SSC Scam: উপাচার্য সুবীরেশের গ্রেফতারিতে ‘লজ্জায় মাথা হেঁট’ উত্তরবঙ্গের শিক্ষক মহলের

North Bengal University: উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন রেজিস্ট্রার তাপস চট্টোপাধ্যায় বলেন, "লজ্জায় মাথা হেঁট হয়ে যাচ্ছে। উত্তরবঙ্গের গর্বের প্রতিষ্ঠান উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়। আমি নিজে ৫০ বছর কাজ করেছি সেখানে। সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান উপাচার্য। তিনি আজ গ্রেফতার হলেন। এ আমাদের লজ্জা।"

SSC Scam: উপাচার্য সুবীরেশের গ্রেফতারিতে 'লজ্জায় মাথা হেঁট' উত্তরবঙ্গের শিক্ষক মহলের
উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বদল হতে পারেন
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Soumya Saha

Sep 19, 2022 | 6:41 PM

শিলিগুড়ি ও কলকাতা: শিক্ষা ক্ষেত্রে দুর্নীতির মামলায় এবার উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুবীরেশ ভট্টাচার্যকে গ্রেফতার করল সিবিআই। সোমবার তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি একসময় স্কুল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান ছিলেন। সেই কারণেই এই দুর্নীতিতে সুবীরেশের ভূমিকা খতিয়ে দেখতে চান তদন্তকারীরা।

এর আগে বাগ কমিশনের রিপোর্টে অভিযুক্ত হিসেবে নাম ছিল সুবীরেশ ভট্টাচার্য। সম্প্রতি একই দিনে বাঁশদ্রোনীতে সুবীরেশ ভট্টাচার্যের বাড়ি ও উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমান উপাচার্য সুবীরেশ ভট্টাচার্যের দফতর এবং বাসভবনে তল্লাশি চালায় সিবিআই। আর এবার তাঁকে গ্রেফতার করা হল। শিক্ষা ক্ষেত্রে দুর্নীতির মামলায় রাজ্যে তিনিই প্রথম, যিনি একটি বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য হিসেবে কর্মরত অবস্থায় গ্রেফতার হলেন। বিকেলে এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে।

উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন রেজিস্ট্রার তাপস চট্টোপাধ্যায় বলেন, “লজ্জায় মাথা হেঁট হয়ে যাচ্ছে। উত্তরবঙ্গের গর্বের প্রতিষ্ঠান উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়। আমি নিজে ৫০ বছর কাজ করেছি সেখানে। সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান উপাচার্য। তিনি আজ গ্রেফতার হলেন। এ আমাদের লজ্জা।”

সুবীরেশ ভট্টাচার্যর গ্রেফতারি নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সমর বিশ্বাসও। তিনি বলেন, “যেটা হওয়ার ছিল সেটাই হয়েছে। কিন্তু সেটা অনেক দেরিতে হয়েছে। বড্ড বেশি দেরিতে হয়েছে। কারণ এরা তরুণ, শিশু ও যুব সমাজের মেরুদন্ড সম্পূর্ণভাবে ভেঙে দিয়েছে। আমার ধারণা সরকার গোটাটাই জানেন। স্কুল সার্ভিস কমিশনের বিভিন্ন পদে বহুকাল ধরে অধিষ্ঠিত এবং এদের সময়ে বেশিরভাগ ভাল পড়ুয়ারা বঞ্চিত হয়েছেন।” তিনি আরও বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয়ের টিচার্স কাউন্সিলের সভাপতি হিসেবে আমাদের সকলের মাথা নত হয়ে গিয়েছে। চরম লজ্জা এবং আমি নিজে অত্যন্ত ঘৃণা বোধ করছি। কেন এই জাতীয় মানুষকে সরকার এইখানে পাঠিয়েছেন? আমার মনে হয় গোটা উত্তরবঙ্গের মানুষকে আজ পথে নামা উচিত প্রতিবাদস্বরূপ।”

প্রতিক্রিয়া দেওয়ার ভাষা হারিয়েছেন বাগডোগরার কালিপদ ঘোষ তরাই মহাবিদ্যালয়ের অধ্যাপক শুভাশিস মিত্র। তিনি বলেন, “সিবিআই তদন্ত পক্ষপাত দুষ্ট কিনা তার তদন্তের পাশাপাশি, এরা শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্নীতিতে যুক্ত কি না তার তদন্তও দ্রুত সম্পন্ন হোক। সত্যিটা সামনে আসুক।”

রাজনৈতিক মহলেও এই নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। বিজেপি রাজ্য সম্পাদক বিধায়ক শংকর ঘোষ বলেন, বাগ কমিশনের রিপোর্টে অভিযুক্ত ছিলেন সুবীরেশ ভট্টাচার্য। তাঁকে পদ থেকে দ্রুত সরানোর দাবিতে আমরা আন্দোলন করেছিলাম। কিন্তু রাজ্য সরকার তাঁকে স্বপদে বহাল রেখেছিল। আজ সেই সুবীরেশ গ্রেফতার হলেন। এটা আমাদের আনন্দের দিন। তবে একই সঙ্গে দিনটি আমাদের কাছে লজ্জার। কারণ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলেন সুবীরেশ ভট্টাচার্য। শিক্ষা ব্যবস্থার মেরুদন্ড ভেঙে গিয়েছে।”

সিপিএম নেতা অশোক ভট্টাচার্য বলেন, “নতুন করে কিছু বলার নেই। এই সরকার এবং রাজ্যের শাসক দলের নেতারা চোর ডাকাতের দল। তারই নমুনা আমরা গোটা রাজ্যে দেখছি। এরই অঙ্গ সুবীরেশ ভট্টাচার্য। তাঁকে আজ গ্রেফতার করা হল। অপেক্ষায় আছি। এবার মাথারাও গ্রেফতার হোক।”

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla