Telangana BJP: ‘শীঘ্রই সরকার ভেঙে পড়বে’, আরেক রাজ্যে পালাবদলের জল্পনা বাড়ালেন বিজেপি নেতা

KCR: ডাম্পিং ইয়ার্ড ইস্যু নিয়েও এদিন কেসিআর সরকারকে নিশানা করেন কুমার। তিনি বলেন, "রাজ্যের টিআরএস সরকার ভেন্টিলেশনে রয়েছে এবং খুব দ্রুত সরকার ভেঙে পড়বে।

Telangana BJP: 'শীঘ্রই সরকার ভেঙে পড়বে', আরেক রাজ্যে পালাবদলের জল্পনা বাড়ালেন বিজেপি নেতা
ছবি: ফাইল চিত্র
TV9 Bangla Digital

| Edited By: অরিজিৎ দে

Sep 20, 2022 | 7:01 AM

হায়দরাবাদ: বিজেপির (BJP) বিরুদ্ধে অ-বিজেপি রাজ্যের সরকার ফেলে দেওয়ার বিরোধীদের অভিযোগ ঘিরে বেশ কয়েকদিন ধরেই উত্তপ্ত জাতীয় রাজনীতি। এবার প্রকাশ্যে সরকার ফেলে দেওয়া নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্ক বাড়ালেন বিজেপি সাংসদ তথা তেলঙ্গানার (Telangana) বিজেপি সভাপতি বন্দি সঞ্জয় কুমার (Bandi Sanjay Kumar)। সোমবার সেরাজ্যের দাম্মাইগুডার জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওকেও (K Chandrasekhar Rao) নিশানা করেন সঞ্জয় কুমার। তাঁর দাবি তেলঙ্গানা সরকার ‘ভেন্টিলেশন’-এ চলে গিয়েছে এবং খুব দ্রুত সরকার ‘ভেঙে’ যাবে। মেদচল কেন্দ্রে পদযাত্রা শেষের পর জনসভা থেকে বক্তব্য রাখার সময় তাঁর গলায় ছিল চড়া সুর। দুর্নীতি সহ একাধিক ইস্যুকে নিয়ে তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রীকে নিশানা করেন সঞ্জয় কুমার।

ডাম্পিং ইয়ার্ড ইস্যু নিয়েও এদিন কেসিআর সরকারকে নিশানা করেন কুমার। তিনি বলেন, “রাজ্যের টিআরএস সরকার ভেন্টিলেশনে রয়েছে এবং খুব দ্রুত সরকার ভেঙে পড়বে। ডাম্পিং ইয়ার্ড ইস্যু জনস্বাস্থ্যে প্রভাব ফেলছে। বিজেপি সমস্যা সমাধানের দায়িত্ব নিচ্ছে, সেই কারণে পদযাত্রা শেষ করে আমি এখানে এসেছি। যদি মুখ্যমন্ত্রীর কোনও দায়িত্ব থাকত, তবে তিনি এর দায়িত্ব নিতেন এবং তিনি এখানে আসতেন। মেডচল ডিপো বন্ধক রেখে কেসিআর সেখানে শপিং মল তৈরি করেছে। সমস্যা সমাধানের জন্য আমি আপনাদের তিনটি জিনিস বলতে চাই। টিআরএসকে ধরে ডাম্পিং ইয়ার্ডের সামনে বেঁধে রাখুন এবং বিজেপির হাতে ক্ষমতা তুলে দিন। কীভাবে সমস্যা সমাধান করতে হয়, আমরা বুঝে নেব। যেসব কালেক্টর ও পুলিশ আধিকারিকরা কেসিআরের সঙ্গে আম্বেদকরের তুলনা করছেন, তাদের লজ্জা হওয়া উচিত। কেসিআর এমন এক ব্যক্তি যিনি প্রতিনিয়ত আম্বেদকরের লেখা সংবিধানকে অসম্মান করছেন।”

“কেসিআর পরিবারের বেহিসেবি সম্পত্তি রয়েছে। বদুপ্পাল ৭ হাজারটি ফ্ল্যাটের কোনও রেজিস্ট্রেশন করা হয়নি। এই এলাকায় কোনও ১০০ শয্যার হাসপাতাল বা ডিগ্রি কলেজ নেই। জমি হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকারে দেওয়া টাকা নয়ছয় করা হচ্ছে এবং কমিশনের লোভে অকারণ ট্র্যাক্টর কিনে কয়েকশো কোটি টাকা আয় করেছেন তাঁরা।” বলেন কুমার। দলিতদের নিয়ে সোমবার টিআরএস নেতাকে নিশানা করেন কুমার। তাঁর দাবি, কেসিআর সরকার দলিতদের জন্য কোনও কিছুই করেনি। বিজেপিকে একবার সুযোগ দেওয়ার জন্য সাধারণ মানুষের কাছে আবেদন জানিয়েছেন সঞ্জয় কুমার।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla