Diet Tips: এই তিন ডায়েট টিপস মেনে চলতে পারলেই শরীর থাকবে সুস্থ! নিদান বিশেষজ্ঞদের

Ayurvedic die plan: সুস্থ থাকতে সময়ে খাওয়া এবং পরিমাপ বুঝে খাওয়া ভীষণ জরুরি। সামান্য সমস্যাতেই ওষুধ খাওয়ার অভ্যাস এড়িয়ে চলতে পারলেই ভাল। বরং পরিবর্তন আনুন এই কয়েকটি অভ্যাসে

Diet Tips: এই তিন ডায়েট টিপস মেনে চলতে পারলেই শরীর থাকবে সুস্থ! নিদান বিশেষজ্ঞদের
প্রাচীন ভারতীয় মশলার প্রচুর গুণাগুন রয়েছে

আর্য়ুবেদ আদতে সংস্কৃত শব্দ। যার অর্থ হল প্রাকৃতির নিয়মে অধ্যয়ন। আর্য়ুবেদ এমন একটি মাধ্যম, যেখানে নিয়মিত ডায়েট, শরীরচর্চা এবং মৌলিক কিছু অভ্যাস গড়ে তুলতে পারলেই সুস্থ তাকা যায়। শরীরের আভ্যন্তরীন সুস্থতা বজায় রাখাই হল আর্য়ুবেদ শাস্ত্রের উদ্দেশ্য। আজকাল আমরা প্রায় প্রত্যেকেই নানা রকম সমস্যায় ভুগি। আর এই সমস্যার জন্য দায়ী আমাদের জীবনযাত্রা। নিয়মিত শরীরচর্চা না করা, ঠিক সময়ে না খাওয়া এবং ঘুম ঠিকমতো না হলেই দেখা দেয় নানারকম শারীরিক সমস্যা।

এছাড়াও বর্তমান জীবনে সকলেই মানসিক চাপে জর্জরিত। কর্মক্ষেত্র থেকে ব্যক্তিগত জীবন-সর্বদাই নানারকম সমস্যা চলতে থাকে। যা কিন্তু প্রভাব ফেলে আমাদের সামগ্রিক স্বাস্থ্যের উপরেই। দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক অসুস্থতা চলতে থাকাও কিন্তু খারাপ। এছাড়াও, বর্তমানে সকলেই বেশি ওষুধ নির্ভর। সামান্য কিছুতেই ওষুধ খাওয়া একরকম অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। যা কিন্তু স্বাস্থ্যের জন্য ভাল নয়।

অভ্যন্তরীন স্বাস্থ্য খারাপ হতে শুরু করে। কিন্তু অনেকেই তা বুঝতে পারেন না। আর তাই প্রথম থেকে কিছু নিয়ম সকলেরই মেনে চলা উচিত। চিকিৎসক এবং পুষ্টিবিদরা সুস্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে তিনটি সাধারণ নিয়ম মেনে চলার পরামর্শ দিচ্ছেন। এই নিয়ম মানতে পারলে শরীর থাকে সুস্থ। প্রাচীনকালে মুনি-ঋষিদের ভরসা ছিল এই আর্য়ুবেদ। সেই নিয়ম মেনেই তাঁরা সুস্থ থাকতেন, দীর্ঘজীবি হতেন। প্রয়োজনে অবশ্যই ওষুধ খাবেন, কিন্তু অহেতুক ওষুধ না খাওয়ার চেষ্টা করতে পারলেই ভাল।

ব্যালেন্স ডায়েট খুব জরুরি

আর্য়ুবেদ শাস্ত্র কিন্তু সব সময় পুষ্টিকর খাবারের নিদান দিয়ে এসেছে। শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় খনিজ, ভিটামিন, প্রোটিন যে সব খাবারে রয়েছে সেই সবই রাখতে চেষ্টা করুন খাদ্য তালিকায়। অযথা ডায়েট থেকে ফ্যাট, কার্বোহাইড্রেট ছেঁটে না ফেলাই ভাল। কারণ কিছু ফ্যাট শরীরের প্রয়োজনেও লাগে। সেই সঙ্গে ফল খান, ফলের রস নয়। গোটা ফল চিবিয়ে খাওয়ার মধ্যে অনেক উপকারিতা থাকে। কারণ ফলের মধ্যে থাকে প্রচুর পরিমআম ফাইবার। যা আমাদের হজমে সাহায্য করে। খাবার গরম খাওয়ার চেষ্টা করুন। এতে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। অতিরিক্ত মিষ্টি, রেড মিট এবং প্যাকেটজাত খাবার একেবারেই এড়িয়ে চলার কা বলা হয়েছে আর্য়ুবেদে।

ভারতীয় মশলার গুণ অতুলনীয়

আমাদের হেঁশেলে প্রচুর রকম মশলার ব্যবহার রয়েছে। আর এই সব মশলাই কিন্তু শরীরের জন্য খুব উপকারী। হলুদ, জাফরান, এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ- এসব মশলার ব্যবহার সেই আদিকাল থেকে। এমনকী এই সব মশলা থেকে বিভিন্ন ওষুধও তৈরি করা হয়। এছাড়াও এই প্রতিটি মশলার মধ্যে রোগ-প্রতিরোধম ক্ষমতা রয়েছে। জীবানু-ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে শরীরকে লড়াই করার জন্য প্রস্তুত করে। ক্যানসার প্রতিরোধে, ত্বকের যে কোনও সমস্যায় ভাল কাজ দেয় হলুদ। নিয়মিত ঠান্ডা লাগার সমস্যা থাকলে তার থেকে মুক্তির উপায় লুকিয়ে রয়েছে এলাচ, লবঙ্গতে। আবার ডায়াবিটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে দারচিনির জুড়ি মেলা ভার। সেই সঙ্গে হজমের সমস্যায় ভাল কাজ করে গোলমরিচ।

সময়ে খান এবং সঠিক খাবার খান

আর্য়ুবেদ সব সময় সময়ে খাওয়া এবং সুষম আহারের উপর জোর দেয়। প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে খাওয়া-দাওয়া সারতে পারলে ওজন থাকে নিয়ন্ত্রণে। সেই সঙ্গে শরীরের সব হরমোনও ঠিক মত কাজ করে। সময়ে না খেলেই কিন্তু আমাদের বেশি খাওয়া হয়। বেশি খেলেই আসে হজমের সমস্যা। তাই চিকিৎসক থেকে আর্য়ুবেদ সর্বত্রই কিন্তু সময়ে খাওয়ার কথা বলা হয়।

আর্য়ুবেদে শাস্ত্রে যে জীবনযাত্রার কথা বলা হয় তার সঙ্গে সহমত পোষণ করেছে বিশ্বের প্রায় সমস্ত স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরাই। বর্তমানে আবার সবাই সুস্থ থাকতে বিভন্ন প্রাকৃতিক পন্থাকেই বেছে নিচ্ছেন। কিছু সাধারণ নিয়ম মেনে চলতে পারলেই হবে সমস্যার সমাধান।

আরও পড়ুন: Weight Loss: ওজন কমাতে চাইছেন? তাহলে ডিনারে অবশ্যই মেনে চলুন এই কয়েকটি নিয়ম

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla