সিবিএসই দশম-দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষার আগেই বড় ঘোষণা, বিশেষ শর্ত পূরণ না করলে প্রকাশ হবে না ফল

গত ১ মার্চ থেকে আগামী ১১ জুনের মধ্যে সমস্ত প্রাক্টিকাল পরীক্ষা শেষের নির্দেশ দিয়েছিল সিবিএসই বোর্ড। তবে করোনা সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে বিশেষ কিছু ছাড়ও দেওয়া হয়েছে।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 19:19 PM, 7 Apr 2021
সিবিএসই দশম-দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষার আগেই বড় ঘোষণা, বিশেষ শর্ত পূরণ না করলে প্রকাশ হবে না ফল
ফাইল চিত্র।

নয়া দিল্লি: সামনেই দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা। তার আগেই বড় ঘোষণা করল সিবিএসই বোর্ড(CBSE Board)। স্নাতকোত্তর ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষকদের দিয়ে নীচু ক্লাসের পড়ুয়াদের পড়ানোয় দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের পড়ানোর জন্য যোগ্য শিক্ষক পাওয়া যাচ্ছে না। এই পরিস্থিতিতে বোর্ডের তরফে জানানো হল যে সিবিএসই-র সমস্ত স্কুলকে তাঁদের শিক্ষকদের শিক্ষাগত যোগ্যতা বোর্ডের সিস্টেমে আপলোড করতে হবে। এই নিয়ম অমান্য করলে দিতে হবে মোটা অঙ্কের জরিমানা দিতে হবে। এমনকি স্কুলের দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির ফল প্রকাশও করতে দেওয়া হবে না।

সিবিএসই বোর্ডের তরফে জানানো হয়েছে, বহু ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে স্নাতকোত্তর পাশ শিক্ষক ও প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত স্নাতক শিক্ষকদের নীচু ক্লাসের পড়ানোর দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। এরফলে উচু ক্লাসের পড়ুয়াদের পড়ানোর জন্য উপযুক্ত শিক্ষক পাওয়া যাচ্ছে না। শিক্ষকদের আকাল দূর করতে এ বার থেকে সিবিএসই-র মান্যতাপ্রাপ্ত সমস্ত স্কুলকে তাদের শিক্ষকের নাম ও যোগ্যতা “অনলাইন অ্যাফিলিয়েটেড স্কুল ইনফরমেশন সিস্টেম”(Online Affiliated Schools Information System)-এ আপলোড করতে হবে।

বোর্ডের তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে, যদি কোনও স্কুল এই ওয়েসিস (OASIS) পোর্টালে শিক্ষকদের তথ্য আপলোড না করে, তবে তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত কড়া পদক্ষেপও নেওয়া হবে। যদি কোনও স্কুল এই নিয়ম ভঙ্গ করে, তবে স্কুলের প্রিন্সিপালকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হবে। একইসঙ্গে ওই স্কুলগুলির দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির ফলও প্রকাশ করা হবে না।

আরও পড়ুন: অফিসে গেলেই মিলবে টিকা, বড় ঘোষণা কেন্দ্রের

প্রাক্টিকাল পরীক্ষার ক্ষেত্রেও নয়া নিয়ম জারি করেছে বোর্ড। বলা হয়েছে, “বাইরে থেকে আসা পরীক্ষকই প্রাক্টিকাল পরীক্ষা নিতে পারবেন। যদি সিবিএসই-র নির্ধারিত বোর্ডের পরীক্ষক পরীক্ষা না নেন, তবে সেক্ষেত্রে পরীক্ষা বাতিল করে দেওয়া হবে।”

গত ১ মার্চ থেকে আগামী ১১ জুনের মধ্যে সমস্ত প্রাক্টিকাল পরীক্ষা শেষের নির্দেশ দিয়েছিল সিবিএসই বোর্ড। তবে করোনা সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে বিশেষ কিছু ছাড়ও দেওয়া হয়েছে। বোর্ডের তরফে বলা হয়েছে, “যদি কোনও পড়ুয়া নিজে করোনা আক্রান্ত হন বা তাঁর পরিবারের কেউ করোনা আক্রান্ত হওয়ার কারণে যদি পরীক্ষায় উপস্থিত না থাকলে পারে, তবে সেই ক্ষেত্রে স্থানীয় অফিসারদের সঙ্গে কথা বলে পড়ুয়াদের পরে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে। তবে সেই পরীক্ষা ১১ জুনের মধ্যেই নিতে হবে।”

আরও পড়ুন: আইনি নোটিসের মুখে সেরাম, ৩ মাসের মধ্যে প্রয়োজন ৩ হাজার কোটি টাকা!