মর্মান্তিক! ব্রহ্মপুত্র নদে দুই নৌকার মুখোমুখি সংঘর্ষ, মৃত ১, নিখোঁজ ৭০

Brahmaputra river in Assam: অসমের (Assam) জোরহাটে মাজুলি এলাকায় মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। ব্রহ্মপুত্র (Brahmaputra) নদে দুই নৌকার মুখোমুখি সংঘর্ষে মৃত্যু হল একজনের। নিখোঁজ প্রায় ৭০ জন। সংঘর্ষের জেরে ডুবে যায় একটি নৌকা।

মর্মান্তিক! ব্রহ্মপুত্র নদে দুই নৌকার মুখোমুখি সংঘর্ষ, মৃত ১, নিখোঁজ ৭০
ছবি: টুইটার

অসম: অসমের (Assam) জোরহাটে মাজুলি এলাকায় মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। ব্রহ্মপুত্র (Brahmaputra) নদে দুই নৌকার মুখোমুখি সংঘর্ষে মৃত্যু হল একজনের। নিখোঁজ প্রায় ৭০ জন। সংঘর্ষের জেরে ডুবে যায় একটি নৌকা। জানা গিয়েছে, বুধবার দুই নৌকায় ১২০-র বেশি যাত্রী ছিলেন। দুর্ঘটনার পরেই উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ৪০ জনকে উদ্ধার করা হলেও এখনও ওই নৌকার অনেক যাত্রীই নিখোঁজ। তাঁরা ভেসে গিয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ফলে, এই দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলেও আশঙ্কা করছেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা (Himant Biswa Sharma)।

অসমের মুখ্যমন্ত্রী জানান, জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা টিম এবং এসডিআরএফ উদ্ধার কাজ শুরু করেছে। এলাকার প্রশাসনিক আধিকারিকদের উদ্ধারকাজ ঠিক মত করারও নির্দেশ দেন তিনি। তিনি নিজেও বৃহস্পতিবার ওই এলাকায় যাবেন বলে জানান। অকুস্থলে গিয়েছেন রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী বিমল। কমপক্ষে ৫০ জনেরও বেশি মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)।

প্রধানমন্ত্রী টুইটে অসমিয়া ও ইংরেজিতে করা দুইটে টুইটে লেখেন, অসমের নৌকা দুর্ঘটনার খবরে গভীরভাবে শোকাহত। সবার নিরাপত্তা ও কল্যাণ কামনা করি। পাশাপাশি অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার সঙ্গে ফোনেও তাঁর কথা হয়।

এদিকে অসমের মুখ্যমন্ত্রী টুইটে লেখেন,”জোরহাটের নিমাতি ঘাটে নৌকা দুর্ঘটনার খবরে আমি ব্যথিত। মাজুলি ও জোরহাটের প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছি।” টুইটে পর্যটনমন্ত্রী ও অন্যান্যদের উদ্ধৃত করে নির্দেশ দেন তিনি।

সূত্রের খবর, দুই নৌকায় প্রায় ১২০ জন যাত্রী ছিলেন। তাঁদের মধ্যে প্রায় ৪০ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। ওই নৌকায় থাকা সাইকেল, মোটরসাইকেল-সহ প্রায় ৩৫টি যানবাহনও ডুবে গিয়েছে বলে খবর। জানা গিয়েছে,  বুধবার বিকালে, ব্রহ্মপুত্র নদের নিমাটি ঘাটের কাছে দুটি নৌকার মধ্যে ওই সংঘর্ষ হয়। যন্ত্রচালিত নৌকাটি মাজুলির কমলাবাড়ি ঘাটের দিকে যাচ্ছিল। নিমাটি ঘাট থেকে ‘মা কমলা’ নামের নৌকাটি যাত্রা শুরু করার আগেই সেখানে চলে আসে টিকপাই নামে একটি লঞ্চ। সেটি নৌকাকে ধাক্কা মারলে একশজনের বেশি যাত্রী নিয়ে ডুবে যায় নৌকাটি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকাল চারটার সময় নৌকাটি ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল। তার আগেই বড় নৌকাটি চলে আসে। সেটি ঘাটে দাঁড়ানোর সময় ধাক্কা মারে ‘মা কমলা’ নামের নৌকাটিকে। সঙ্গে সঙ্গেই ওই নৌকাটি উল্টে যায়।

এদিকে ব্রহ্মপুত্রের জলস্তর বাড়ার ফলে সতর্কতা হিসাবে ৫ দিন ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। সেখানে আবার ফেরি চলাচল শুরু হতেই এই দুর্ঘটনা হল। এদিন ওই নৌকাটি ডুবে যাওয়ার পরে কয়েকজন যাত্রী সাঁতরে পারে উঠে এলেও অধিকাংশ যাত্রীই নিখোঁজ বলে খবর।

আরও পড়ুন: খেলা ঘুরছে আগরতলায়, শর্ত মানলে মমতার পাশে ত্রিপুরার রাজা

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla