কালো টাকায় কড়া নজরদারি কমিশনের, কেন্দ্রীয় বাহিনীর চিরুনি তল্লাশি চলছে শিলিগুড়িতে

 কালো টাকা রুখতে কমিশনের এই পদক্ষেপকে সাধুবাদ জানিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি।

কালো টাকায় কড়া নজরদারি কমিশনের, কেন্দ্রীয় বাহিনীর চিরুনি তল্লাশি চলছে শিলিগুড়িতে
চলছে নাকা চেকিং, নিজস্ব চিত্র

শিলিগুড়ি: বঙ্গ জুড়ে বিধানসভা নির্বাচনের (West Bengal assembly election 2021) দামামা বেজে গিয়েছে। মসনদ পেতে তৎপর সব রাজনৈতিক দল। ভোটে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে বরাবরই তৎপর নির্বাচন কমিশন। তাই নির্বাচনের (West Bengal assembly election 2021) নির্ঘণ্ট ঘোষণা হতেই রাজ্য জুড়ে চলছে কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুট মার্চ। এই পরিস্থিতিতে, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শিলিগুড়িতে চালু হল নাকা চেকিং (Naka Checking)। ভোটে কালো টাকার ব্যবহার রুখতে এই পদক্ষেপ নির্বাচন কমিশনের (Election Commission) এমনটাই জানিয়েছেন কমিশনের এক উচ্চ পদস্থ আধিকারিক।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে জলপাই মোড় এলাকা-সহ একাধিক জায়গায় ছোট গাড়ি বাস জুড়ে চলল ম্যারাথন তল্লাশি। কমিশনের (Election Commission) তরফে আধিকারিক ও কেন্দ্রীয় বাহিনী এই অভিযান চালায়। সূত্রের খবর, নির্বাচন পর্যন্ত এই তল্লাশি চলবে। আদর্শ আচরণ বিধি মেনে ৫০ হাজারের কম টাকা একসঙ্গে নিয়ে যাওয়া যাবে।

আরও পড়ুন: West Bengal Assembly Election 2021: স্বামী, শ্বশুর তৃণমূল, এবার মমতার দলে অদিতি মুন্সিও

কালো টাকা রুখতে কমিশনের (Election Commission) এই পদক্ষেপকে সাধুবাদ জানিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি। বিজেপির (BJP) জেলা সভাপতি প্রবীন আগরওয়ালা জানান, শিলিগুড়িতে কালো টাকার ব্যবহার হতে পারে। এই অভিযান লাগাতার চলা দরকার।

তৃণমূলের (TMC) জেলা সভাপতি রঞ্জন সরকার জানান, রাজ্য সরকারের কর্মীরা নিরপেক্ষ ভাবেই কমিশনের (Election Commission) নির্দেশ মেনে এই অভিযান চালাবেন এটাই স্বাভাবিক। এতে আপত্তির কিছু নেই। তবে দেখতে হবে ব্যবসায়ীদের যেন অযথা হেনস্থা হতে না হয়।

শিলিগুড়ির বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্য (CPM) বলেন, ‘আয়কর দপ্তর এই অভিযান চালাক। রাজ্য সরকারের কর্মীরা নিরপেক্ষ নয়। কমিশনের উচিত এই অভিযানগুলিতে সতর্ক নজর রাখা।’

আরও পড়ুন: ‘ঘর থেকে তুলে হাত-পা ভেঙে আমিই চিকিৎসা করাব’, সুশান্তর ‘হুমকি’ ঘাস-পদ্মকে

প্রসঙ্গত, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি, সাংবাদিক বৈঠকে ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার (Chief Election Commissioner) সুনীল অরোরা (Sunil Arora)। ওই বৈঠকেই ভোট আবহে রাজ্যে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে একাধিক নির্দেশ জারি করেন কমিশন প্রধান। রাজ্যে দুই বিশেষ পর্যবেক্ষক হিসেবে নিয়োগ করা হয় দুই আইএএস অজয় নায়েক ও বিবেক দুবেকে। জানা গিয়েছে, ৫ ফেব্রুয়ারি আগামী শুক্রবার রাজ্যে আসতে চলেছেন দুই পর্যবেক্ষক।