৎপাদন করবে, যা গোটা আগরতলা পুরসভা এলাকা জুড়ে সরবরাহ করা হবে।

শুক্রবার তিনি ত্রিপুরা পৌঁছতেই অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। দীর্ঘক্ষণ রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে আলেচনা হয় তাদের মধ্যে। এ দিন সকালে অর্থমন্ত্রী ত্রিপুরাসুন্দরী মন্দিরে পুজো দিতে যান। আজ বিকেলেই তাঁর দিল্লি ফিরে যাওয়ার কথা।

  বিগত কয়েক মাস ধরেই রাজনীতিকে কেন্দ্র করে বারবার চর্চা এসেছে ত্রিপুরা। পদ্ম বনাম ঘাসফুলের লড়াইকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়েছে রাজ্য। প্রতিবেশী রাজ্য দখল করতে প্রায় প্রতি সপ্তাহেই ত্রিপুরায় যাচ্ছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। সম্প্রতিই তৃণমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্যায়ের ত্রিপুরা সফর ঘিরে এবং দলীয় কর্মসূচিতে দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা ও জয়া দত্ত আক্রান্ত হওয়াকে কেন্দ্র করেও উত্তপ্ত হয় দুই রাজ্যের রাজনেৈতিক পরিস্থিতি। আরও পড়ুন: ‘মমতা ত্রিপুরায় পা রাখলে ভূমিকম্প হবে’, হুঁশিয়ারি অভিষেকের 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla