শিশির-শুভেন্দু-রাজীব প্রকাশ্যে ক্ষমা চান: কুণাল

কুণাল ঘোষের (Kunal Ghosh) কটাক্ষ, "আর্থিক দুর্নীতিতে মানিকতলা থানার পুলিশ যে রাখাল বেরা গ্রেফতার হয়েছে, তার প্রভু কে? কার জন্য সেই রাখাল গরু চরাত, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।"

শিশির-শুভেন্দু-রাজীব প্রকাশ্যে ক্ষমা চান: কুণাল
নিজস্ব চিত্র
সৈকত দাস

|

Jun 07, 2021 | 5:17 PM

পূর্ব মেদিনীপুর: ঘূর্ণিঝড় ইয়াস (Yaas)-এর দাপটে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সমগ্র পূর্ব মেদিনীপুরের উপকূল অঞ্চল। নদী ও সমুদ্র বাঁধ ভেঙে ভেসে গিয়েছে বহু বাড়ি-ঘর ও খেতজমি। সোমবার সেই ক্ষতিগ্রস্থ ও আর্ত মানুষদের ত্রাণ পৌঁছে দিলেন তৃণমূলের নব মনোনীত রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh)। তাঁর সঙ্গে ছিল কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। আর সেখান থেকেই শিশির ও শুভেন্দু অধিকারীকে ফের চাঁচাছোলা আক্রমণ করলেন কুণাল। রামনগর বিধানসভার তাজপুর, জলদা ও চাঁদপুর এলাকার সমুদ্রে বাঁধ পরিদর্শন করে তাঁর মন্তব্য, “গ্রামবাসীদের মর্মান্তিক পরিস্থিতি জন্য প্রাক্তন দুই সেচ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এবং দিঘা শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের সভাপতি শিশির অধিকারী কে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে।”

এদিন সমুদ্র বাঁধ দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করে কুণালবাবু বলেন, এই গ্রামবাসীদের মর্মান্তিক পরিস্থিতি জন্য প্রাক্তন দুই সেচ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এবং দিঘা শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি শিশির অধিকারীকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। তিনি যোগ করেন, “মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, দেখেও গেছেন এবং অভিষেক বন্দোপাধ্যায় এসেছেন, দেখেছেন, উষ্মা প্রকাশ করেছেন। এই বিষয়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে। রিপোর্ট আসছে।”

প্রসঙ্গত, বাঁধ ভাঙা নিয়ে সেচ দফতরের বিরুদ্ধে আগেই ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে সেচ দফতরের সচিবকেও ভর্ৎসনা করেছেন। পাশাপাশি দিঘা নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। যদিও শুভেন্দুবাবু বলেছেন, ২০১৯ সালে সেচ দফতরের মন্ত্রী থাকাকালীন কাজের ফাইলে তাঁর সই নেই। তিনি জানতেন না যে এই ভাবে কাজ হচ্ছে। শুভেন্দুর সেই কথা তুলে ধরে কুণালের কটাক্ষ, ‘এখন দেখছি প্রাক্তন মন্ত্রীকে বাঁচাতে তাঁর বাবা নেমেছেন ডিফেন্ড করতে।”

পাশাপাশি কাঁথি পুরসভার গোডাউন থেকে ত্রিপল চুরি এবং শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ রাখাল বেরাকে দুর্নীতি কাজে অভিযুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতারি নিয়েও খোঁচা দেন তিনি। বলেন, “আর্থিক দুর্নীতিতে মানিকতলা থানার পুলিশ যে রাখাল বেরা গ্রেফতার হয়েছে, তার প্রভু কে? কার জন্য সেই রাখাল গরু চরাত, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।” ত্রিপল চুরির অভিযোগ নিয়ে কুণালের মন্তব্য, “ত্রিপলের বিষয় যদিও আমি সবটা জানি না। কিন্তু আওয়াজ উঠেছে, চোর-চোর, চোরটা ওই শিশিরবাবুর ছেলেটা।”

উল্লেখ্য, রবিবার রাতে কলকাতায় এসে পৌঁছেছে ৭ সদস্যের কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। সোমবার থেকে সাইক্লোন ইয়াস ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করছে এই প্রতিনিধি দল। মূলত দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরের ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা ঘুরে দেখবেন সদস্যরা। সেখান থেকে রিপোর্ট সংগ্রহ করবেন তাঁরা। সেই রিপোর্ট তুলে দেওয়া হবে কেন্দ্রের হাতে। এ নিয়ে তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদকের মন্তব্য, রাজ্য সরকার মানুষের খাদ্য সামগ্রী, বাসস্থান আগে ঠিক করার লক্ষ্যে নিয়েই হাঁটছে। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার বৈষম্যমূলক আচরণ করছে। আর এখন এখানকার ভূমিপুত্ররা কেন্দ্রের দালালি করতে ব্যস্ত বলে ফের শুভেন্দু অধিকারীকে নিশানা করেন তিনি।

আরও পড়ুন: তৃণমূলে এত ভিড় যে জায়গাই পাওয়া যাচ্ছে না: মদন 

কুণালের দাবি, কেন্দ্রীয় সরকার যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো ভেঙে ‘রাজনৈতিক পর্যটক টিম’ পাঠিয়েছে বাংলায়। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে প্রণোদিত ভাবেই তৈরি হয়েছে এই কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। রাজ্য সরকার ও তৃণমূল মানুষের দুর্দিনে পাশে ছিল ও আগামীদিনেও থাকবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। এখন দেখার এ নিয়ে অধিকারীরা কুণালের কটাক্ষের জবাব দেন কিনা।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla