টোটো থেকে নেমেই বেছেবেছে টিকা দিয়ে দিলেন আশাকর্মী! বললেন, ‘এভাবেই সুবিধা হয়…’

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: সৈকত দাস

Updated on: Sep 06, 2021 | 10:11 PM

ASHA Worker:  এ যেন 'এলাম, দেখলাম, জয় করলাম' গোছের। করোনা  ভ্যাকসিনের (Covid Vaccine) লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন কয়েক'শো লোক। হঠাৎই টোটো থামিয়ে লাইনের সামনে এসে দাঁড়ালেন এক আশাকর্মী। তার পর নিজের ইচ্ছামতোই লাইনে দাঁড়ানো কয়েকজনকে ভ্যাকসিন দিয়ে দেন তিনি।

টোটো থেকে নেমেই বেছেবেছে টিকা দিয়ে দিলেন আশাকর্মী! বললেন, 'এভাবেই সুবিধা হয়...'
নিজস্ব চিত্র

Follow us on

হুগলি:  এ যেন ‘এলাম, দেখলাম, জয় করলাম’ গোছের। করোনা  ভ্যাকসিনের (Covid Vaccine) লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন কয়েক’শো লোক। হঠাৎই টোটো থামিয়ে লাইনের সামনে এসে দাঁড়ালেন এক আশাকর্মী। তার পর নিজের ইচ্ছামতোই লাইনে না দাঁড়ানো কয়েকজনকেও ভ্যাকসিন দিয়ে দেন তিনি। এমনই অভিযোগকে কেন্দ্র করে হুগলির পুাণ্ডুয়ায় শুরু হয়েছে বিতর্ক। এদিকে ওই আশাকর্মীর জবাব, এভাবে আগেও তিনি ভ্যাকসিন দিয়েছেন।

করোনা টিকা নেওয়ার লাইনে অশান্তি এবং বিশৃঙ্খলার ছবি ধরা পড়ছে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে। কোথাও টিকার লাইনে দাঁড়িয়েও প্রতিষেধক না পেয়ে ফিরতে হচ্ছে, কোথাও আবার টিকা নিতে গিয়ে পদপিষ্ট হয়ে আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন অনেকে। এই প্রেক্ষিতে এবার অন্যরকম অভিযোগ উঠল পান্ডুয়া গ্রামীণ হাসপাতালে। ধরা পড়ল অন্য এক ছবি। লাইনে না দাঁড়ালেও ইচ্ছামতো কয়েকজনকে ভ্যাকসিন দেওয়ার অভিযোগ উঠল হাসপাতালের এক আশা কর্মীর বিরুদ্ধে।

এদিন সকাল থেকেই নির্বিঘ্নে চলছিল ভ্যাকসিন ক্যাম্প। দুপুর গড়াতে লাইনও বাড়তে থাকে। তার মধ্যেই ধরা পড়ল অন্য ছবি। হাসপাতালের ভ্যাকসিন সেন্টারের গেটে এসে দাঁড়ায় একটি টোটো। সেখান থেকে এক আশা কর্মী বেরিয়ে এসেই বেশ কয়েকজনকে বেছেবেছে ভ্যাকসিন দিয়ে দেন। যা নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। নিয়ম না মেনে কীভাবে নিজের চেনা-পরিচিতদের ভ্যাকসিন দিয়ে দিলেন ওই আশাকর্মী, তা নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক।

এদিকে যাঁর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ, তিনি নিজেই স্বীকার করে নেন বেলাইনে ভ্যাকসিন দিয়েছেন। এর আগেও বহুবার এমন ভাবে ভ্যাকসিন দিয়েছেন তিনি বলে জানান। একইসঙ্গে ওই আশাকর্মীর সাফাই, তিনি ভ্যাকসিন দিতে জানেন। তাই তিনি আলাদা ভাবে দিয়ে দিয়েছেন। এভাবেই সুবিধা হয়।

এদিকে পান্ডুয়া গ্রামীণ হাসপাতালের হেড ক্লার্ক জয়দীপ মুখার্জী ঘটনার কথা স্বীকার করে জানান, পুরো ঘটনাটি তাঁদের অগোচরে ঘটেছে। তিনি জানান, ওই আশা কর্মীর নাম সরস্বতী পাল। ওই আশা কর্মী শারীরিকভাবে সক্ষম একজন ব্যক্তি সহ-তিনজন কে একটি টোটো-তে বসিয়ে ভ্যাকসিন দিয়েছেন। তিনি কীভাবে এটা করলেন, তা হাসপাতালেরও নজরের বাইরে। এই ঘটনার তদন্ত করা হবে বলে জানান তিনি। যাতে আগামিদিনে এই ঘটনা না ঘটে তা দেখা হবে বলে জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এদিকে আশাকর্মীর এই কাণ্ড বিএমওএইচ ও জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের নজরে আনা হচ্ছে। তাঁরাই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করবেন বলে খবর।

ওয়াকিবহাল মহল বলছে, ভ্যাকসিন নিয়ে যখন জেলায় জেলায় অশান্তির খবর পাওয়া যাচ্ছে, তখন এই ভাবে নিয়ম না মেনে ভ্যাকসিন দিতে থাকলে আগামিদিনে আরও বড় অশান্তি হতে পারে। এই ঘটনা জানাজানি হলে বড় বিশৃঙ্খলা তৈরি হতে পারত। যাঁরা দীর্ঘক্ষন লাইনে দাঁড়াচ্ছেন, তাঁদের ভ্যাকসিন পেতে দেরি হচ্ছে। যার ফলে অসন্তোষ সৃষ্টি হতে পারে। আর অশান্তি সামলাতে পর্যাপ্ত পুলিশও থাকছে না রাজ্যের বিভিন্ন ভ্যাকসিন সেন্টারে। সেটাও তো চিন্তার। আরও পড়ুন: সরকারি হাসপাতালে মেয়াদ উত্তীর্ণ স্যালাইন দেওয়া হল রোগীকে, হেসেই উড়িয়ে দিলেন চিকিত্সক!

Latest News Updates

Related Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla