Patient Died: প্রাইভেট চেম্বারে ব্যস্ত ডাক্তার, সরকারি হাসপাতালে অপেক্ষা করতে করতে মৃত্যু রোগীর!

Maldah Doctor Negligence: রোগী মৃত্যুর ঘটনায় আগেও ক্ষোভ ছড়িয়েছে মালদহের কালিয়াচকে  ফের কালিয়াচকের ৩ নমম্বর ব্লকের বেদরাবাদ স্বাস্থ্যকেন্দ্র একইরকম ঘটনার সাক্ষী থাকল এদিন। সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকের গাফিলতিতে মৃত্যুর অভিযোগে ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিককে ঘেরাও করে বিক্ষোভ শুরু করলেন স্থানীয়রা।

Patient Died: প্রাইভেট চেম্বারে ব্যস্ত ডাক্তার, সরকারি হাসপাতালে অপেক্ষা করতে করতে মৃত্যু রোগীর!
চিকিৎসককে ঘিরে বিক্ষোভ মৃতের পরিজনদের। নিজস্ব চিত্র
TV9 Bangla Digital

| Edited By: সৈকত দাস

Sep 21, 2021 | 4:54 PM

মালদহ: হাসপাতালের (Hospital) ডিউটি (Duty) ছেড়ে প্রাইভেট চেম্বার (Privete Chamber) করছেন  চিকিৎসক (Doctor)। এদিকে সরকারি হাসাপাতালে চিকিৎসার অভাবে মৃত্যু হল রোগীর (Patient Died)। মঙ্গলবার এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে উত্তাল পরিস্থিতি মালদহের (Maldah) কালিয়াচকে। মৃত রোগী পরিজনদের হাতে ঘেরাও হলেন ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক।

রোগী মৃত্যুর ঘটনায় আগেও ক্ষোভ ছড়িয়েছে মালদহের কালিয়াচকে  ফের কালিয়াচকের ৩ নমম্বর ব্লকের বেদরাবাদ স্বাস্থ্যকেন্দ্র একইরকম ঘটনার সাক্ষী থাকল এদিন। সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকের গাফিলতিতে মৃত্যুর অভিযোগে ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিককে ঘেরাও করে বিক্ষোভ শুরু করলেন স্থানীয়রা। ঠিক কী ঘটেছে?

মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বেদরাবাদ স্বাস্থ্যকেন্দ্র সংলগ্ন এলাকা দরিয়াপুরের বাসিন্দা শ্রীদাম ঘোষ (৪৮) পেশায় বাসচালককে ভর্তি করা হয়েছিল হাসপাতালে। সোমবার মালদহের ফরাক্কাগামী বাস চালানোর সময় হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। বাসের খালাসি বাড়িতে খবর দিলে তাঁকে পরিবারের লোকজন বেদরাবাদ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। কিন্তু সেই সময় স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এমারজেন্সি বিভাগে ছিলেন না কোনও অন ডিউটি ডাক্তার। এমনকি বারবার ছোটাছুটি, হাঁক-ডাক করে পাওয়া যায়নি কোনও নার্সকেও।

মৃতের ভাইয়ের অভিযোগ, এমারজেন্সি বিভাগে শুধুমাত্র গ্রুপ ডি-এর কর্মীরাই ছিলেন। বারবার ডাক্তারকে ডাকতে যাওয়া হলেও তিনি আসেননি। অগ্যতায় গ্রুপ ডি-র কর্মী একটি স্লিপ লিখে দেন। এবং রোগীকে নিয়ে চিকিৎসক বিকাশ ঘোষের প্রাইভেট চেম্বারে যেতে বলা হয়। কোনও উপায়ন্তর না দেখে তাই করেন রোগীর পরিজনরা। কিন্তু সেখানে সেখানে গেলেও অপেক্ষা করতে হয় রোগীকে। প্রায় আধঘণ্টা রোগীকে দেখেন ওই চিকিৎসক। কোনওরকম প্রাথমিক চিকিৎসা না করেই রোগীকে তারপর মালদহ রেফার করে দেন  তিনি। এদিকে মালদহ নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় শ্রীদাম ঘোষ নামে ওই রোগীর। আর এতেই ক্ষোভ ছড়ায় রোগী পরিজনদের মধ্যে।

এর পর একরকম বাধ্য হয়েই স্থানীয়রা বিএমওএইচকে ঘেরাও করেন এদিন। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এই হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরিষেবা বেহাল। দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ জানিয়ে আসছেন সবাই। কিন্তু তাতে কোনও কাজ হয়নি। বরং সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকের প্রাইভেট চেম্বারে গেলে তবেই মিলছে চিকিৎসা। কারণ হাসপাতালে তো আসেনই না ডাক্তারবাবুরা! ডিউটি ছেড়ে তাঁরা প্রাইভেট চেম্বারেই বসেন। ওখানে গিয়ে মোটা টাকা খরচ করে রোগী দেখাতে হয়। তার পরেও তাঁদের উদাসীনতায় রোগী মৃত্যুর ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়।

এদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফে প্রতিক্রিয়া, অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা। অভিযোগ উঠেছে হাসপাতালে না দেখিয়ে প্রাইভেট চেম্বারে রোগীকে নিয়ে যেতে বাধ্য হন তাঁরা। এখন অনডিউটি অফিসার নাকি চিকিৎসক কার গাফিলতিতে এই ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান বিএমওএইচ। এদিকে সংশ্লিষ্ট সরকারি হাসপাতালে টাকা নিয়ে ডাক্তাররা চিকিৎসা করেেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনারও লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত হবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন: Unknown Fever: পিছু ছাড়ছে না জ্বরাতঙ্ক, হাসপাতালের একই বেডে গাদাগাদি করে শুয়ে আক্রান্ত শিশুরা!

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla