Dalit Student Death : ‘গভীরভাবে শোকাহত’, দলিত ছাত্রের মৃত্যুতে ইস্তফা ব্যথিত কংগ্রেস বিধায়কের

Dalit Student Death : রাজস্থানে দলিত ছাত্রের মৃত্য়ুর ঘটনার পর ইস্তফা দিলেন এক কংগ্রেস বিধায়ক। তিনি বলেছেন, তিনি তাঁর সম্প্রদায়ের উপর এই নৃশংস অত্যাচার সহ্য করতে পারছেন না।

Dalit Student Death : 'গভীরভাবে শোকাহত', দলিত ছাত্রের মৃত্যুতে ইস্তফা ব্যথিত কংগ্রেস বিধায়কের
ছবি সৌজন্যে : ANI
TV9 Bangla Digital

| Edited By: অঙ্কিতা পাল

Aug 16, 2022 | 1:40 PM

জয়পুর : রাজস্থানে শিক্ষকের প্রহারে ৯ বছরের দলিত ছাত্রের মৃত্যু ঘিরে বেশ চাপে পড়েছে রাজস্থান সরকার। যদিও এই খবর সামনে আসতেই যথাযথ পদক্ষেপ করেছে সেখানকার গেহলট সরকার। ইতিমধ্য়েই তদন্ত শুরু করে অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে এই ঘটনাকে খাড়া করে অশোক গেহলট ও তাঁর প্রশাসনকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি বিজেপি। এবার এই ঘটনায় সোমবার বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিলেন এক কংগ্রেস নেতা।

বারান জেলার আতরু বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক পানাচন্দ মেঘলাল। সংবাদ সংস্থা এএনআই মারফত জানা গিয়েছে, এদিন ইস্তফা দিয়ে জানিয়েছেন, তিনি জালোরের এই দলিত ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় তিনি অত্যন্ত ব্যথিত। তিনি বলেছেন, ‘আমি জালোরের ৯ বছরের দলিত ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় গভীরভাবে শোকাহত। তাই আমি ইস্তফা দিচ্ছি। দলিত ও বঞ্চিত সম্প্রদায় প্রতিনিয়ত অত্যাচার ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছে।’ সংবাদ সংস্থা পিটিআই অনুযায়ী, তিনি ইস্তফা পত্রে লিখেছেন, ‘যখন আমরা আমাদের সম্প্রদায়ের অধিকার রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছি…তখন আমাদের পদে থাকার কোনও অধিকার নেই। আমি অন্তরাত্মার কথা শুনে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিচ্ছি, যাতে আমি কোনও পদ ছাড়াই সমাজের সেবা করতে পারি।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘এই নৃশংসতা দেখে আমি কষ্ট পেয়েছি। আমার সম্প্রদায়ের ওপর যেভাবে অত্যাচার হচ্ছে, তা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। পাত্র থেকে জল খাওয়া, গোঁফ খেলা বা বিয়ের সময় ঘোড়ায় চড়ার জন্য দলিতদের হত্যা করা হচ্ছে। বিচার প্রক্রিয়া থমকে আছে এবং মামলার ফাইল এক টেবিল থেকে অন্য টেবিলে চলে যাচ্ছে। গত কয়েক বছরে দলিতদের ওপর অত্যাচারের ঘটনা বাড়ছে। মনে হচ্ছে সংবিধান প্রদত্ত দলিতদের অধিকার রক্ষা করার কেউ নেই।’ তাঁর আরও সংযোজন, দলিতদের দায়ের করা মামলায় বেশিরভাগ ক্ষেত্রে পুলিশ ফাইনাল রিপোর্ট জমা দেয়। রাজ্য বিধানসভায় এই বিষয়টি উত্থাপন করেছে বলেও জানান মেঘওয়াল। তবে সেই বিষয়ে পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত জুলাই মাসের ২০ তারিখ রাজস্থানের জালোর জেলার সায়লা গ্রামের ঘটনা। একটি বেসরকারি স্কুলে পাত্রে জল রাখা হয়েছিল। সেই কলসি থেকে জল পান করেন ৯ বছর বয়সী এক ছাত্র। তারপরই বেধড়ক মারেন শিক্ষক। চোখে ও কানে গুরুতর চোট লাগে। দীর্ঘদিন চিকিৎসার পর গত শনিবার সেই কিশোর মারা যায়। এরপরই এই ঘটনা নিয়ে হইচই পড়ে যায়। সেই শিক্ষকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিকে রাজস্থানের কংগ্রেস সরকার এই ঘটনায় চরম সমালোচনার মুখে পড়েছে।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla