Weight Loss: ওজন কমাতে গিয়ে চুল পড়ার সমস্যা দেখা দিয়েছে? জানুন এর পিছনে কোন কারণগুলি দায়ী

ওজন কমানোর সঙ্গে চুল পড়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা দিতে পারে। এর কারণ হল দ্রুত ওজন কমানোর ফলে পুষ্টির ঘাটতি, স্ট্রেস এবং হরমোনের পরিবর্তন ঘটে, যার ফলে চুল পড়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা দেয়।

Weight Loss: ওজন কমাতে গিয়ে চুল পড়ার সমস্যা দেখা দিয়েছে? জানুন এর পিছনে কোন কারণগুলি দায়ী
ওজন কমাতে গিয়ে চুল পড়ার সমস্যা তৈরি হতে পারে

ওজন কমানো সহজ কাজ নয়। স্বাস্থ্যকর খাওয়া থেকে শুরু করে নিয়মিত ব্যায়াম করা পর্যন্ত, ওজন কমানোর জন্য কিছু রুটিন অবশ্যই মেনে চলতে হবে। আপনি যখন আপনার পছন্দসই ওজনে পৌঁছান, তখন এটি একটি জয় লাভের মতো মনে হতে পারে। তবে এই ওজন কমানোরও কিছু সাধারণ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে। তার মধ্যে একটি হল চুল পড়া।

কিছু ক্ষেত্রে, ওজন কমানোর সঙ্গে চুল পড়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা দিতে পারে। এর কারণ হল দ্রুত ওজন কমানোর ফলে পুষ্টির ঘাটতি, স্ট্রেস এবং হরমোনের পরিবর্তন ঘটে, যার ফলে চুল পড়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা দেয়। কিন্তু সবাই ওজন কমানোর পর চুল পড়ার সমস্যায় ভোগেন না, কেন তা জেনে নিন।

ওজন কমানোর পর চুল পড়ার কারণ কী?

ওজন কমানোর সময় চুল পড়া সাধারণত পুষ্টির অভাবের কারণে ঘটে। তাছাড়াও দ্রুত এবং আকস্মিক ওজন হ্রাসের কারণে ঘটে। ওজন কমানোর সময় যে ডায়েটগুলি মেনে চলেন, সেগুলিকে টেলোজেন এফ্লুভিয়াম (TE) এর সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে, যার কারণে চুল পড়ে। এই সমস্যা দ্রুত ওজন হ্রাসের তিন মাস পরে ঘটতে পারে এবং ৬ মাস পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।

ক্র্যাশ ডায়েট

বহু গবেষণায় ক্র্যাশ ডায়েটিং এবং চুল পড়ার মধ্যে একটি যোগসূত্র খুঁজে পাওয়া গেছে। ঠিক আপনার শরীরের মতোই, আপনার চুলের বৃদ্ধি ও সুস্থ থাকার জন্য পর্যাপ্ত ক্যালোরি এবং পুষ্টির প্রয়োজন। অতএব, যখন আপনার শরীর যা প্রয়োজন তখন যদি সেটা পায় না, তখন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হিসাবে চুল পড়তে থাকে। সীমিত ক্যালোরি, পুষ্টির ঘাটতি এবং মানসিক চাপ ইত্যাদি রয়েছে। তার সঙ্গে যারা ক্র্যাশ ডায়েট মেনে চলেন, তাঁদের মধ্যেও এই চুল পড়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা দেয়। ২০১৫ সালে, ১৮০ জন মহিলার উপর পরিচালিত একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে, আয়রনের ঘাটতি এবং মানসিক চাপ তাঁদের মধ্যে চুল পড়ার সবচেয়ে সাধারণ কারণ। আটটি ক্ষেত্রে ক্র্যাশ ডায়েটও ছিল।

কম প্রোটিন যুক্ত খাদ্য

অ্যামিনো অ্যাসিড প্রোটিনের বিল্ডিং ব্লক এবং চুলের বৃদ্ধির জন্য অপরিহার্য। চুলের প্রধান কাঠামোগত প্রোটিন কেরোটিন উৎপাদনের জন্য অ্যামিনো অ্যাসিড প্রয়োজন। যখন আপনার শরীর যথেষ্ট প্রোটিন পায় না, যা প্রোটিন অপুষ্টি নামেও পরিচিত, এটি চুলের ক্ষতি হতে পারে। এইভাবে, আপনার কম ক্যালোরি যুক্ত খাবারে পর্যাপ্ত প্রোটিন না থাকলে, আপনি চুল পড়ার সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন।

ওজন কমানোর সার্জারি

ওজন কমানোর সার্জারি মানে দ্রুত ওজন কমানো, যা ভিটামিন, প্রোটিন এবং মিনারেলের মতো সাধারণ ঘাটতি দেখা দিতে পারে, যা চুলের ক্ষতি হতে পারে। ২০১৮ সালের একটি গবেষণায় ৫০ জনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল, যাঁরা স্লিভ গ্যাস্ট্রেক্টমি করেছেন, একটি অস্ত্রোপচার পদ্ধতি যা পেটের একটি বড় অংশ অপসারণ করে। এই অস্ত্রোপচারের পর ৫৬ শতাংশ মানুষের মধ্যে এই চুল পড়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা দিয়েছে। অস্ত্রোপচারের আগে এবং পরে চুল পড়া বেশিরভাগ অংশগ্রহণকারীদের জিঙ্ক এবং ভিটামিন বি ১২ এর পরিমাণ কম ছিল।

ডায়েট

বিধি নিষেধমূলক ডায়েট পুরো খাদ্য গোষ্ঠীকে বাদ দেয় এবং পুষ্টির ঘাটতি এবং চাপের ফলে চুলের ক্ষতি হতে পারে। আয়রন, জিঙ্ক, প্রোটিন, সেলেনিয়াম এবং প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড সবই চুল পড়ার সঙ্গে যুক্ত।

ওজন কমানোর সময় চুল পড়া বন্ধ করবেন কীভাবে?

আগেই উল্লেখ করা হয়েছে, দ্রুত ওজন হ্রাসের ফলে গুরুতর পুষ্টির ঘাটতি চুল পড়ার কারণ হতে পারে। সুতরাং, ক্র্যাশিং ও সীমাবদ্ধ ডায়েটের পরিবর্তে, ওজন কমানোর জন্য একটি স্বাস্থ্যকর এবং স্থায়ী ডায়েট অনুসরণ করুন। শুধু তাই নয়, ক্র্যাশ ডায়েট মানসিক স্বাস্থ্যের জন্যও ক্ষতিকর এবং ওজন বৃদ্ধির সঙ্গে জড়িত।

কোনও পুষ্টির ঘাটতি এবং চুলের ক্ষতি এড়াতে ফ্যাড ডায়েটের পরিবর্তে একটি সুষম খাদ্যতালিকা বেছে নিন। আপনার যদি ওজন কমানোর সার্জারি করা হয়, তাহলে আপনার ডাক্তারের সুপারিশকৃত ভিটামিন বি ১২, আয়রন এবং জিঙ্কের মাত্রা বজায় রাখতে ভুলবেন না। এটি অস্ত্রোপচারের পরে চুল পড়া রোধ করতে সাহায্য করবে।

আরও পড়ুন: এই সিক্রেট ডায়েট মেনেই হুড়মুড়িয়ে ওজন কমালেন স্মৃতি ইরানি! টিপস রইল আপনার জন্যেও

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla