WhatsApp Account Ban: ফের এক মাসে 22 লাখ হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যান ভারতে, ‘বিপজ্জনক’ নম্বর নিষিদ্ধ করাবেন কীভাবে?

WhatsApp India: ভারতে ফের এক ধাক্কায় 22 লাখেরও বেশি অ্যাকাউন্ট ব্যান করল হোয়াটসঅ্যাপ। কী কারণে এই অ্যাকাউন্টগুলি ব্যান করা হয়েছে, কোনও নম্বরের বিরুদ্ধে আপনি অভিযোগ জানাতে কী করবেন, এমনই গুরুত্বপূর্ণ সব প্রশ্নের উত্তর জেনে নিন।

WhatsApp Account Ban: ফের এক মাসে 22 লাখ হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যান ভারতে, 'বিপজ্জনক' নম্বর নিষিদ্ধ করাবেন কীভাবে?
সতর্ক থাকতে হবে প্রতিটা মুহূর্তে, না হলে আপনার অ্যাকাউন্টও ব্যান হতে পারে। প্রতীকী ছবি।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sayantan Mukherjee

Aug 04, 2022 | 6:40 AM

2021 সালের ভারতের তথ্য প্রযুক্তি আইনের আওতায় হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp) প্রতি মাসে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করে থাকে। কী থাকে সেই রিপোর্টে? হোয়াটসঅ্যাপ এবং ভারত সরকারের এই নতুন আইটি নিয়ম অবজ্ঞা করে যে সব অ্যাকাউন্ট অবাধে চলছে, সেগুলি ব্যানের তালিকা। নতুন আইটি নিয়মে ভারতে বিগত কিছু মাসে লক্ষাধিক হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যান (Account Ban) করা হয়েছে। অর্থাৎ, উল্লিখিত সেই ফোন নম্বরগুলি থেকে আর হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করা যাবে না। 1 জুন, 2022 থেকে 30 জুন, 2022 পর্যন্ত সময়কালে হোয়াটসঅ্যাপ ভারতে 2,210,000টি অ্যাকাউন্ট চিরতরে নিষিদ্ধ করেছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, কেন হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টগুলি বারবার ব্যান হচ্ছে, সংস্থার গ্রিভেন্স অফিসারের সঙ্গে কীভাবে যোগাযোগ করা যায়, এমনই নানাবিধ প্রশ্নের উত্তর খুঁজে দেখল TV9 বাংলা।

1) ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট কীভাবে চিহ্নিত করা হয়?

+91 নম্বর দিয়ে একটা ভারতীয়ের হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট চিহ্নিত করা হয়।

2) হোয়াটসঅ্যাপ এই অ্যাকাউন্টগুলি ব্যান করেছে কেন?

কোম্পানির গ্রিভেন্স মেকানিজ়মের সাহায্য নিয়ে ভারতীয়দের দ্বারা রিপোর্ট করা, অভিযোগ করা অ্যাকাউন্টগুলিকেই ব্যান করেছে হোয়াটসঅ্যাপ।

3) হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যানের কারণ কী?

হোয়াটসঅ্যাপ জানাচ্ছে, সাধারণত অ্যাকাউন্টগুলি ব্যান করা হয় ভারতের আইন এবং হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের শর্তাদি লঙ্ঘন করার কারণেই।

4) কোনও হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যান করতে চাইলে ব্যবহারকারীরা অভিযোগ জানাবেন কীভাবে?

ব্যবহারকারীরা যদি মনে করেন যে, কোনও হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর ভারতের আইন এবং সংস্থার টার্মস অফ সার্ভিস মানছে না, তাহলে এই আইডিতে গ্রিভেন্স অফিসারের কাছে একটা ইমেল পাঠাতে হবে। পাশাপাশি হোয়াটসঅ্যাপ হেল্প সেন্টারে ওই অ্যাকাউন্টগুলি সম্পর্কে প্রশ্নও করে পাঠাতে পারেন।

5) ইমেলে নির্দিষ্ট করে কি কিছু পাঠাতে হয়?

হ্যাঁ, পাঠাতে হয়। গ্রিভেন্স অফিসারের কাছে ইমেল মারফত অভিযোগ জানাতে একটি ইলেকট্রনিক স্বাক্ষর করতে হয়। যে কন্ট্যাক্টের বিরুদ্ধে অভিযোগ, সেই নম্বরটিও ইমেলে জুড়ে দিতে হবে দেশের কোড (ভারত হলে +91) সহযোগে

6) আপনি কোনও হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ বা নির্দিষ্ট নম্বরের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানালে কী হয়?

যে ব্যক্তি বা গ্রুপের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হয়েছে, তাঁর বা তাঁদের শেষ পাঁচটি মেসেজ হোয়াটসঅ্যাপ পেয়ে যায়। যে বা যাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তাঁরা কী ধরনের মেসেজ পাঠিয়েছিলেন, ছবি, ভিডিয়ো নাকি টেক্সট, তার সবই হোয়াটসঅ্যাপ জানতে পারে।

7) ভয়ঙ্কর অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে তৎক্ষণাৎ রিপোর্ট জানানোর কোনও বাটন রয়েছে হোয়াটসঅ্যাপে?

এই খবরটিও পড়ুন

যে কোনও মেসেজ দীর্ঘক্ষণ প্রেস করে রাখলে রিপোর্ট বা কমপ্লেন বেছে নেওয়ার অপশন দেখায় হোয়াটসঅ্যাপ। একটা মেসেজ দীর্ঘক্ষণ প্রেস করে রাখলে একগুচ্ছ অপশন দেখানো হয়, যার মধ্যে থাকে ‘রিপোর্ট’। রিপোর্টে ক্লিক করলে ইউজাররা আরও দুটি অপশন দেখতে পান: রিপোর্ট এবং রিপোর্ট অ্যান্ড ব্লক। একজন প্রেরক যে অপশনই বাছুন না কেন, অপরপ্রান্তের ব্যক্তিকে নোটিফাই করা হয় না।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla