মিনিট তিনেক পরেই উধাও! কাশ্মীরের আকাশে আলো জ্বলা উড়ন্ত বস্তুটা আসলে কী?

শনিবার সন্ধের পর থেকে পরপর তিনটি ড্রোন দেখা গিয়েছে উপত্যকায়। রাত প্রায় ১০ টা নাগাদ শেষ ড্রোনটি চোখে পড়ে।

মিনিট তিনেক পরেই উধাও! কাশ্মীরের আকাশে আলো জ্বলা উড়ন্ত বস্তুটা আসলে কী?
প্রতীকী চিত্র।

শ্রীনগর: ফের কাশ্মীরের আকাশে চোখে পড়ল ড্রোন। একটি নয়, পরপর তিনটি। রাত ৯ টা ৫০মিনিটে একটি উড়ন্ত বস্তু দেখে ছুটে যান এলাকারই এক যুবক। জানা গিয়েছে, ওই যুবক দেখেন উড়ন্ত বস্তুটির গায়ে আলো জ্বলছে। আর তা দেখে নিজের মোবাইলে ভিডিয়ো রেকর্ড করতে শুরু করেন তিনি। মিনিট তিনেক পরে আকাশ থেকে উধাও হয়ে যায় সেটি। এই নিয়ে শনিবার সন্ধের পর থেকে পরপর তিনবার ড্রোন বা ড্রোনের মতো কোনও উড়ন্ত বস্তু চোখে পড়ল উপত্যকায়।

শনিবার রাত ৮ টা থেকে ৯ টার মধ্যে দুটি ড্রোন উড়তে দেখা যায় কাশ্মীরের আকাশে। প্রথম ড্রোন দুটি সাম্বা সেক্টর থেকে চোখে পড়ে। পরে পাশের জেলা দোমানায় দেখা  যায় আরও একটি উড়ন্ত বস্তু, সেটিও ড্রোন বলেই অনুমান করা হচ্ছে। ঘটনাটি নজরে পড়তেই এলাকাণ তল্লাশি অভিযান শুরু হয়েছে। গত কয়েক দিনে বারবার ড্রোনের হানা দেখ গিয়েছে কাশ্মীরে। একাধিক ড্রোন গুলি করে নামানোও হয়েছে মাটিতে। উপত্যকায় কড়া নজরদারির মধ্যেও বারবার হানা দিচ্ছে পাক ড্রোন।

শনিবার সকাল থেকেই সোপিয়ান, অনন্তনাগ, সুজয়ান সহ মোট ১৪টি জায়গায় অভিযান চালিয়েছে এনআইএ।জুন মাসে জম্মুর বিমানঘাঁটিতে ড্রোন হামলা এবং সম্প্রতি জম্মুর মন্দিরে স্বাধীনতা দিবসের আগে হামলার পরিকল্পনা জানার পরই দুই ঘটনার চক্রীদের খোঁজে তল্লাশি অভিযান চালানো হয়েছে।

জুন মাসের ২৭ তারিখ ভোররাতে জম্মু বিমানবন্দরে বায়ুসেনার যে ঘাঁটি রয়েছে, তাতে ড্রোনের মাধ্যমে পরপর দুটি বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। পাক সীমান্ত থেকে ১৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই বিমানঘাঁটিতে বিস্ফোরণের তদন্তভার তুলে দেওয়া হয় এনআইএ-র হাতে।  কিন্তু ড্রোনের দৌরাত্ব্য কমেনি উপত্যকায়। এরই মধ্যে লাগাতার দুই সপ্তাহ ধরে জম্মুর বিভিন্ন সেনাঘাটির কাছে ড্রোনের নজরদারি, একাধিক জায়গা থেকে বিস্ফোরক উদ্ধার হয়। আরও পড়ুন: বিরোধীদের জন্য জনগণের ১৩৩ কোটি টাকা জলে, দাবি কেন্দ্রের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla