BSF Empowered: জঙ্গি অনুপ্রবেশ রুখতে বিএসএফের শক্তি বাড়ল বাংলা-পঞ্জাব-অসমে

BSF Special Power : এখন থেকে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্ত এলাকায় দেশের ভিতরে সীমান্ত থেকে ৫০ কিলোমিটার ভিতর পর্যন্ত তল্লাশি, গ্রেফতারি করতে পারবেন জওয়ানরা।

BSF Empowered: জঙ্গি অনুপ্রবেশ রুখতে বিএসএফের শক্তি বাড়ল বাংলা-পঞ্জাব-অসমে
পুঞ্চে সেনার সঙ্গে জঙ্গিদের সংঘর্ষ। প্রতীকী ছবি।

নয়া দিল্লি : গতকালই পাকিস্তানের এক জঙ্গিকে গ্রেফতার করা হয়েছে রাজধানী থেকে। একেবারে ভুয়ো পরিচয়পত্র বানিয়ে গা ঢাকা দিয়েছিল। এরপর সীমান্ত নিরাপত্তা আরও জোরদার করছে কেন্দ্র। বিশেষ কোনওভাবেই যাতে জঙ্গিরা সীমান্ত পেরিয়ে এ দেশে ঢুকে পড়তে না পারে, তার জন্য সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (BSF Empowered) ক্ষমতা আরও বাড়িয়ে দিল কেন্দ্র।

সীমান্তরক্ষী বাহিনীর জওয়ানরা পাকিস্তান ও বাংলাদেশ সীমান্তে পাহাড়া দেন। এতদিন পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ, পঞ্জাব ও অসমে সীমান্ত থেকে ১৫ কিলোমিটার ভিতর পর্যন্ত তল্লাশি অভিযান, বাজেয়াপ্ত ও গ্রেফতারির ক্ষমতা ছিল সীমান্তরক্ষী বাহিনীর হাতে। নতুন নিয়মে তা বাড়িয়ে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত করা হয়েছে। অর্থাৎ, এখন থেকে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্ত এলাকায় দেশের ভিতরে সীমান্ত থেকে ৫০ কিলোমিটার ভিতর পর্যন্ত তল্লাশি, গ্রেফতারি করতে পারবেন জওয়ানরা।

আজ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের (Ministry of Home Affairs) তরফে এই নতুন নিয়ম জারি করা হয়েছে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী আরও শক্তি বাড়ছে পশ্চিমবঙ্গ, অসম কিংবা পঞ্জাবে কর্তব্যরত বিএসএফ জওয়ানদের। শুধু বাংলা, অসম এবং পঞ্জাবই নয়, পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্ত রয়েছে এমন মোট ১০ টি রাজ্য এবং ২ টি কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলের হাতে একই শক্তি দেওয়া হয়েছে। এর ফলে জাতীয় নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকি হতে পারে, এমন যে কোন বেআইনি কার্যকলাপের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে জওয়ানদের হাতে।

পশ্চিমবঙ্গ, অসম ও পঞ্জাবে এতদিন সীমান্ত থেকে ১৫ কিলোমিটার ভিতর পর্যন্ত তল্লাশি ও গ্রেফতারির এক্তিয়ার ছিল। কিন্তু উত্তরপূর্বের রাজ্যগুলিতে অর্থাৎ, মণিপুর, মিজোরাম, ত্রিপুরা, নাগাল্যান্ড ও মেঘালয়ে এতদিন সীমান্ত থেকে ৮০ কিলোমিটার ভিতর পর্যন্ত তল্লাশি ও গ্রেফতারির এক্তিয়ার ছিল সীমান্তরক্ষী বাহিনীর। নতুন নিয়মে ওই পাঁচ রাজ্যে তা ২০ কিলোমিটার কমিয়ে আনা হয়েছে। গুজরাটের ক্ষেত্রে সীমান্তরক্ষী বাহিনীর কার্যক্ষমতা সীমান্তের ৮০ কিলোমিটার থেকে কমিয়ে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত করা হয়েছে।

কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত ব্যাপকভাবে স্বাগত হলেও পঞ্জাবে এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের এই নতুন বিজ্ঞপ্তির তীব্র নিন্দা জানিয়ে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চন্নি বলেন, “আন্তর্জাতিক সীমান্তে যে ৫০ কিলোমিটারের বেল্টের মধ্যে বিএসএফকে অতিরিক্ত ক্ষমতা দেওয়ার কেন্দ্রীয় সরকারের একতরফা সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা জানাই। এই সিদ্ধান্ত সরাসরি যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থার ওপর আক্রমণ। আমি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে অনুরোধ করছি অবিলম্বে এই অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করুন।”

পঞ্জাবে বিএসএফের শক্তি বৃদ্ধির প্রতিবাদ জানিয়েছে এককালে বিজেপির জোট সঙ্গী শিরোমণি অকালি দলও। তারাও এই সিদ্ধান্ত যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর পরিপন্থী বলে মনে করছে।

আরও পড়ুন : President in Kashmir: নবমীতেই জম্মু-কাশ্মীরে রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ, দশেরা কাটাবেন সেনা-জওয়ানদের সঙ্গেই

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla