Corporation Election: হাইকোর্টে ঝুলে রইল পুরভোটের মামলা, কাল কি প্রকাশ হবে বিজ্ঞপ্তি?

আগামী সোমবার ফের এই মামলার শুনানি রয়েছে। হাওড়া পুরসভার ভোট নিয়ে জটিলতা রয়েই গেল।

Corporation Election: হাইকোর্টে ঝুলে রইল পুরভোটের মামলা, কাল কি প্রকাশ হবে বিজ্ঞপ্তি?
কলকাতা হাইকোর্টে পুরভোট সংক্রান্ত মামলা (ফাইল ছবি)

কলকাতা : পুরভোট নিয়ে মামলায় কাটল না ধোঁয়াশা। ১৯ ডিসেম্বর আদৌ ভোট হবে কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েই গেল। আগামী সোমবার হাইকোর্টে ফের এই মামলার শুনানি রয়েছে। এ দিন দ্রুত শুনানির আর্জি জানানো হয়েছে মামলাকারীর আইনজীবীর তরফে। শুনানি পিছিয়ে গেল, তবে বিজ্ঞপ্তি জারি করা যাবে না এমন কোনও আর্জি জানানো হয়নি। তাই আইনজীবীদের একাংশ মনে করছেন বিজ্ঞপ্তি জারি করতে কোনও সমস্যা নেই। ১৯ ডিসেম্বর ভোট করতে হলে হিসেব মতো আগামিকাল বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে হবে। বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলে আইনি জট বাড়বে কি না, তা নিয়ে আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলছেন কমিশন কর্তারা।

আগামী ১৯ ডিসেম্বর কলকাতা ও হাওড়া পুরনিগমের ভোট করতে চেয়ে রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিয়েছিল রাজ্য সরকার। এরপর ওই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কিছু জটিলতা তৈরি হয়। বিরোধীদের দাবি, শুধুমাত্র কলকাতা ও হাওড়া পুরনিগমে নয়, একসঙ্গে ভোট করতে হবে রাজ্যের সবকটি পুরসভায়। সেই দাবিতেই মামলা হয়ে হাই কোর্টে। আজ, বুধবার কলকাতা হাইকোর্টে সব পুরসভার ভোট একসঙ্গে করা নিয়ে বিজেপির সেই জনস্বার্থ মামলার শুনানি ছিল। এ দিন মামলাকারীর আইনজীবী পিঙ্কি আনন্দ মামলার দ্রুত শুনানির আর্জি জানান। প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব জানতে চান, কেন দ্রুত শুনানির আর্জি জানানো হচ্ছে। আইনজীবী জানান, তাঁরা সব পুরসভার একসঙ্গে ভোট চান, তাই দ্রুত শুনানি হওয়া প্রয়োজন। প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব এবং‌ বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চে শুনানি হবে সোমবার।

এ দিকে, আগামিকাল, বৃহস্পতিবার ভোটের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে গেলে জটিলতা তৈরি হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। ১৯ ডিসেম্বর ভোট করতে হলে ওই দিনই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে হবে। তাই কমিশন কী করবে, সেটাই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই আইনি পরামর্শ নিচ্ছে তারা। আজ বিজ্ঞপ্তি নিয়ে কোনও আলোচনা হয়নি আদালতে। বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ না করার আর্জিও জানানো হয়নি। কমিশনও বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করার ক্ষেত্রে কোনও অসুবিধার কথা জানায়নি।

অন্যদিকে, পুরভোট নিয়ে সংঘাত শুরু হয়েছে। কমিশনকে ইতিমধ্যেই কড়া বার্তা দিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে নিরপেক্ষ ও কার্যকরী ভূমিকা পালন করতে হবে, রাজ্য সরকারের শাখা হিসেবে কাজ করলে চলবে না, তাদের কথা মতো চললেও হবে না, এমন বার্তাই দিয়েছেন রাজ্যপাল। গতকাল রাজ্যপালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন রাজ্য নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাস।

রাজ্যপালের সেক্ষেত্রে প্রশ্ন, কেবল কলকাতা ও হাওড়াতেই কেন পুরভোট? বাকি পুরসভাগুলিতে কেন ভোট হবে না? সব পুরসভাগুলিতেই একই সঙ্গে ভোট করানোর দাবি জানিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবারই রাজ্য নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করেন রাজ্যপাল। তারপরই দুটো টুইট করেন। দ্বিতীয় টুইটে রাজ্য নির্বাচন কমিশনারকে মনে করিয়ে দিয়েছেন, পুরভোটের ক্ষেত্রে তাঁর কী কী কর্তব্য। বৈঠকের পর একটি চিঠি কমিশনকে পাঠানো হয় রাজ্যপালের তরফে।

আরও পড়ুন: Subramanian Swamy: কংগ্রেসের পর এবার বিজেপির ‘ঘর ভাঙা’র ছক? মমতা-সুব্রহ্মণ্যম সাক্ষাতে চড়ছে পারদ

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla