এনকাউন্টারে শেষ মাসুদ আজহারের আত্মীয় ‘লম্বু’, পুলওয়ামা হামলার ‘মাথা’কে নিকেশ করে বড় সাফল্য বাহিনীর

Pulwama, Encounter: ভোর থেকে শুরু হয় অভিযান। লম্বু সহ দুই জঙ্গিকে নিকেশ করে নিরাপত্তা বাহিনী।

এনকাউন্টারে শেষ মাসুদ আজহারের আত্মীয় 'লম্বু', পুলওয়ামা হামলার 'মাথা'কে নিকেশ করে বড় সাফল্য বাহিনীর
মহম্মদ ইসমাল আলভি ওরফে লম্বু

শ্রীনগর: সাত সকালে সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াইতে খতম জইশ জঙ্গি। আজ, শনিবার সকালে যে দুই জঙ্গিকে নিকেশ করা হয়েছে উপত্যকায়, তাদের মধ্যে একজন হল মহম্মদ ইসমাল আলভি ওরফে লম্বু। পাকিস্তানের নাগরিক ইসমাল কুখ্যাত জঙ্গি নেতা মাসুরদ আজহারের আত্মীয় বলে জানা গিয়েছে। ২০১৯-এ পুলওয়ামার ভয়াবহ জঙ্গি হামলার পিছনে যে জঙ্গিদের মাথা ছিল, তাদের মধ্যে অন্যতম এই ইসমাল। তাই তাকে নিকেশ করা ভারতীয় সেনার এক বড় সাফল্য বলেই মনে করা হচ্ছে।

সকালেই দুই জঙ্গি নিকেশের খবর আসে উপত্যকা থেকে। পরে এই জঙ্গির পরিচয় নিশ্চিত করেছে পুলিশ। কাশ্মীর পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে এনকাউন্টারে জয়েশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি লম্বুর মৃত্যু হয়েছে। এই সাফল্যে সেনাবাহিনী ও অবন্তিপুরা পুলিশকে অভিনন্দন জানিয়েছে কাশ্মীর পুলিশ। কাশ্মীর পুলিশের ইন্সপেক্টর বিজয় কুমার জানিয়েছেন, ‘পুলওয়ামা হামলায় ষড়যন্ত্রকারীদের মধ্যে অন্যতম মহম্মদ ইসমাল আলভি। এনআইএ-র চার্জশিটেও ছিল তার নাম।

উল্লেখ্য, ভারতের ইতিহাসে অন্যতম ভয়াবহ জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটেছিল পুলওয়ামায়। ২০১৯ সালে সিআরপিএফ কনভয় লক্ষ্য করে হামলা চালায় জঙ্গিরা। বিস্ফোরণে মৃত্যু হয় অন্তত ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানের। তদন্তে জানা যায়, জয়েশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিরাই ২০১৯-এর ১৪ ফেব্রুয়ারির ওই ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিল। এই ঘটনার কয়েকদিন পরই পাক জঙ্গি ঘাঁটিকে নিশানা করে পাকিস্তানের বালাকোটে অভিযান চালায় ভারত।

আজ ভোর থেকেই গোপন সূত্রে খবর মেলে দাচিগাম জঙ্গলে অভিযান শুরু করে পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনী। জঙ্গলের কিছুটা গভীরে প্রবেশ করতেই নিরাপত্তাবাহিনীর ওপর গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা। পাল্টা গুলি চালায় পুলিশও। শুরু হয় এনকাউন্টার। জানা গিয়েছে, স্বাধীনতা দিবস ও তার আগেই জম্মুর একাধিক মন্দিরে নাশকতার ছক রয়েছে জঙ্গিদের। সেই অনুযায়ী কড়া সতর্কতাও জারি করা হয়েছে। আগামী ৫ অগস্ট জম্মুর বেশ কয়েকটি মন্দিরে নাশকতার ছক রয়েছে জঙ্গিদের। কারণ সেইদিনই জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা অবলুপ্তির দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি হবে। এছাড়াও স্বাধীনতা দিবসের দিনও বিস্ফোরণ ঘটানোর পরিকল্পনা রয়েছে লস্কর-ই-তৈবা ও জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি গোষ্ঠীর। আরও পড়ুন: বায়ুসেনা ঘাঁটিতে ড্রোন হামলায় জড়িত কারা? খুঁজতে উপত্যকা জুড়ে তল্লাশি অভিযান এনআইএ-র

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla