বঙ্গের বিপদ ব্ল্যাক ফাঙ্গাস! উত্তরবঙ্গে আক্রান্ত আরও ১

রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, পশ্চিমবঙ্গেও একের পর এক নতুন আক্রান্ত ধরা পড়তে শুরু করেছে। বুধবারের নতুন করে রাজ্যে মিউকরমাইকোসিসে (Mucormycosis) আক্রান্তের মোট সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৩।

বঙ্গের বিপদ ব্ল্যাক ফাঙ্গাস! উত্তরবঙ্গে আক্রান্ত আরও ১
ফাইল ছবি

শিলিগুড়ি: ক্রমেই চিন্তা বাড়াচ্ছে কৃ্ষ্ণ ছত্রাক বা মিউকরমাইকোসিস। করোনার দোসর কৃষ্ণ ছত্রাকে আক্রান্তের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী, যা রীতিমতো চিন্তায় ফেলেছে বিশেষজ্ঞদের। এ বার ফের মিউকরমাইকোসিসে (Mucormycosis) আক্রান্ত হলেন শিলিগুড়ির এক ব্যক্তি। বছর পঁয়তাল্লিশের ওই ব্যক্তি শিলিগুড়ির প্রধান নগরের বাসিন্দা।

উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ (North Bengal Medical College & Hospital) সূত্রে খবর, করোনায় আক্রান্ত হয়ে ওই ব্যক্তি বেশ কিছুদিন বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। হাই সুগার আছে তাঁর। করোনা থেকে সেরে ওঠার কয়েকদিনের মধ্যেই ওই ব্যক্তির নাকে, মুখে ও চোখে মিউকরমাইকোসিসের সংক্রমণ দেখা যায়। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়। তাঁর নমুনা পরীক্ষার জন্য ভিআরডিএল ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়। বুধবার সকালে রিপোর্ট আসে ওই ব্যক্তি মিউকরমাইকোসিসে আক্রান্ত। এদিনই সন্ধ্যায় তাঁকে পিজি হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। উল্লেখ্য, দিনকয়েক আগে, আরও এক মহিলা মিউকরমাইকোসিসে আক্রান্ত হন। তাঁর অস্ত্রোপচারও সফল হয়। আপাতত স্থিতিশীল আছেন তিনি।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে, মিউকরমাইকোসিস (Mucormycosis) এক বিশেষ ধরনের বিরল প্রজাতির ছত্রাক সংক্রমণ যা মূলত দূর্বল অনাক্রম্য ব্যক্তির দেহে বাসা বাঁধে। অর্থাৎ, যে ব্যক্তির রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাঁর দেহেই বাসা বাঁধতে পারে এই মারণ ছত্রাক। মূলত কোভিডজয়ী রোগীদের দেহে প্রতিরোধক ক্ষমতা কম থাকে। যার ফলে, করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পরেই তাঁদের শরীরে দেখা মিলছে এই ছত্রাক সংক্রমণের। রোগীকে দীর্ঘদিন আইসিইউ-তে রেখে চিকিৎসা করানো, লাগামহীন ডায়াবেটিস, স্টেরয়েডের ব্যবহার ও কোমরবিডিটি এই ছত্রাক সংক্রমণের কারণ বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে, এই ছত্রাক ছোঁয়াচে নয় বলেই দাবি করছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ। ফলে এটি সরাসরি একজনের দেহ থেকে অন্যের দেহে যেতে পারে না। এই ছত্রাক সংক্রমণ হলে, ক্ষতি হতে পারে ফুসফুস ও সাইনাসের। ত্বকের সমস্যা থেকে শুরু করে চোখের সমস্যা, সবটাই ঘটতে পারে। রোগীর শরীরের অবস্থা, ছত্রাকের জোরাল সংক্রমণ এই সবকিছুর উপরেই নির্ভর করে মৃত্যুর হার।

রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, পশ্চিমবঙ্গেও একের পর এক নতুন আক্রান্ত ধরা পড়তে শুরু করেছে। বুধবারের নতুন করে রাজ্যে মিউকরমাইকোসিসে (Mucormycosis) আক্রান্তের মোট সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৩। অন্যদিকে, ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে মৃত এমন সন্দেহভাজনের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩। ইতিমধ্যেই এই বিরল প্রজাতির সংক্রমণের সংখ্যা দেশে ১১ হাজার পেরিয়ে গিয়েছে। বর্তমানে এর প্রভাব সবচেয়ে বেশি গুজরাট এবং মহারাষ্ট্রে।

আরও পড়ুন: হাসপাতালে মানা হচ্ছে না কোভিড বিধি, পরিদর্শনে এসে প্রশাসনিক কর্তাদের ধমক দিলেন মন্ত্রী বুলু চিক বড়াইক