Ma Flyover: নবমীর রাতে ভয়াবহ দুর্ঘটনা মা উড়ালপুলে, বাইক থেকে ছিটকে পড়লেন চারজন

Road Accident: চিংড়িঘাটার দিক থেকে মা উড়ালপুলে ওঠার সময়ে একটি গাড়ির পিছনে এসে ধাক্কা মারে দু'টি বাইক। বাইকে থাকা চার যুবক হুড়মুড়িয়ে গিয়ে পড়েন রাস্তার ধারে।

Ma Flyover: নবমীর রাতে ভয়াবহ দুর্ঘটনা মা উড়ালপুলে, বাইক থেকে ছিটকে পড়লেন চারজন
নবমীর সন্ধ্যায় পথদুর্ঘটনা মা উড়ালপুলে।

কলকাতা: নবমীর (Nabami) রাতে ভয়াবহ পথদুর্ঘটনা মা উড়ালপুলে (Ma Flyover)। বাইক নিয়ে ঠাকুর দেখতে যাচ্ছিলেন একদল যুবক। অভিযোগ, বাইকের বেপরোয়া গতির কারণে আচমকা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঘটে বিপত্তি। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন চারজন বাইক আরোহী। একজনের হাত ভেঙে গিয়েছে। আরও একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

নবমীর রাত। মা উড়ালপুল ধরে হু হু করে ছুটছিল একের পর এক বাইক। স্পিডমিটারে নজর দেওয়ার সময় নেই কারও। এমনকী খেয়াল নেই, মাথায় হেলমেটটাও যে পরা হয়নি। সূত্রের খবর, আট থেকে ন’জনের একটি দল বাইকে চেপে ঠাকুর দেখতে বেরিয়েছিল।

চিংড়িঘাটার দিক থেকে মা উড়ালপুলে ওঠার সময়ে একটি গাড়ির পিছনে এসে ধাক্কা মারে দু’টি বাইক। বাইকে থাকা চার যুবক হুড়মুড়িয়ে গিয়ে পড়েন রাস্তার ধারে। এর মধ্যে এক বাইক চালক গুরুতর আহত হন। বেশ খানিকক্ষণ রাস্তায় পড়েছিলেন তিনি। পুলিশ এসে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। একজনের হাতের চোট গুরুতর। সূত্রের খবর, একজনের হাতও ভেঙে গিয়েছে।

এর আগেও একাধিকবার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মা উড়ালপুলে দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে বাইক। মাস চারেক আগে এজেসি বোস রোড হয়ে পার্ক সার্কাসের সেভেন পয়েন্টে মা উড়ালপুলের ওঠার মুখে একটি মোটর বাইক আচমকা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়। সেখান থেকে ছিটকে পড়েন বাইক চালক। খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে উদ্ধার করেন ট্রাফিক পুলিশরা। নিয়ে যাওয়া হয় এসএসকেএম হাসপাতালে। কিন্তু চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পরে ওই বাইক চালকের পরিচয় জানা যায়। ওই যুবক হাওড়া সিটি পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর পদে কর্মরত ছিলেন। নাম শৌভিক দাস। বাড়ি সোনারপুরে। হাওড়া থেকে ডিউটি সেরে বাড়ি ফেরার পথে মা ফ্লাইওভারের উপরে পার্কসার্কাসের কাছে ধাক্কা খায় তাঁর বাইক। রাস্তার পাশে ডিভাইডারে ধাক্কা মেরে বাইক থেকে ছিটকে পড়েন তিনি।

এ ছাড়া মা উড়ালপুলে অন্যতম দুর্ঘটনার কারণ চিনা মাঞ্জা সুতো। এই সুতোয় আটকে কত বার যে বিপদে পড়তে হয়েছে বাইক আরোহীদের তার হিসাব নেই। পুজোর মধ্যেও মা উড়ালপুলে বিপদ এড়ানো গেল না। তবে পুলিশ সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার যাঁরা দুর্ঘটনার কবলে পড়েছেন, তাঁদের কারও মাথায় হেলমেট ছিল না। হেলমেট থাকলে কিছুটা হলেও বিপদ এড়ানো যেত।

আরও পড়ুন: Corona Update: পুজোর বাংলায় লাফিয়ে বাড়ছে পজিটিভিটি রেট, পর পর ৪ দিন গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla