ইয়াস বিধ্বস্ত সুন্দরবনে শুরু ‘ভ্যাকসিনেশন অন বোট’, নৌকায় টিকা পেলেন কুমিরমারির মানুষ

Vaccine On Boat: ইয়াস (Yaas) বিধ্বস্ত সুন্দরবনবাসীর কাছে করোনার ভ্যাকসিন পৌঁছে দিতে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করল দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসন। এখন থেকে ভ্যাকসিন নিয়ে বিশেষ বোট পৌঁছে যাবে দ্বীপের ঘাটেঘাটে। সেই বোট থেকেই করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হবে সুন্দরবনবাসীকে।

ইয়াস বিধ্বস্ত সুন্দরবনে শুরু 'ভ্যাকসিনেশন অন বোট', নৌকায় টিকা পেলেন কুমিরমারির মানুষ
নিজস্ব চিত্র

দক্ষিণ ২৪ পরগনা: স্থলভাগে টিকাদান কর্মসূচি চলছে, সে তো সবাই জানে। এবার ভাসমান নৌকায় টিকাকরণের কর্মসূচি নিল দক্ষিণ ২৪ পরগনা (South 24 Pargana) জেলা প্রশাসন। সুন্দরবনের (Sundarban) প্রত্যন্ত দ্বীপের মানুষকে প্রতিষেধক দিতে ‘ভ্যাকসিনেশন অন হুইল’-এর পর চালু হল ‘ভ্যাকসিনেশন অন বোট’ (Vaccine On Boat)।

ইয়াস (Yaas) বিধ্বস্ত সুন্দরবনবাসীর কাছে করোনার ভ্যাকসিন পৌঁছে দিতে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করল দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসন। এখন থেকে ভ্যাকসিন নিয়ে বিশেষ বোট পৌঁছে যাবে দ্বীপের ঘাটেঘাটে। সেই বোট থেকেই করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হবে সুন্দরবনবাসীকে। সোমবার গোসাবা ব্লকের প্রত্যন্ত কুমিরমারি দ্বীপে নৌকায় ভ্যাকসিন দেওয়ার সূচনা করলেন জেলা শাসক পি উলগানাথন। উপস্থিত ছিলেন ক্যানিং মহকুমার এসিওএইচ পরিমল ডাকুয়া, গোসাবার বিডিও সৌরভ মিত্র সহ প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা।

In Sundarban District Administration Started Vaccine On Boat Initiative

নৌকায় টিকি নিচ্ছেন কুমিরমারির বাসিন্দারা

নদী-নালায় ভরা সুন্দরবনের প্রত্যন্ত অঞ্চলে যেখানে সড়কপথের দেখা মেলে না, সেখানে নৌকায় চড়ে ভ্যাকসিন নিয়ে হাজির হচ্ছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। ক্যাম্প হবে জলের উপরেই। গ্রামবাসীরা একে একে এসে উঠবেন নৌকায়। ইঞ্জেকশন নিয়ে কিছুক্ষণ বিশ্রাম। তারপর ফিরে যাবেন যে যার ঘরে। কেউ যাতে টিকাকরণ কর্মসূচি থেকে বঞ্চিত না হন, সেই লক্ষ্যেই এই পরিকল্পনা করেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসন।

জেলাস্তরে ভ্যাকসিন নেওয়ার প্রক্রিয়াকে সরলীকরণ করা হয়েছে। এদিকে ইয়াস ও ভরা কোটালের দাপটে সুন্দরবনের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ এখনও স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারেনি। ভাঙা বাড়ি মেরামত, নোনা জল ঢুকে পড়া জমিকে আবার চাষযোগ্য করে তোলা, রুজি-রুটির সংস্থান— এটাই এখন অগ্রাধিকার সুন্দরবনবাসীর কাছে। তাই প্রশাসন নিজের উদ্যোগেই টিকা নিয়ে হাজির হচ্ছে দুর্গত এলাকায়। চালু হল ভ্যাকসিন অন বোট পরিষেবা। ঠিক হয়েছে, নৌকায় করে গিয়েই সেখানকার বাসিন্দাদের টিকা দেওয়া হবে। জেলাশাসক পি উলগানাথন বলেন, “কোনও মানুষই যাতে ভ্যাকসিন পাওয়া থেকে বঞ্চিত না হন, তাই যতটা সম্ভব তাঁদের কাছে পৌঁছনোই আমাদের লক্ষ্য।”

জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে প্রান্তিক এলাকার ৪৫ ঊর্ধ্ব বাসিন্দাদের টিকা দেওয়া হয় এদিন। গোসাবা, পাথরপ্রতিমা, সাগর সহ বেশ কিছু ব্লকে এই কর্মসূচি পালিত হবে বলে জানা গিয়েছে। ঠিক হয়েছে, ভ্যাকসিন নিয়ে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা নৌকায় করে বিভিন্ন দ্বীপে যাবেন। নৌকাতেই থাকবে যাবতীয় ব্যবস্থা।

আরও পড়ুন: অ্যাম্বুল্যান্স তুমি কার? কাঁথি পুরসভা বনাম অধিকারীদের দড়ি টানাটানি 

ব্লকের স্বাস্থ্য আধিকারিক গ্রামবাসীদের নদীর পাড়ে কোনও জায়গায় জড়ো করবেন। সেখানেই ভিড়বে বিশেষ নৌকা। তারপর গ্রামবাসীরা একে একে নৌকায় উঠে টিকা নেবেন। কেউ অসুস্থ বোধ করেন, তার জন্য তৈরি রাখা হবে ওয়াটার অ্যাম্বুল্যান্স। ভ্যাকসিন বোটের সঙ্গেই সেটি ঘুরবে।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla