চলতি মাসেও খুলছে না ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে

সীমান্তবর্তী গ্রামগুলিতে বেড়েছে করোনার প্রকোপ। সেই আতঙ্কেই বন্ধ বর্ডার।

চলতি মাসেও খুলছে না ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে
বাংলাদেশ সীমান্ত (ফাইল ছবি)

ঢাকা: ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত বন্ধ রাখার মেয়াদ ফের বাড়াল ঢাকা। আগামী ৩০ জন পর্যন্ত বন্ধ থাকবে সীমান্ত। সীমান্তবর্তী এলাকায় করোনার সংক্রমণ কমাতেই মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশের হাসিনা সরকার। সোমবার বাংলাদেশের বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে এক আধিকারিক এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

১৪ জুন পর্যন্ত বন্ধ ছিল সীমান্ত। সেই মেয়াদ বাড়িয়ে ৩০ জুন পর্যন্ত করা হয়েছে। বাংলাদেশের যুক্তি, ভারতের সীমান্তবর্তী গ্রামগুলিতে করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পেতেই এই মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ২৬ এপ্রিল বর্ডার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বাংলাদেশ সরকার। প্রথমে ১৪ দিনের জন্য সীমান্ত বন্ধ করা হয়েছিল। তবে এরপর দু’বার ধাপে ধাপে বাড়ানো হয় সেই বর্ডার বন্ধ রাখার মেয়াদ। সীমান্ত বন্ধ থাকলেও ১৫ দিন বা তার কম সময়সীমার কোনও বৈধ ভিসার ক্ষেত্রে বাংলাদেশিরা অবশ্য দেশে ফিরতে পারেন। সেক্ষেত্রে ১৪ দিন বাধ্যতামূলকভাবে আইসোলেশনে থাকতে হবে।

আরও পড়ুন: বাংলাদেশের নাগরিকদের জন্য এ বারও সৌদিতে হজের দরজা বন্ধ

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের স্থলসীমান্ত বন্ধ হয়ে যাওয়ার বেনাপোল, আখাউড়া ও বুড়িমারী স্থলবন্দর দিয়ে দেশে প্রবেশের সুযোগ দেওয়া হয় বাংলাদেশিদের। পরে দর্শনা, হিলি ও সোনামুখী বন্দর তিনটি দিয়ে ভারত থেকে বাংলাদেশি নাগরিকদের ফেরার সুযোগ দেয় সরকার। সীমান্তবর্তী জেলা চাঁপাইনবাবগঞ্জের করোনার প্রকোপ বাড়ায় সোনামুখী বন্দর নিয়ে বাংলাদেশিদের দেশে ফেরা বন্ধ করে বাংলাদেশে সরকার।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla