‘সোশ্যাল মিডিয়ায় হতাশা প্রকাশ খুব একটা ভালো দেখায় না’, গভীর রাতে ফোন নাড্ডার!

বাবুলকে ফোনে করে কথা বলেছেন নাড্ডা। ফোন করেছিলেন তথাগত রায়ও। তবে বাবুল নাকি তাঁর সিদ্ধা্ন্তেই অনড়।

'সোশ্যাল মিডিয়ায় হতাশা প্রকাশ খুব একটা ভালো দেখায় না', গভীর রাতে ফোন নাড্ডার!
ফাইল ছবি

কলকাতা: শনিবার আচমকাই রাজনীতির ময়দান ছাড়ার ঘোষণা করেছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। আর তারপর থেকেই রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে। শনিবারই বাবুল জানিয়েছিলেন বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে আবেদন জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। তাই এ ভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরাসরি রাজনীতি ছাড়ার ঘোষণা। সেই ঘোষণার পরও শেষ চেষ্টা করা হল বিজেপির তরফে। সূত্রের খবর, শনিবার বাবুলের একাধিক সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট সামনে আসার পর রাতে তাঁকে ফোন করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা।

সূত্রের খবর, শনিবার রাতে ফোন যায় বাবুলের কাছে। জে পি নাড্ডা বাবুলকে বলেন, এ ভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় হতাশা প্রকাশ করা তাঁর জন্য বা দলের জন্য মোটেই খুব একটা সুখকর নয়। নাড্ডা জানান, বাবুল যদি থেকে যান, তাহলে বঙ্গ বিজেপিতে তাঁর একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকবে বলেই আশা করা হবে। তবে, দলের তরফে বাবুলকে কোনও পদ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেননি নাড্ডা।

সহকর্মীর সিদ্ধান্ত বদলাতে শুধু জে পি নাড্ডা নয়, ফোন করেছেন তথাগত রায়ও। সূত্রের খবর রাজনীতি ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথা জানানোর পরেই বাবুল সুপ্রিয়ের সঙ্গে কথা হয় বর্ষীয়ান এই নেতার। কিন্তু তারপরেও নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থেকেছেন বাবুল। রাজ্য বিজেপির অন্যতম নেতা তথাগত রায় জানান, তিনিও বাবুলকে বোঝানোর চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু লাভ হয়নি। নিজেই এ নিয়ে টুইট করেছেন তথাগত।

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পরই তাল কাটে বাবুলের। টালিগঞ্জে প্রার্থী হয়ে হেরে যান বাবুল। এর কয়েক মাসের ব্যবধানে প্রধানমন্ত্রীর সম্প্রসারিত মন্ত্রিসভায় জায়গা হয়নি তাঁর। আর তার পর থেকেই তাল কাটতে শুরু করেছে। শনিবার প্রথম পোস্টে সরাসরি রাজনীতি ছাড়ার কথা জানিয়েছেন বাবুল। তারপর থেকেই জল্পনা চরমে। যদিও বঙ্গ বিজেপির দাবি, এখনও পদত্যাগ করেননি বাবুল। দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘কে কোথায় যাচ্ছেন, কী করছেন, কখন রাজনীতি করবেন, কখন করবেন না, সেটা তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাপার। এই নিয়ে আমার কিছু বলার নেই।’

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla