‘ঘনিষ্ঠতা থাকবে, ফারাক মতাদর্শে’, ঘরওয়াপসি ‘চাণক্যের’, অভিমানী ‘মুকুল ঘনিষ্ঠ’ খগেন

ভবিষ্যতে, 'মুকুল ঘনিষ্ঠ' খগেনও কি সেই রকমই পদক্ষেপ করবেন? এ প্রসঙ্গে, বিজেপি সাংসদ বলেন, "আমি এই দলে থেকে সাংসদ হয়েছি। বিজেপি আমায় যোগ্য় সম্মান দিয়েছে।"

‘ঘনিষ্ঠতা থাকবে, ফারাক মতাদর্শে’, ঘরওয়াপসি ‘চাণক্যের’, অভিমানী ‘মুকুল ঘনিষ্ঠ’ খগেন
বুক জুড়ে শুধুই অভিমান, বাঁদিকে খগেন মূর্মূ, ডানদিক মুকুল রায়, নিজস্ব চিত্র

মালদা: ২০১৭ থেকে ২০২১। মাঝের সময়তে একটি পঞ্চায়েত নির্বাচন, একটি লোকসভা নির্বাচন এবং সদ্যই একটি বিধানসভা নির্বাচনের মুখোমুখি হয়েছে বাংলা। ঠিক ২০১৭-তেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন মুকুল রায়। ২০২১ বঙ্গবিধানসভা নির্বাচনের পর ফের পুরনো দলেই ফিরলেন প্রাক্তন বিজেপি (BJP) নেতা। পদ্ম শিবিরের ‘চাণক্য়’-এর এই দলত্যাগ ভালভাবে নেয়নি বঙ্গ বিজেপি। মুখ খুলেছেন অনেকেই। সেই তালিকায় আছেন অর্জুন সিং, অনুপম হাজরা, বৈশালী ডালমিয়া প্রমুখ। এ বার মুকুলের ‘ঘরে ফেরা’ নিয়ে মুখ খুললেন উত্তর মালদার বিজেপি সাংসদ খগেন মূর্মূ।

এদিন, বিজেপি (BJP) সাংসদ বলেন, “আমাদের দল, সর্বভারতীয় দল। আমাদের দলে অনেকে যোগ দিচ্ছেন অনেকে। এই যোগদান পর্ব সারাবছর চলে। মুকুলদা’ আমার আগে থেকে বিজেপিতে ছিলেন। অনেক সম্মান পেয়েছেন। দলের এত বড় পদ পেয়েছিলেন। কেন চলে গেলেন জানি না। বিজেপি ওঁকে যোগ্য় সম্মান দিয়েছে। কেউ দল বদলালে তা তাঁর ব্যক্তিগত অভিরুচি। তা নিয়ে বিশেষ কিছু বলার থাকে না। এ বারেও কিছু বলার নেই। গিয়েছেন, ওঁর ভাল মনে হয়েছেন তাই। পার্টি পার্টির মতোই চলবে।”

মুকুল রায়ের (Mukul Roy) সঙ্গে বিজেপি সাংসদের ‘ঘনিষ্ঠতা’ বরাবরই নজর কেড়েছে। খগেনের সিপিএম ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানেরে নেপথ্যেও ছিল মুকুলের অবদান এমনটাই মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। শুক্রবারের বারবেলায় যখন অগ্রজপ্রতিম ‘দাদা’ তৃণমূলে ফিরছেন, তখন খানিকটা অভিমানী সুরেই খগেন বলেন, “মুকুলদার সঙ্গে সম্পর্ক আগে থেকেই ছিল। পার্টি আর মানুষের মধ্যে সম্পর্ক এক নয়। ব্য়ক্তিগত সম্পর্ক আর রাজনীতি এক নয়। মুকুলদার সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা থাকবে। মতাদর্শের ফারাক থাকতেই পারে। কিন্তু, তা সম্পর্কে প্রভাব ফেলবে না।”

নির্বাচনের মুখে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তাঁকে অনুসরণ করেই গেরুয়া পথে পা বাড়িয়েছিলেন অনেকে। সকলেই ছিলেন শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ। ভবিষ্যতে, ‘মুকুল ঘনিষ্ঠ’ খগেনও কি সেই রকমই পদক্ষেপ করবেন? এ প্রসঙ্গে, বিজেপি সাংসদ বলেন, “আমি এই দলে থেকে সাংসদ হয়েছি। বিজেপি আমায় যোগ্য় সম্মান দিয়েছে। পদ দিয়েছি। মুকুলদার সঙ্গে কেবল রাজনৈতিক মতাদর্শেই ফারাক থাকবে।”

উল্লেখ্য, শুক্রবার, তৃণমূল ভবনে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্যায়ের সঙ্গে সপুত্র টানা আড়াই ঘণ্টার রুদ্ধদ্বার বৈঠকের পর বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন মুকুল রায়।

আরও পড়ুন: ‘জল্পনা কল্পনায় কান দেওয়ার সময় নেই, কর্মীদের সুরক্ষা নিয়ে চিন্তিত’, ‘ফুলবদল’ মুকুলের, মন্তব্য দিলীপের