Biden meets Jinping: বালিতে ৩ ঘণ্টার বৈঠক, বাইডেনকে ‘লালরেখা’ নিয়ে সতর্ক করলেন জিনপিং

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: Amartya Lahiri

Updated on: Nov 14, 2022 | 8:46 PM

Joe Biden meets Xi Jinping: সোমবার (১৪ নভেম্বর), জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনের যোগ দিতে এসে, এক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

Biden meets Jinping: বালিতে ৩ ঘণ্টার বৈঠক, বাইডেনকে 'লালরেখা' নিয়ে সতর্ক করলেন জিনপিং
মার্কিন প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর, জিনপিং-এর সঙ্গে প্রথমবার মিলিত হলেন বাইডেন

বালি: সোমবার (১৪ নভেম্বর), জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনের যোগ দিতে এসে, এক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। বহু প্রতিক্ষীত এই বৈঠকে দুই রাষ্ট্রনেতা পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার না করার বিষয়ে একমত হয়েছেন বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। অন্যদিকে, চিনা প্রেসিডেন্ট বলেছেন, পৃথিবীটা অনেকটাই বড়। তাই, তাদের দুই দেশের উন্নতি ও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য যথেষ্ট জায়গা রয়েছে। তবে তাইওয়ান নিয়ে ‘লাল রেখা” না অতিক্রম করার বিষয়ে ওয়াশিংটনকে সতর্ক করেছে বেজিং।

হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে এক বিবৃতি প্রকাশ করে বলা হয়েছে, “প্রেসিডেন্ট বাইডেন এবং প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং পারমাণবিক যুদ্ধ না করার বিষয়ে তাদের চুক্তি পুনর্ব্যক্ত করেছেন। তারা সম্মত হয়েছেন, পারমাণবিক যুদ্ধে কখনই জয়ী হওয়া যায় না। ইউক্রেনে পারমাণবিক অস্ত্রের ব্যবহার বা ব্যবহারের হুমকির বিরোধিতার উপর জোর দিয়েছেন দুই রাষ্ট্রনেতা।”

বেজিংয়ের বিদেশ মন্ত্রক জানিয়েছে, বাইডেনকে চিনা প্রেসিডেন্ট বলেছেন বর্তমান পরিস্থিতিতে, চিন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অনেক সাধারণ স্বার্থ রয়েছে। তাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে চ্যালেঞ্জ করতে চায় না বা বেজিং। দুই পক্ষের একে অপরকে সম্মান করার আহ্বান জানিয়েছেন শি।

বৈঠকের শুরুতে দুই রাষ্ট্রনেতা করমর্দন করেন। প্রসঙ্গত, আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর এই প্রথম চিন ও আমেরিকার রাষ্ট্রপ্রধানের মুখোমুখি কথা হল। সব মিলিয়ে দুই জনের মধ্যে তিন ঘণ্টা আলোচনা হয়। শি-কে বাইডেন জানান, সুপারপাওয়ার হিসেবে তাদের দায়িত্ব, প্রতিযোগিতাকে সংঘর্ষে পরিণত হতে না দিয়ে বিশ্বের সামনে নজির সৃষ্টি করা। হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, চিনের সঙ্গে জোরালো প্রতিযোগিতা চালিয়ে যাবে ওয়াশিংটন। তবে, তাকে সংঘর্ষে পরিণত হতে দেবে না।

হোয়াইট হাউস আরও জানিয়েছে, তাইওয়ানের প্রতি চিনের জবরদস্তিমূলক এবং ক্রমবর্ধমান আক্রমনাত্মক পদক্ষেপ নিয়ে আপত্তি জানিয়েছেন বাইডেন। পাশাপাশি, তিনি উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক ধারাবাহিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার প্রসঙ্গও তুলেছেন। পিয়ংইয়ং সম্প্রতি একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র এবং নতুন পারমাণবিক অস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। এই প্রেক্ষিতে শি জিনপিং-কে বাইডেন বলেছেন, উত্তর কোরিয়াকে দায়িত্বপূর্ণ পদক্ষেপ করতে উত্সাহিত করতে হবে। অন্যদিকে, বেজিং সাফ জানিয়েছে, চিন-মার্কিন রাজনৈতিক সম্পর্কের ভিত্তি হল তাইওয়ান। তাই এই বিষয়ে ওয়াশিংটনের লাল রেখা অতিক্রম করা উচিত নয়।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla