তিন বছর আগে পাশ করেও মেলেনি চাকরি, সকাল থেকে ধরনায় ৭০০ প্রার্থী

অভিযোগ অন্য রাজ্য থেকে লোক নিয়ে এসে কাজ করানো হচ্ছে, তবু নতুন প্রার্থীদের নিয়োগ করা হচ্ছে না।

তিন বছর আগে পাশ করেও মেলেনি চাকরি, সকাল থেকে ধরনায় ৭০০ প্রার্থী
কলকাতার রাস্তায় ধরনায় প্রার্থীরা

কলকাতা: ফের ধরনায় বসলেন চাকরি প্রার্থীরা। রেলের চাকরি নিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ধরনায় বসেছেন শতাধিক চাকরি প্রার্থী। তাঁদের দাবি, ২০১৮ তে পাশ করলেও নিয়োগ হয়নি তাঁদের। শুধু লিখিত পরীক্ষা নয়, মেডিক্যাল পরীক্ষা পর্যন্ত হয়ে গিয়েছিল এই প্রার্থীদের। এই দাবিতে আন্দোলন হয়েছে আগেও, তবে আশ্বাস ছাড়া কিছুই মেলেনি। প্রায় ৭০০ প্রার্থী এ দিন সকাল থেকে ধরনায় বসেছেন। লিখিত আশ্বাস না পেলে তাঁরা উঠবেন না বলে জানিয়েছেন।

এ দিন সকাল থেকে কলকাতায় দক্ষিণ-পূর্ব রেলের হেড অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখান চাকরি প্রার্থীরা। এই অফিস থেকে কলকাতা ডিভিশনের নিয়োগ হয়, তাই এখানে ধরনায় বসেছেন তাঁরা। ২০১৮ সালের পরীক্ষায় পাশ করেছিলেন এই প্রার্থীরা। শুধু এ রাজ্যে নয়, অন্যান্য রাজ্যেও এ ভাবে নিয়োগ আটকে আছে বলে জানিয়েছেন তাঁরা। এ দিন রেল কর্তৃপক্ষের তরফে তাঁদের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে নিয়োগের। তবে প্রার্থীরা জানিয়েছেন, তিন বছর ধরে এরকম আশ্বাস মিলেছে অনেক। কোনও লাভ হয়নি। তাই লিখিত আশ্বাস দিতে হবে, তবেই ধরনা থেকে উঠবেন তাঁরা।

এক চাকরি প্রার্থী জানান, মেডিক্যাল পরীক্ষা আগেই হয়েছে। তাই যত দিন যাচ্ছে তত মেডিক্যাল স্ট্যান্ডার্ড কমে যাচ্ছে। তাই দ্রুত নি্যোগ না হলে সমস্যা হতে পারে। তাঁদের প্রশ্ন, পরবর্তীকালে নিয়োগের সময় মেডিক্যাল পরীক্ষায় কোনও সমস্যা ধরা পড়লে তার দায় কে নেবে? এই বিষয়ে রেল কর্তৃপক্ষের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

কয়েক দিন আগে পুলিশের নিয়োগ নিয়ে বিক্ষোভের ছবি দেখা যায় কলকাতায়। সে ক্ষেত্রেও প্রার্থীদের নিয়োগের সব পরীক্ষা সম্পূর্ণ হলেও নিয়োগ হয়নি। এমনকি অনেকের হাতে নিয়োগ পত্র এলেও চাকরিতে যোগ দিতে পারেননি তাঁরা। আরও পড়ুন: করোনাকালে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী হওয়াটাই কি ওদের অপরাধ? মাত্রা ছাড়া বিদ্রূপে পড়ুয়াদের মনোবল ভাঙছে না তো!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla