মুকেশ আম্বানীকে সুপ্রিম ধাক্কা, ফিউচার গ্রুপের সঙ্গে ২৪ হাজার কোটি টাকার চুক্তিতে স্থগিতাদেশ

সুপ্রিম কোর্ট ৫ সপ্তাহের জন্য সংশ্লিষ্ট মামলার শুনানি পিছিয়ে দিয়ে ফিউচার গ্রুপকে লিখিতভাবে তাদের অবস্থান জানাতে নির্দেশ দিয়েছে। রায়ের পরে ব্যাপক ভাবে পড়ে গিয়েছে ফিউচার গ্রুপ ও রিলায়েন্সের শেয়ার ও বন্ডের দাম।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 0:04 AM, 23 Feb 2021
মুকেশ আম্বানীকে সুপ্রিম ধাক্কা, ফিউচার গ্রুপের সঙ্গে ২৪ হাজার কোটি টাকার চুক্তিতে স্থগিতাদেশ
ফাইল চিত্র

সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা খেল রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ (Reliance Industries)-এর কর্ণধার মুকেশ অম্বানী (Mukesh Ambani)। ফিউচার গ্রুপ (Future Group)-এর সঙ্গে তাঁদের ৩৪০ কোটি আমেরিকান ডলার বা ভারতীয় মুদ্রায় ২৪ হাজার ৭১৩ কোটি টাকার চুক্তিতে আপাতত স্থগিতাদেশ দিল শীর্ষ আদালত। ওই চুক্তি ব্যবসায়িক বিধি লঙ্ঘন করছে বলে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করে মার্কিন অনলাইন বিপণন সংস্থা অ্যামাজন (Amazon.com Inc)। সেই মামলার শুনানিতে সোমবার সংশ্লিষ্ট চুক্তিতে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। এর আগে নিম্ন আদালত সিদ্ধান্ত ঠেলে দিয়েছিল কোম্পানি ট্রাইব্যুনালের দিকে। তবে এদিন সুপ্রিম কোর্ট জানাল, কোম্পানি ট্রাইব্যুনাল শুনানি চালিয়ে যেতে পারে। কিন্তু শীর্ষ আদালতের পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে না।

এদিন সুপ্রিম কোর্ট ৫ সপ্তাহের জন্য সংশ্লিষ্ট মামলার শুনানি পিছিয়ে দিয়ে ফিউচার গ্রুপকে লিখিতভাবে তাদের অবস্থান জানাতে নির্দেশ দিয়েছে। এদিকে আদালতের এই রায়ের পরে ব্যাপক ভাবে পড়ে গিয়েছে ফিউচার গ্রুপের শেয়ার ও বন্ডের দাম। রিলায়েন্সের শেয়ার দরও ২.৮ শতাংশ পড়ে গিয়েছে।

ফিউচার গ্রুপের ৩৪০ কোটি ডলারের খুচরো ব্যবসা কিনে নেওয়ার তোড়জোড় করেছিলেন মুকেশ আম্বানী। কিন্তু অ্যামাজন দাবি, ফিউচার গ্রুপের সঙ্গে তাদের আগেই চুক্তি হয়। সেই চুক্তি  অনুযায়ী তারা খুচরো ব্যবসা রিলায়েন্সকে বিক্রি করতে পারে না বলে দাবি করে জেফ বেজোসের সংস্থা। সিঙ্গাপুরের এক আরবিট্রেটর মুকেশ আম্বানীর সংস্থাকে ওই চুক্তি করতে বাধা দেয়। কিন্তু সেই দাবি নাকচ করে রায় দেয় দিল্লি নিম্ন আদালত। সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় অ্যামাজন। এদিনের রায়ের পরে কিছুটা স্বস্তি পেল বেজোসের সংস্থা।

আরও পড়ুন: চিকিৎসক হয়ে কীভাবে করোনিলকে ছাড়পত্র দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী, প্রশ্ন চিকিৎসক মহলের

প্রসঙ্গত, ফিউচার গ্রুপের ব্যবসা আয়তনের দিক থেকে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম। সারা দেশে তাদের প্রায় ১,৭০০ স্টোর ছড়িয়ে আছে। কিন্তু বর্তমানে দেনার দায়ে জর্জরিত এই সংস্থা ২০২০ সালের আগস্টে প্রায় ২৪ হাজার কোটি টাকার চুক্তি করে রিলায়েন্সের সঙ্গে। যা নিয়ে বেঁকে বসে তাদের অন্যতম অংশীদার সংস্থা অ্যামাজন। তাদের কাছে রয়েছে ফিউচার গ্রুপের ৪৯ শতাংশ শেয়ার। রিলায়েন্সের সঙ্গে চুক্তি করে ব্যবসায়িক নীতি ভঙ্গ করেছে ফিউচার গ্রুপ, এমন অভিযোগ করে আদালতের দ্বারস্থ হয় তারা। তবে এদিনের সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর আরবিট্রেশন ট্রাইবুনালে যেতে পারে ফিউচার গ্রুপ, এমনটাই খবর।