India vs New Zealand: ঋদ্ধি-শ্রেয়সের ব্যাটে ম্যাচটা কার্যত বাঁচিয়ে ফেলল ভারত

শেষ দিন কিউয়িদের চাই ২৮০ রান। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে শেষ দিন এই রান তোলা সম্ভব নয়। লো-বাউন্সের উইকেটে ম্যাচ বাঁচানোটাই উইলিয়ামসনদের লক্ষ্য হতে পারে।

India vs New Zealand: ঋদ্ধি-শ্রেয়সের ব্যাটে ম্যাচটা কার্যত বাঁচিয়ে ফেলল ভারত
শেষ বেলায় একটি উইকেট, অ্যাডভান্টেজ ভারত। সৌ: টুইটার

ভারত – ৩৪৫, ২৩৪/৭ ডিক্লেয়ার নিউজিল্যান্ড – ২৯৬, ৪/১

কানপুর: প্রতিদিনই রং বদলেছে কানপুর টেস্ট। আজও সেটাই হল। রবিবার কানপুরের সকালটা যদি কিউয়ি পেসারদের হয়, তা হলে বিকেলটা ভারতীয় লোয়ার অর্ডার ব্যাটারদের। তৃতীয় দিনের শেষে ১ উইকেট হারিয়ে ১৪ রান বোর্ডে তুলেছিল ভারত (India)। চতুর্থ দিন সকাল থেকে টিম সাউদি ও কাইল জেমিসন দায়িত্ব নিয়েছিলেন ভারতকে কোনঠাসা করার। টিম ইন্ডিয়ার টপ ও মিডল অর্ডার ধসিয়ে দিলেন দুই কিউয়ি পেসার। পূজারা, রাহানে, মায়াঙ্ক যখন পরপর প্যাভিলিয়ানে ফিরলেন তখন ঘরের মাঠে হারের ভূত চেপে বসেছে ভারতীয় শিবিরে। অভিষেক টেস্টে শতরান করা শ্রেয়সের (Shreyas Iyer) ব্যাটে ভর করে ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই শুরু। তাঁকে সঙ্গ দিলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন (Ravichandran Ashwin)। চাপ সরিয়ে ধীরে ধীরে ম্যাচে ফিরল ভারত। শ্রেয়সের সঙ্গে ৫০ রানের পার্টনারশিপ গড়লেন ঋদ্ধিমানও। ৬৫ রানের ইনিংস শ্রেয়সের। ৩২ রান অশ্বিনের।

এরপর হাল ধরলেন চোট নিয়ে ব্যাট করতে নামা ঋদ্ধিমান সাহা (Wriddhiman Saha)। ব্যাট হাতে তাঁর পরাফরম্যান্স নিয়ে ওঠা প্রশ্নের জবাব দেওয়ার মরিয়া চেষ্টা বাংলার ক্রিকেটারের। তাঁর পাশে দাঁড়ালেন অক্ষর প্যাটেল। গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে চলল তাঁদের লড়াই। এই পার্টনারশিপটাই কার্যত ম্যাচটা বাঁচিয়ে দিল বলা যায়। ৮১ ওভার শেষে রাহানে যখন দুই ব্যাটরকে ডেকে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন, তখন স্কোর বোর্ড বলছে ভারতের লিড ২৮৩ রানের। ৬১ রানে অপরাজিত ঋদ্ধিমান সাহা। অপরাজিত ২৮ অক্ষরের। এ দিকে ব্ল্যাকক্যাপসদের হয়ে তিনটি করে উইকেট সাউদি ও জেমিসনের। একটি উইকেট আজাজ প্যাটেলের।

শেষ বেলায় নিউজিল্যান্ডকে (New Zealand) যতটা সম্ভব চাপে রাখার কৌশল। দুই দিক থেকে অশ্বিন ও অক্ষরকে কাজে লাগিয়ে দিলেন রাহানে। সাফল্য একটা এল। অশ্বিনের বলে আউট উইল ইয়ং। কিন্তু সময় মত রিভিউ কল করলে তিনি যে বেঁচে যেতেন সেটা দেখিয়ে দিল হকআই। চার নম্বর দিন মাত্র চার ওভার বোলিং করার সুযোগ পেল ভারত। পঞ্চম দিন যে তিন স্পিনার ঝাঁপিয়ে পড়বেন তাতে কোনও সন্দেহ নেই। শেষ দিন কিউয়িদের চাই ২৮০ রান। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে শেষ দিন এই রান তোলা সম্ভব নয়। লো-বাউন্সের উইকেটে ম্যাচ বাঁচানোটাই উইলিয়ামসনদের লক্ষ্য হতে পারে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর – ভারত ২৩৪/৭ (শ্রেয়স ৬৫, ঋদ্ধিমান ৬১*, সাউদি ৭৫/৩, জেমিসন ৪০/৩) নিউজিল্যান্ড ৪/১ (টম ল্যাথাম ২*, অশ্বিন ৪/১)

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla