India to resume Vaccine Export: আগামী মাস থেকেই করোনা টিকা রফতানি শুরু করবে ভারত

India to resume Vaccine Export: আগামী মাস থেকেই করোনা টিকা রফতানি শুরু করবে ভারত
ফের করোনা টিকার রফতানি শুরু করেছে ভারত (ফাইল চিত্র)

নয়াদিল্লি : আগামী মাস থেকেই ফের অতিরিক্ত করোনা টিকা (COVID Vaccine)বাইরের দেশগুলিকে দেওয়া শুরু করে ভারত। অনুদান এবং রফতানি উভয়ই শুরু হবে। আজ সাংবাদিক বৈঠকে এমনটাই জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্ডব্য (Union Health Minister Mansukh Mandviya)।

আগামিকালই মার্কিন সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কূটনীতিবিদদের একটি বড় অংশ মনে করছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে করোনা টিকার রফতানির বিষয়টি উঠে আসতে পারে। আর সেদিক থেকে দেখতে গেলে, প্রধানমন্ত্রীর মার্কিন সফরের ঠিক একদিন আগেই অতিরিক্ত করোনা টিকার অনুদান এবং রফতানি শুরু করার ঘোষণা কূটনৈতিকভাবে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

সার্বিকভাবে বিশ্বের সবথেকে বড় টিকাপ্রস্তুতকারক দেশ ভারত। কিন্তু এপ্রিল মাস থেকে করোনা টিকা বিদেশে পাঠানো বন্ধ করে দিয়েছে কেন্দ্র। কারণ, কেন্দ্রের লক্ষ্য, আগে গোটা দেশের টিকাকরণ প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে। চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসের মধ্যে দেশের ৯৪.৪ কোটি নাগরিককের করোনা টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে কেন্দ্র। এখনও পর্যন্ত সবমিলিয়ে ৬১ শতাংশ নাগরিককে করোনা টিকার অন্তত একটি ডোজ় দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

কোয়াড (Quad)ভুক্ত দেশগুলি অর্থাৎ ভারত, আমেরিকা, জাপান এবং অস্ট্রেলিয়া বৈঠকে বসতে চলেছে মার্কিন মুলুকে। সেই বৈঠকে যোগ দিতে আগামিকালই ওয়াশিংটন উড়ে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বৈঠেক করোনা টিকার প্রসঙ্গ নিয়ে আলোচনা হওয়ার প্রভূত সম্ভাবনা রয়েছে। আর তারই মধ্যে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণা নিঃসন্দেহে আন্তর্জাতিক মহলে ভারতের ভাবমূর্তি এবং করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতের ভূমিকাকে আরও স্পষ্ট করে তুলে ধরবে।

নতুনভাবে সজ্জিত এই টিকা রফতানি এবং অনুদানের কর্মযজ্ঞের নাম দেওয়া হয়েছে ‘ভ্যাকসিন মৈত্রী’। এর মাধ্যমে গোটা বিশ্বের করোনা টিকা লেনদেনের প্রক্রিয়াকে আরও মজুবত করা হবে বলে মনে করছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্ডব্য। একইসঙ্গে তিনি এও জানিয়েছেন, করোনা টিকা বণ্টনের ক্ষেত্রে প্রতিবেশী দেশগুলিকে আগে গুরুত্ব দেওয়া হবে।

এইমুহূর্তে ভারত বিগত মাসগুলির তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ করোনা টিকা উৎপাদন করছে। আগামী মাসের মধ্যে তা চার গুণ করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। এদিকে বায়োলজিক্যাল-ইকেও করোনা টিকা তৈরির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে বছরের শেষ তিন মাসে ১০০ কোটিরও বেশি করোনা টিকার ডোজ় উৎপাদন করা সম্ভব হবে বলে মনে করছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

বিদেশে করোনা টিকা পাঠানো বন্ধ হওয়ার আগে পর্যন্ত ভারত প্রায় ১০০ টি দেশকে করোনা টিকার ৬.৬ কোটি ডোজ় পাঠিয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩০ হাজার ২৫৬ জন। গতকাল সেই সংখ্যাটা দঁড়িয়েছিল ৩০ হাজার ৭৭৩। দু’সপ্তাহ আগেও হু-হু করে বেড়ে গিয়ে প্রায় ৪৫ হাজারের গণ্ডি ছুঁয়েছিল এই সংখ্যাটা। এরপর এক ধাক্কায় তা কমে দাঁড়ায় ৩৩ হাজারে। পরপর কয়েকদিন সংখ্যাটা ৩০ হাজারের নীচেই ছিল। পরে সংখ্যাটা আবার ৩০ হাজার ছাড়ায়। দেশের মোট আক্রান্তের সংখ্যা এই মুহূর্তে ৩ কোটি ৩৪ লাখ ৭৮ হাজার ৪১৯। গতকাল মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩ কোটি ৩৪ লাখ ৪৮ হাজার ১৬৩ জন।

আরও পড়ুন : India Corona Update:কমল মৃত্যু, তবে আক্রান্ত ৩০ হাজার

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla