বিজেপির ভাইরাল গানে ‘কালিয়াচক-ধূলাগড়’! উত্তেজনা তৈরির চেষ্টার অভিযোগ তুলে কমিশনে তৃণমূল

একাধিক রাজনাতিল দলই গান বানিয়েছে এবারের ভোট আবহে। আর এই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে গেরুয়া শিবিরের (BJP) দুই প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo) ও রুদ্রনীল ঘোষকে (Rudranil Ghosh)

  • TV9 Bangla
  • Published On - 13:34 PM, 8 Apr 2021
বিজেপির ভাইরাল গানে 'কালিয়াচক-ধূলাগড়'! উত্তেজনা তৈরির চেষ্টার অভিযোগ তুলে কমিশনে তৃণমূল
ভিডিয়োতে রুদ্রনীল

কলকাতা: শুধু স্লোগান আর পোস্টারেই সীমাবদ্ধ নয় এবারের ভোট প্রচার। একাধিক রাজনৈতিক দলের তরফে তৈরি গানও এবার নজর কাড়ছে। তিন দফা ভোটের পর এবার সামনে এসেছে গেরুয়া শিবিরের (BJP) একটি গানও। সোশ্য়াল মিডিয়া (Social Media) জুড়ে যা ভাইরাল (viral)। আর সেই গানে নাকি আসলে দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা হচ্ছে, এমনই অভিযোগ তুলে কমিশনের (Election Commission) দ্বারস্থ হতে চলেছে তৃণমূল (TMC)। বৃহস্পতিবার জোড়াফুল শিবিরের তরফে এমন দাবি করা হয়েছে।

এ দিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিজেপির ওই গানের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন তৃণমূল সাংসদ তথা জাতীয় মুখপাত্র সুখেন্দু শেখর রায়। এই গানের ভিডিয়োতে বিজেপির অন্যান্য নেতা-কর্মীদের সঙ্গে দেখা যাচ্ছে পদ্ম শিবিরের দুই প্রার্থীকেও। ভিডিয়োতে অংশ নিয়েছেন টালিগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয় ও ভবানীপুরের প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষকে। এই ভিডিয়োর মধ্যে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা তৈরি করাা হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। বৃহস্পতিবারই এই অভিযোগ নিয়ে কমিশনের দ্বারস্থ হতে চলেছে তৃণমূল। তাঁদের দাবি, নির্বাচনের মধ্যে এই ধরনের ভিডিয়ো তৈরি করা যায় না। অনুমতি না নিয়েই এমন ভিডিয়ো বানানো হয়েছে বলেই দাবি তৃণমূলের।

বাবুল সুপ্রিয় সহ অন্যান্য নেতা-কর্মীদের ফেসবুক পেজে দেখা যাচ্ছে সেই ভিডিও। সেখানে শুধু তৃণমূল নয়, বাম আমলের বেশ কিছু ঘটনারও উল্লেখ রয়েছে। এক দিকে রয়েছে মরিচঝাঁপি, সাইবাড়ি বা বিজন সেতুর উল্লেখ। বিজন সেতুতে সন্ন্যাসী মৃত্যুর ঘচনার উল্লেখ করে গেরুয়া আক্রান্ত হওয়ার কথাও উল্লেখ করা হয়েছে গানের লাইনে। অন্য দিকে বাদ যায়নি কালিয়াচক ও ধূলাগড়। খাগড়াগড় বিস্ফোরণের কথাও মনে করিয়ে দেওয়া হয়েছে ওই গানে। আর সেখানেই আপত্তি শাসক দলের। সুখেন্দু শেখর রায় বলেন, ‘৪৬-এর দাঙ্গা থেকে শুরু করে বাংলাদেশের পটভূমিতে তোলা বেশ কিছু ঘটনার ছবি ও পেপার কাটিং ব্যবহার করা হচ্ছে। আসলে এ ভাবে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা তৈরি করা হচ্ছে।’

আরও পড়ুন: অশোকের হাত ঘুরে কোটি কোটি টাকা জমা পড়ত অভিষেকের স্ত্রী-শ্যালিকার অ্যাকাউন্টে, চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট ইডির

গতকাল বুধবার সোশ্য়াল মিডিয়ায় প্রকাশ্যে আসে ওই গান। এরপর থেকে ভাইরাল সেটি। তবে যোগাযোগ করার চেষ্টা হলেও এখনই এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে নারাজ বঙ্গ বিজেপির নেতারা।

শুধু তাই নয়, অভিযোগ তোলা হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বিরুদ্ধেও। তৃণমূল সাংসদ দাবি করেন, মিডিয়ার একাংশকে কুক্ষিগত করেছেন শাহ। ভোটের পর যাতে সব সংবাদমাধ্যম বিজেপির পক্ষে কথা বলে, তার জন্য প্রচ্ছন্ন হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ জানান তিনি।