Jalpaiguri College: পাম্প সারানোর টাকাও নেই কলেজের হাতে, পড়ুয়াদের হস্টেল ছাড়তে বলল কর্তৃপক্ষ

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: tannistha bhandari

Updated on: Nov 29, 2022 | 1:07 AM

Jalpaiguri College: মাস খানেক ধরে হস্টেলের পাম্প খারাপ। বাইরে থেকে জল এনে খতে হয়। পাশাপাশি সেই কেনা জল দিয়েই কোনও রকমে শৌচকর্ম সারতে হচ্ছে।

Jalpaiguri College: পাম্প সারানোর টাকাও নেই কলেজের হাতে, পড়ুয়াদের হস্টেল ছাড়তে বলল কর্তৃপক্ষ
কলেজ হস্টেল

জলপাইগুড়ি: হস্টেলের পাম্প খারাপ। মেরামতি করার টাকা নেই কলেজ কর্তৃপক্ষের হাতে। এই পরস্থিতিতে হস্টেল খালি করার নির্দেশ দেওয়া হল জলপাইগুড়ি গভর্নমেন্ট পলিটেকনিক কলেজের আবাসিক পড়ুয়াদের। আচমকা এমন নির্দেশিকা জারি করায় ক্ষুব্ধ আবাসিক ছাত্ররা। কার্যত সমস্যায় পড়েছেন তাঁরা।

জলপাইগুড়ি পলিটেকনিক কলেজের হোস্টেলে থাকা ছাত্রদের আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে হস্টেল খালি করে দিতে বলা হয়েছে নয়া নির্দেশিকায়। কলেজে মোট তিনটি হস্টেল রয়েছে। তিনটি হস্টেল মিলিয়ে ৩০০-র বেশি ছাত্র থাকতে পারেন। বর্তমানে ২৫ জন আবাসিক রয়েছেন সেখানে।

আবাসিক ছাত্রদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন সমস্যা চলছে। প্রায় মাস খানেক ধরে হস্টেলের পাম্প খারাপ। বাইরে থেকে জল এনে খতে হয়। পাশাপাশি সেই কেনা জল দিয়েই কোনও রকমে শৌচকর্ম করতে হচ্ছে। তাই তাঁরা পরিশ্রুত পানীয় জল পাচ্ছেন না। হস্টেলের চারদিকে আগাছা আর জঙ্গলে ভরে গিয়েছে। আগাছা পরিষ্কার না হওয়ায় বাড়ছে পতঙ্গ বাহিত রোগের আশঙ্কা। বারবার কর্তৃপক্ষকে জানানো হলেও কোনও কাজ হচ্ছে না বলে অভিযোগ।

ছাত্রদের আরও অভিযোগ, কলেজের ফান্ড না থাকায় তাঁদের পাম্প মেরামত হচ্ছেনা। তাঁদের বাড়ি ভাড়া করে থাকার মতো আর্থিক সঙ্গতি নেই। তাই এই মুহূর্তে যদি তাঁদের হস্টেল ছেড়ে চলে যেতে হয় তবে তারা খুব সমস্যায় পড়বেন। তাই অবিলম্বে এই বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় হস্তক্ষেপের দাবি তুলেছেন ছাত্ররা।

যেই কারণে সমস্যার সূত্রপাত বলে কলেজ কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে-

১) পাম্প মেরামত করতে লক্ষাধিক টাকার প্রয়োজন। কিন্তু কলেজের ফান্ড নেই।

২) কলেজের তিনটি হস্টেল পরিচালনার জন্য তিন শিফটে একজন করে হলেও অন্তত ৯ জন কেয়ারটেকারের প্রয়োজন। সেই ক্ষেত্রে কলেজে বর্তমানে মাত্র ২ জন কেয়ারটেকার রয়েছেন। যাঁদের মধ্যে ১ জন ডিসেম্বরে এবং ১ জন আগামী মার্চে অবসর নেবেন।

৩) হোস্টেল দেখভালের পর্যাপ্ত লোক না থাকায় সারাক্ষণ পাম্প চলে। আর এতেই পাম্প খারাপ হয়ে যেতে পারে বলে অনুমান।

হস্টেলের আবাসিক সুমিত কুমার মাল,সর্বজিত সাহা জানিয়েছেন দীর্ঘদিন ধরে হোস্টেলের পাম্প খারাপ। পানীয় জল এবং বাথরুমে জল না থাকায় তাঁরা খুব সমস্যায় পড়েছেন। তাঁরা বিষয়টি কলেজ কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার জানিয়েছেন। কিন্তু কলেজ কর্তৃপক্ষ তাঁদের জানিয়েছে কলেজের ফান্ড না থাকায় সেই কাজ হচ্ছেনা। তার ওপর আগামী ১ ডিসেম্বরের মধ্যে হোস্টেল খালি করার নির্দেশ দেওয়ার ফলে তারা আরও সমস্যায় পড়েছে। তারা চাইছেন অবিলম্বে সমস্যা মিটুক।

কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অর্চিষ্মান শিকদারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি। ঘটনা নিয়ে জলপাইগুড়ির জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বসু হোয়াটসঅ্যাপ বার্তায় জানিয়েছেন বিষয়টি তাঁর জানা নেই। খোঁজ নেবেন।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla