Mallikarjun Kharge: খর্গে অপমানিত হলেন না অপমান করলেন? রাষ্ট্রপতির শপথ অনুষ্ঠান কলুষিত বিতর্কে

Mallikarjun Kharge: রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খর্গেকে অপমান করা হয়েছে বলে অভিযোগ বিরোধী দলগুলির। কেন্দ্রের পক্ষ পাল্টা খর্গের বিরুদ্ধেই বিদায়ী রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে অপমান করার অভিযোগ করা হয়েছে।

Mallikarjun Kharge: খর্গে অপমানিত হলেন না অপমান করলেন? রাষ্ট্রপতির শপথ অনুষ্ঠান কলুষিত বিতর্কে
সোমবার সংসদ ত্যাগ করার সময় সাংবাদিকদের মুখোমুখি মল্লিকার্জুন খর্গে
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Amartya Lahiri

Jul 25, 2022 | 11:01 PM

নয়া দিল্লি:

সোমবার (২৫ জুলাই), সংসদের সেন্ট্রাল হলে দেশের পঞ্চদশ রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন দ্রৌপদী মুর্মু। এই ঐতিহাসিক শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে তৈরি হল অযাচিত বিতর্ক। রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খর্গেকে রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে অশ্রদ্ধা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিরোধী দলগুলির বেশ কয়েকজন নেতা। রাজ্যসভার চেয়ারম্যান তথা উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডুকে চিঠি লিখে তাঁরা দাবি করেছেন, শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে খর্গেকে তাঁর পদের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ আসন দেওয়া হয়নি। কেন্দ্রের পক্ষ থেকে অবশ্য এই অভিযোগ খারিজ করা হয়েছে।

সূত্রের খবর, কংগ্রেস, জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস পার্টি, তৃণমূল কংগ্রেস, শিবসেনা, ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি, ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী) এবং রাষ্ট্রীয় জনতা দল-সহ বেশ কয়েকটি বিরোধী দলের নেতা রাজ্যসভার চেয়ারম্যানকে পাঠানো ওই চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন। তাঁদের অভিযোগ, খর্গেকে ইচ্ছা করেই অসম্মানিত করেছে সরকার। এই নিয়ে বিরোধী দলের নেতারা একযোগে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। চিঠিটি জাতীয় কংগ্রেসের মুখপাত্র জয়রাম রমেশ টুইটারে শেয়ার করেছেন। সঙ্গে তিনি লিখেছেন, “এইমাত্র সমস্ত বিরোধী দল (টিএমসি-সহ) রাজ্যসভার মাননীয় চেয়ারম্যানের কাছে এই চিঠি জমা দিয়েছে।”

চিঠিতে বিরোধী নেতারা অভিযোগ করেছেন, “আজ রাষ্ট্রপতির শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে, রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খর্গেকে এমন একটি আসনে বসতে দেওয়া হয়েছিল, যা তাঁর পদমর্যাদার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। অগ্রাধিকারের পরোয়ানা লঙ্ঘন করে এবং প্রোটোকল অনুসারে সৌজন্য না দেখিয়ে তাঁর মতো এক বর্ষীয়ান নেতাকে এই ইচ্ছাকৃতভাবে অসম্মানের জন্য আমাদের অসন্তোষ ও প্রতিবাদ জানাতে এই চিঠি লেখা হচ্ছে।”

পরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে, খর্গে নিজেও এই অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেছেন, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী একনাথ শিন্ডেকে প্রথম সারিতে বসতে দেওয়া হয়েছিল। তাঁর প্রশ্ন, “যদি প্রোটোকলই মানা হয়ে থাকে, তাহলে মুখ্যমন্ত্রী শিন্ডে কীকরে প্রথম সারিতে বসলেন? ওরা নিজেদের লোকদের সামনের সারিতে বসার ব্যবস্থা করেছিল। আর একজন সুপরিচিত বিরোধী দলনেতাকে স্রেফ কোনে ঠেলে দেওয়া হয়েছিল। এটা ঠিক নয়।”

এদিকে, খর্গের অভিযোগ অস্বীকার করেছে কেন্দ্র। সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে সংসদ বিষয়ক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী বলেছেন, “রাষ্ট্রপতির শপথ অনুষ্ঠানে প্রোটোকল লঙ্ঘন করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অনুষ্ঠানটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক আয়োজন করেছিল। সেখানে অগ্রাধিকার বিষয়ে আদেশ রয়েছে। সেই অনুযায়ী বিরোধী দলনেতাকে তৃতীয় সারিতে বসতে হয়। মল্লিকার্জুন খর্গের পদমর্যাদাকে সম্মান জানিয়ে তাঁকে প্রথম সারিতে একটি আসন দেওয়া হয়েছিল। কারপরও তিনি অভিযোগ করেছেন যে, তার আসনটি এককোণে রয়েছে। তখন সংসদের কর্মীরা তাঁকে মাঝখানে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দেয়, কিন্তু তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন।

এখানেই শেষ নয়, প্রহ্লাদ জোশী মল্লিকার্জুন খর্গের বিরুদ্ধে বিদায়ী রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে অপমান করার পাল্টা অভিযোগ তুলেছেন। কেন্দ্রয় মন্ত্রী বলেছেন, “একদিক থেকে দেখতে গেলে, খর্গে বিদায়ী রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে অপমান করেছেন। শনিবার, বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের জন্য, তাঁকে যথাযথভাবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রীর কাছাকাছি একটি আসনও তাঁর জন্য বরাদ্দ ছিল। কিন্তু তিনি আসেননি। এটা বিদায়ী রাষ্ট্রপতি, রাজ্যসভার চেয়ারম্যান এবং লোকসভার স্পিকারকে অপমান করা।”

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla