Covid Spike: করোনায় মৃত্যুর কারণ খুঁজতে ৬ বিশেষজ্ঞের কমিটি গড়ল স্বাস্থ্য ভবন

Covid19: কোভিডের প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউ যখন রাজ্যে আছড়ে পড়ে, তখন স্বাস্থ্য দফতর একাধিক বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করেছিল।

Covid Spike: করোনায় মৃত্যুর কারণ খুঁজতে ৬ বিশেষজ্ঞের কমিটি গড়ল স্বাস্থ্য ভবন
করোনার কোপ চিকিৎসা ক্ষেত্রেও। ফাইল ছবি।

কলকাতা: কোভিড মোকাবিলায় নয়া পদক্ষেপ করল রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। তৈরি করা হল বিশেষজ্ঞদের বিশেষ কমিটি। মূলত সিসিইউয়ে চিকিৎসাধীন কোভিড রোগীদের জন্য এই বিশেষজ্ঞ কমিটি কাজ করবে। চিকিৎসক গোপালকৃষ্ণ ঢালির নেতৃত্বে ছয় সদস্য নিয়ে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কোভিডের প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউ যখন রাজ্যে আছড়ে পড়ে, তখন স্বাস্থ্য দফতর একাধিক বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করেছিল। কিন্তু এবার যে কমিটি গঠন করা হয়েছে তার তাৎপর্য ও উদ্দেশ্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, অনেকের মধ্যেই এমন ধারণা কাজ করছে, ওমিক্রন সে অর্থে তেমন জোরাল কিছু নয়। তা হলে স্বাস্থ্য দফতর কেন এতটা গুরুত্ব দিয়ে এই কমিটি গঠন করল সেটাও দেখা দরকার।

স্বাস্থ্যভবন সূত্রে খবর, গোপালকৃষ্ণ ঢালির নেতৃত্বে ছয় সদস্যর যে কমিটি গঠন করা হয়েছে সেই কমিটি সংক্রান্ত নির্দেশিকাতেই বলা হয়েছে ‘ক্রিটিকাল কেয়ার’-এর জন্য এই কমিটি। অর্থাৎ সিসিইউয়ে চিকিৎসাধীন কোভিড রোগীদের জন্য নতুন বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করা হল।

একইসঙ্গে বলা হয়েছে শম্ভুনাথ পণ্ডিত হাসপাতাল, টিএল জয়স‌ওয়াল কোভিড হাসপাতাল ও আরজি কর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিশেষ নজর দিতে বলা হয়েছে বলে সূত্রের দাবি। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, রাজ্যে করোনায় মৃত্যুর দিকটি খতিয়ে দেখবে এই কমিটি।

ছয় সদস্যের বিশেষজ্ঞ দলে রয়েছেন ডায়মন্ড হারবারে ‘ডক্টর্স অন হুইলসে’র অন্যতম চিকিৎসক অভীক ঘোষ। রয়েছেন চিকিৎসক গোপালকৃষ্ণ ঢালি, তমোনাশ চৌধুরী, অভিমন্যু বসু, সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়, সৌরভ দত্ত।

বৃহৃস্পতিবারই রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে একটি নির্দেশিকা জারি করে। মূলত আইসিএমআরের গাইডলাইন নিয়ে রাজ্যের চিকিৎসকদের একাংশের মধ্যে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছিল। আইসিএমআর তাদের গাইডলাইনে বলেছিল, চিকিৎসাধীন রোগীদের ক্ষেত্রে উপসর্গহীন হলে তাঁদের নমুনা পরীক্ষার দরকার নেই।

এরই নিরিখে স্বাস্থ্য দফতর আরেকটি গাইডলাইন প্রকাশ করে। সেখানে বলা হয়েছে, হাই রিস্ক গ্রুপ ছাড়া পজিটিভের কনট্যাক্টদের পরীক্ষার দরকার নেই। কোনও উপসর্গ না থাকলে পরীক্ষা করানোর দরকার নেই।  হোম আইসোলেশনপর্ব শেষ হলেও পরীক্ষা করতে হবে না। হাসপাতাল থেকে আইসোলেশনপর্ব কাটিয়ে ছাড়া পাওয়ার সময়ও পরীক্ষা করতে হবে না।

একইসঙ্গে রাজ্যের নির্দেশিকায় বলা হয় টেস্টের জন্য কোনও জরুরি চিকিৎসা বা সার্জারি, ডেলিভারি পিছনো যাবে না। জরুরি নয় এমন অস্ত্রোপচার কোভিড-পজিটিভ পর্বের দু’সপ্তাহ পরে করা যাবে। যাঁদের কো-মর্বিডিটি রয়েছে তাঁদের অস্ত্রোপচার নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন চিকিৎসকই। কোনও রোগী একবার পজিটিভ হলে দ্বিতীয়বার পরীক্ষা করানোর দরকার নেই। উপসর্গহীনদেরও পরীক্ষা করানোর দরকার নেই।

আরও পড়ুন: Maynaguri Train Accident Live: রাত আড়াইটে! গ্যাস কাটার দিয়ে বের করা হল শেষ দেহটি

আরও পড়ুন: Dilip Ghosh On Municipality Election: সরকার তো চাইবেই ভোট করাতে, কমিশনকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে: দিলীপ ঘোষ

Published On - 1:21 pm, Fri, 14 January 22

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla