নতুন প্রাইভেসি পলিসি গ্রহণ না করলেও ইউজারদের অ্যাকাউন্টের পরিষেবা সীমিত করবে না হোয়াটসঅ্যাপ

প্রাইভেসি পলিসির পরিবর্তন প্রসঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপকে চিঠি পাঠিয়েছিল ইলেকট্রনিক্স এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক। সেখানে বলে হয়েছিল, ফেসবুক অধিকৃত এই মেসেজিং অ্যাপ কর্তৃপক্ষের উচিত তাদের নতুন প্রাইভেসি পলিসি তুলে নেওয়া।

নতুন প্রাইভেসি পলিসি গ্রহণ না করলেও ইউজারদের অ্যাকাউন্টের পরিষেবা সীমিত করবে না হোয়াটসঅ্যাপ
প্রতীকী চিত্র।

ফেসবুক অধিকৃত মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপের তরফে জানানো হয়েছে, যেসব ইউজার নতুন প্রাইভেসি পলিসি গ্রহণ করেননি, তাঁদের পরিষেবা সীমাবদ্ধ করা হবে না। ভারত সরকারের একটি চিঠির পরিবর্তী এই জবাব দিয়েছেন হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই হোয়াটসঅ্যাপের উদ্দেশে বার্তা দিয়ে কেন্দ্র জানিয়েছিলম এই মেসেজিং অ্যাপ কর্তৃপক্ষের উচিত নতুন প্রাইভেসি পলিসি বাতিল করা।

হোয়াটসঅ্যাপের নতুন প্রাইভেসি পলিসি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই জল্পনা চলছে। হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিলেন, ১৫মে- র মধ্যে নতুন প্রাইভেসি পলিসি গ্রহণ না করলে, ইউজারদের পরিষেবা সীমিত করা হবে। কিন্তু সেই প্রসঙ্গেই এ বার হোয়াটসঅ্যাপের তরফে জানানো হয়েছে যে, যদি কোনও ইউজার নতুন প্রাইভেসি পলিসি গ্রহণ না করেন, তাহলেও তাঁর অ্যাকাউন্টের পরিষেবা সীমিত করা হবে না। সেই সঙ্গে তারা এও জানিয়েছে যে, ইউজারদের প্রাইভেসি বজায় রাখাই তাদের মূল লক্ষ্য।

হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, তাদের নতুন প্রাইভেসি পলিসির মাধ্যমে কোনও ভাবেই ইউজারদের ব্যক্তিগত মেসেজের প্রাইভেসি নষ্ট হবে না। বরং যেসব ইউজার ব্যবসায়িক কাজে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে ইচ্ছুক, তাঁদের অতিরিক্ত তথ্য দেবে হোয়াটসঅ্যাপ। তবে নতুন প্রাইভেসি পলিসি গ্রহণ না করলে পরিষেবা যেমন সীমাবদ্ধ হবে না, তেমনই সময়ে সময়ে ইউজারদের নতুন প্রাইভেসি পলিসির আপডেট প্রসঙ্গে মনে করাবেন হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, প্রাইভেসি পলিসির পরিবর্তন প্রসঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপকে চিঠি পাঠিয়েছিল ইলেকট্রনিক্স এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক। সেখানে বলে হয়েছিল, ফেসবুক অধিকৃত এই মেসেজিং অ্যাপ কর্তৃপক্ষের উচিত তাদের নতুন প্রাইভেসি পলিসি তুলে নেওয়া। কারণ যেভাবে হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি পলিসি পরিবর্তন করা হয়েছে এবং যে ভঙ্গিমায় তা ব্যবহারকারীদের জানানো হয়েছে, তা সঠিক নয়। হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি পলিসির পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে প্রশ্নের মুখে পড়েছে ইউজারদের ব্যক্তিগত তথ্যের নিরাপত্তা। 

আরও পড়ুন- মাইক্রোসফটের নতুন ল্যাপটপ এল ভারতে, দাম শুরু ১.০২ লক্ষ টাকা থেকে

গত ১৮ মে এই চিঠি পাঠানোর পর জবাবের জন্য হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষকে সাতদিনের সময় দিয়েছিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রক। তার মধ্যেই ওই চিঠির জবাবে উক্ত বার্তা দিয়েছেন হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ।