PM Modi’s Mann Ki Baat: ‘ক্ষমতা চাই না, আমি চাই…’, মন কি বাতে কোন গোপন কথা জানালেন নমো?

PM Modi's Mann Ki Baat: দেশের স্টার্ট-আপ সংস্কৃতি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, "দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির এক বড় মোড়ে এসে দাঁড়িয়েছি আমরা। আজকের যুব সমাজ কেবল চাকরিই খুঁজছে না, একইসঙ্গে চাকরিও তৈরি করছে।"

PM Modi's Mann Ki Baat: 'ক্ষমতা চাই না, আমি চাই...', মন কি বাতে কোন গোপন কথা জানালেন নমো?
ফাইল ছবি।

নয়া দিল্লি: “মন কি বাত” (Mann Ki Baat) অনুষ্ঠানের ৮৩ তম পর্বে নিজের মনের গোপন কথাই জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। আয়ুষ্মান ভারত (Ayushmann Bharat) প্রকল্পের  সুবিধাভোগী এক ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে এদিন প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমি কখনওই ক্ষমতা চাই না। আমি কেবল মানুষের সেবা করতে চাই।”

এদিন মন কি বাত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী একদিকে যেমন দেশের বিভিন্ন স্টার্ট-আপ ব্যবসা নিয়ে কথা বলেন, তেমনই আবার পরিবেশ রক্ষার উপরও জোর দেন।  করোনার নতুন ভ্য়ারিয়েন্টের প্রসঙ্গ টেনে তিনি দেশবাসীকে আরও একবার মনে করিয়ে দেন যে, সংক্রমণ এখনও শেষ হয়নি। সাধারণ মানুষকে এখনও সতর্ক থাকতে হবে।

দেশের স্টার্ট-আপ সংস্কৃতি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির এক বড় মোড়ে এসে দাঁড়িয়েছি আমরা। আজকের যুব সমাজ কেবল চাকরিই খুঁজছে না, একইসঙ্গে চাকরিও তৈরি করছে। বর্তমানে দেশে ৭০টিরও বেশি  ইউনিকর্ন সংস্থা রয়েছে। দেশে বেসরকারি স্টার্টআপ কম্পানির মোট আর্থিক মূল্য ১ বিলিয়ন বা ১০০ কোটি ডলারেরও বেশি। আমাদের যুব সমাজের তিনটি চারিত্রিক গুণাবলী হল চিন্তাভাবনা, উদ্ভাবনী শক্তি এবং ঝুঁকি নেওয়ার সাহস। তারা কোনও কাজ করার মনস্থির করলে, তা করে দেখানোর ক্ষমতা রাখে।”

১৯৭১ সালে পাকিস্তানের সঙ্গে যুদ্ধে ভারতীয় সেনার জয়লাভের ৫০ বছর পূর্ণ হচ্ছে চলতি বছরেরই আগামী মাসে। এই প্রসঙ্গে দেশের সেনাবাহিনীকে তিনি সম্মান জানান। প্রধানমন্ত্রী বলেন, “দুদিন বাদেই ডিসেম্বর মাস শুরু হচ্ছে। আমাদের দেশ নৌবাহিনী দিবস ও সশস্ত্র বাহিনী দিবস পালন করা হবে। আমরা সবাই জানি, আগামী ১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১ সালের যুদ্ধের ৫০ বছর পূরণ হবে।এই শুভক্ষণে আমি দেশের সশস্ত্র বাহিনীকে শ্রদ্ধা জানাই।”

একই সঙ্গে দেশের প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণের কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী। এদিন মন কি বাত অনুষ্ঠানে পরিবেশ সংরক্ষণের গুরুত্ব বোঝাতে নমো বলেন, “আমরা তখনই প্রকৃতির রোষের মুখে পড়ি, যখন আমরা প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট করি বা এর পবিত্রতা নষ্ট করি। সুতরাং আমাদের দায়িত্ব পরিবেশকে রক্ষা করা। আমাদের জীবনযাত্রায় প্রকৃতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে জীবনযাপন এবং প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষা করার দায়িত্ব গ্রহণ করা অপরিহার্য।” এই প্রসঙ্গে তিনি তামিলনাড়ু সহ একাধিক রাজ্যে পরিবেশ রক্ষায় সাধারণ মানুষ যে উদ্যোগগুলি নিয়েছেন, সেগুলিও দেশবাসীর সামনে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানের শেষে তিনি ফের একবার সাধারণ মানুষকে করোনা সংক্রমণ নিয়ে সচেতন করেন। তিনি আরও একবার মনে করিয়ে দেন যে, “করোনা সংক্রমণ এখনও শেষ হয়নি। আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার মতো স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখতেই হবে। ”

আরও পড়ুন: Arvind Kejriwal on Punjab Poll: ‘ফোন করে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মহিলারা’, নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির সমালোচনার পাল্টা জবাব কেজরীবালের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla