Corona Virus : ‘দ্বিতীয় ঢেউয়ে জন্ম, তৃতীয়তে মৃত্যু’, দিল্লিতে করোনার বলি ৭ শিশু

Covid-19 : দিল্লিতে গত ৪ দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছে ৭ শিশু। তার মধ্যে তিনজনের বয়স ১ বছরও হয়নি।

Corona Virus : 'দ্বিতীয় ঢেউয়ে জন্ম, তৃতীয়তে মৃত্যু', দিল্লিতে করোনার বলি ৭ শিশু
প্রতীকী ছবি

নয়া দিল্লি : লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে ওমিক্রনের আতঙ্ক কপালে ভাঁজ ফেলেছে চিকিৎসকদের। বিগত ৪ দিনে করোনায় দিল্লিতে মৃত্য়ু হয়েছে ৯৭ জনের। মৃতদের মধ্যে ৭ জনের বয়স ১৮ বছর বা তার কম। এই ৭ জনের মধ্যে ৩ জন এখনও ১ বছর পূরণ করেনি। একজনের বয়স তিন মাস এবং আরেকজনের বয়স ৭ মাস। এই তথ্যেই চিকিৎসক মহলে আতঙ্কের পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। মনে করা হচ্ছে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম হওয়ার কারণেই তারা করোনা আক্রান্ত হয়েছে।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে শিশুর মৃত্যুতে শোকগ্রস্ত পরিবার। সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত শিশুর পরিবার জানিয়েছেন, “আমাদের শিশুর শরীরে কীভাবে ভাইরাস ঢোকে তা আমরা জানি না। কারণ আমরা কেউ করোনায় আক্রান্ত হইনি।” তিন মাস শিশুর বাবা, ওয়াজিরবাদের বাসিন্দা জানিয়েছেন, তিনি তাঁর মেয়েকে সান্ত পরমানন্দ হাসাপাতালে চেক আপের জন্য নিয়ে গিয়েছিলেন। সেখানে ৭ জানুয়ারি তাঁর তিন মাসের মেয়ের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। তার পরের দিনই তাকে এলএনজিপি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শিশুটি ৯ জানুয়ারি মারা যায়। তিনি বলেছেন, “যখন আমাদের মেয়ে জন্মেছিল ডাক্তার আমাদের বলেছিল যে ওর মুখে নোংরা জল ঢুকে গিয়েছিল। সেই সময় পুঁজ এবং রক্তও জমে ছিল কিন্তু তা ঠিক হয়ে গিয়েছিল। চিকিৎসকরা আমাদের বলেছিলেন যে ওর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম ছিল তাই ও কোভিডে আক্রান্ত হয়েছে।” তিনি দুঃখ করে জানান, ও তাঁদের প্রথম সন্তান ছিল।

এদিকে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৭ মাস বয়সের এক শিশুরও। ৭ মাসের এই শিশুর থ্যালাসেমিয়া ছিল বলে জানা গিয়েছে। এই শিশুর বাবা আক্রান্ত হয়েছিলেন। তিনি করোনা পজিটিভ আসার পর তাঁর সন্তানের করোনা পরীক্ষা করানোর পর শিশুরও পজিটিভ আসে। সাত মাসের এই শিশু করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে জন্ম হয়েছিল। তখন লকডাউন চলছিল রাজধানীতে। হাসপাতাল জানিয়েছে, শিশুটির করোনার পাশাপাশি নিউমোনিয়া এবং হৃদযন্ত্রের সমস্যাও দেখা গিয়েছিল। এর ফলে শিশুর রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা আরও কমে যায়। শেষ পর্যন্ত এই লড়াই জিততে পারেনি সাত মাসের এই শিশু। ১১ জানুয়ারি মারা যায় ৭ মাসের এই শিশু।

সদ্যোজাতের মধ্যে আরেকজনের বয়স ছিল তিন মাসের ছেলে। ৭ জানুয়ারি চেক আপের জন্য তিন মাসের ছেলেকে নিয়ে জিবি পান্থ হাসপাতাল গিয়েছিলেন তার বাবা-মা। কিন্তু শিশুটি খুব দ্রুত নিঃশ্বাস-প্রশ্বাস নেওয়ার কারণে তাঁরা তাকে নিয়ে এলএনজেপি তে নিয়ে যান। এই শিশুর হৃদযন্ত্রে একটা ফুটো ছিল বলে জানা গিয়েছে। সেই কারণে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। হাসপাতালে ভর্তির সময় তার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ ছিল। তবে হাসপাতালে থাকাকালীন শিশুর করোনা পরীক্ষা করা হলে সেই রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এর উপর হৃদযন্ত্রে সমস্যা থাকার কারণে শেষ অবধি আর শিশুটিকে বাঁচানো যায়নি। উল্লেখ্য, শিশু ছাড়াও গত ৪ দিনে দিল্লিতে ১৯ থেকে ৪০ বছর বয়সীদের মধ্যে ১৮ জন, ৪১ থেকে ৬০ বছর বয়সীদের মধ্যে ৩৭ জন এবং ষাটোর্ধ্বের মধ্যে ৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন। মৃতদের মধ্যে ৭০ জনের কোনও টিকা নেওয়া ছিল না।

আরও পড়ুন : Covid Spike: কোভিড মোকাবিলায় ছয় বিশেষজ্ঞের কমিটি গড়ল স্বাস্থ্য ভবন

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla