Bhabanipur By-Election: ‘হুমকি দিচ্ছে ওরা’, গোপনে প্রচার নিয়ে মুখ খুললেন দিলীপ

Bhabanipur By-Election: বিজেপির নয়া কৌশল অনুযায়ী, এবার থেকে কাউকে না জানিয়েই ভবানীপুরের বিভিন্ন এলাকায় প্রচারে যাবে বিজেপি নেতৃত্ব।

Bhabanipur By-Election: 'হুমকি দিচ্ছে ওরা', গোপনে প্রচার নিয়ে মুখ খুললেন দিলীপ
বাংলায় কোন দায়িত্বে দিলীপ? (ফাইল ছবি)

কলকাতা: ভবানীপুরের (Bhabanipur) জন্য নতুন রণকৌশল নিয়েছে গেরুয়া শিবির। বিজেপি (BJP) প্রার্থী প্রিয়াঙ্ক টিব্রেওয়ালের (Priyanka Tibrewal) দাবি, প্রচার করতে তিনি যেখানেই যাচ্ছেন সেখানেই তাঁর পিছু নিচ্ছে একদল লোক। আর তাদের যথেষ্ট সন্দেহের চোখেই দেখছে বিজেপি নেতৃত্ব। তাই এবার গেরুয়া শিবিরের প্রচার হবে একেবারে গোপনে। কোথায়, কখন প্রচারে যাবেন প্রার্থী, সে ব্যাপারে আগে থেকে জানানো হবে না কাউকে। শুক্রবারই বিজেপি নেতৃত্বের তরফে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের (Dilip Ghosh) দাবি, ‘তৃণমূল কর্মীরা এসে হুমকি দিচ্ছে’, তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

শনিবার সকালে ইকো পার্কে প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে দিলীপ ঘোষ বিজেপির সেই গোপন প্রচারের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিলেন। এ দিন তিনি বলেন, ‘গোপন প্রচার মানে কর্মীদের বাড়িতে যাওয়া, আবাসনে প্রচার করা।’ বিষয়টি জানাজানি হলে তৃণমূল কর্মীরা এসে হুমকি দিচ্ছে বলে তাঁর অভিযোগ। তাই পরিকল্পনা করে বিজেপির বহু নেতা-কর্মী বাড়ি বাড়ি গিয়ে গোপনে প্রচার করছেন বলে জানিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবি, বিধানসভা ভোটের সময় বহু হিন্দিভাষী ও অবাঙালি আবাসনগুলিতে গিয়ে তৃণমূল অত্যাচার চালিয়েছিল। গাড়ি ভাঙচুর করেছিল। দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘এ বার আমরা আর তা চাইনা। তা এড়াতেই বিজেপির এই পদক্ষেপ।’ এই নিয়ে নানা পরিকল্পনাও করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়ালের অভিযোগ, তিনি যেখানে যাচ্ছেন, সেখানেই তাঁর প্রচার টিমের পিছনে থাকছে ১৫ থেকে ২০ জনের একটি দল। যাদের মধ্যে কাউকে চেনেন না তিনি। প্রিয়াঙ্কার দাবি, এই অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের পুলিশ বলে দাবি করা হলেও, আদতে তারা পুলিশ কি না, তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। বিজেপি নেত্রীর অনুমান, এরা আদতে পুলিশ নয়। প্রিয়াঙ্কার প্রচারে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে ভিড় বাড়াচ্ছে এরাই। আর সেই ভিড় দেখেই উঠছে বিধি ভঙ্গের অভিযোগ। সম্প্রতি এই বিধি ভঙ্গের অভিযোগে নির্বাচন কমিশনের তরফে চিঠি দেওয়া হয় প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়ালকে। বিজেপির দাবি, ওই সব ব্যক্তি  পুলিশের লোক হলে তারা যেন পুলিশের পোশাকে আসে।

বিজেপির নয়া কৌশল অনুযায়ী, বেশ কয়েকটি এলাকায় প্রচারের কর্মসূচি গোপন রাখা হবে এ বার থেকে। সূত্রের খবর, আগে থেকে সংবাদ মাধ্যমকেও জানানো হবে না। ভবানীপুরের প্রচারে জন্য বিজেপির যে কমিটি রয়েছে, সেই কমিটিই সিদ্ধান্ত নিয়েছে এই নতুন কৌশল নিয়ে। বিজেপির অভিযোগ, বিজেপি প্রার্থী প্রচারে কোথাও গেলেই পুলিশ নজরদারি চালাচ্ছে, প্রার্থী প্রচার সেরে ফেরার পরে বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে তৃণমূল শাসাচ্ছে বলেও অভিযোগ। কমিটির চেয়ারম্যান রুদ্রনীল ঘোষ জানিয়েছেন, এবার থেকে বেশ কিছু এলাকায় প্রার্থী যাবেন আগে থেকে কাউকে কিছু না জানিয়ে। তারকা প্রচারকরাও কিছু কিছু এলাকায় গোপনে প্রচার সারছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন: Unknown Fever: উৎসবের বাংলায় এ কোন বিপদের ঘনঘটা! ১৪ জেলায় আক্রান্ত ১৩০০’র বেশি শিশু

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla