Lottery : ‘ধুমধাম করে ছেলের অন্নপ্রাশন করব’, লটারিতে কোটি টাকা জিতে আত্মহারা পিংলার সিভিক ভলান্টিয়ার

Lottery : ভাগ্য ফেরার আশায় মাঝেমধ্যেই লটারির টিকিট কাটেন সুরজিৎ মান্না। কিন্তু, তিনি যে এক কোটি টাকা জিতবেন, তা ভাবতেও পারছেন না।

Lottery : 'ধুমধাম করে ছেলের অন্নপ্রাশন করব', লটারিতে কোটি টাকা জিতে আত্মহারা পিংলার সিভিক ভলান্টিয়ার
লটারিতে এক কোটি টাকা জিতেছেন পিংলার সুরজিৎ মান্না
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sanjoy Paikar

Jul 11, 2022 | 11:01 PM

পশ্চিম মেদিনীপুর : ভাগ্য ফেরার আশায় প্রায় লটারির (Lottery) টিকিট কাটেন। উল্টোরথের দিন তেমনই টিকিট কেটেছিলেন। সেই টিকিটই যে তাঁর ভাগ্য ফিরিয়ে দেবে, তা এখনও বিশ্বাস হচ্ছে না পিংলার সিভিক ভলান্টিয়ার সুরজিৎ মান্নার। আনন্দে আত্মহারা তিনি। মাস পাঁচেক আগে তাঁর ছেলে হয়েছে। সুরজিতের ইচ্ছে, ছেলের অন্নপ্রাশন ধুমধাম করে পালন করবেন।

পিংলার গোবর্ধনপুর এলাকায় বাড়ি বছর বত্রিশের সুরজিতের। তাঁরা তিন ভাই। ২০১৩ সালে পিংলা থানায় সিভিক ভলান্টিয়ারের চাকরি পান সুরজিৎ। তাঁর মেজ ভাইয়ের ছোটখাটো ব্যবসা রয়েছে। ছোট ভাই পড়াশোনা করেন। সুরজিতের বাবা একজন প্রান্তিক কৃষক। চাষবাস এবং সুরজিতের মাইনেতে সংসার চলে। ২০১৯ সালে বিয়ে করেন সুরজিৎ। মাস পাঁচেক আগে তাঁদের ছেলে হয়েছে।

জানা গিয়েছে ,গত শনিবার উল্টো রথের দিন খড়গপুর টাউন এলাকায় ডিউটিতে ছিলেন সুরজিৎ। ওইদিন তিনি লটারির টিকিট কাটেন। ওই দিন রাতে সুরজিৎ জানতে পারেন, তাঁর লটারিতেই এক কোটি টাকা লেগেছে।

আজ তাঁর লটারি জেতার খবর গ্রামে ছড়িয়ে পড়ে। তাঁর বাড়িতে ভিড় করেন অনেকে। লটারির টিকিট জিতে আনন্দে আত্মহারা সুরজিৎও। তিনি বলেন, ভাগ্য ফেরার আশায় মাঝেমধ্যেই টিকিট কাটেন তিনি। গত শনিবারও তেমনই টিকিট কেটেছিলেন। কিন্তু, তিনি যে এক কোটি জিতেছেন, যেন বিশ্বাস হচ্ছে না।

এই খবরটিও পড়ুন

এই টাকা নিয়ে কী করবেন? সুরজিৎ বলেন, “ছেলের পাঁচ মাস বয়স। এরপর অন্নপ্রাশন হবে। ছেলের অন্নপ্রাশন ভাল করে করব।” এখন মাটির বাড়িতে থাকেন সুরজিৎরা। কিছুদিন আগেই পাকা বাড়ি নির্মাণ শুরু করেছেন। এই টাকায় পাকা বাড়িটি আরও ভাল করে করতে চান। গ্রামের উন্নয়নেও কিছু টাকা দেওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করলেন পিংলা থানার এই সিভিক ভলান্টিয়ার।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla