এনএলএফটি জঙ্গি হামলা! সীমান্তে শহিদ দুই জওয়ান

Tripura: জওয়ানদের অস্ত্রও ছিনিয়ে নিয়ে চলে গিয়েছে জঙ্গিরা।

এনএলএফটি জঙ্গি হামলা! সীমান্তে শহিদ দুই জওয়ান
ফাইল চিত্র।

আগরতলা: সীমান্তে টহল দেওয়ার সময় জঙ্গি হামলায় মৃত্যু দুই জওয়ানের। ত্রিপুরা-বাংলাদেশ সীমান্তে মঙ্গলবার সকালে এই ঘটনা ঘটেছে। নিহতদের মধ্যে একজন বিএসএফের সাব-ইন্সপেক্টর ছিলেন। আগরতলা থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরে ত্রিপুরার ঢালাই জেলায় এই ঘটনা ঘটে।  বর্ডার আউটপোস্টের কাছেই হামলা চালায় জঙ্গিরা। এই হামলায় ত্রিপুরার নিষিদ্ধ ন্যাশনাল লিবারেশন ফ্রন্ট বা এনএলএফটি জঙ্গিদের হাত আছে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

এ দিন সকালে ত্রিপুরার ধালাই জেলায় চৌমানু পুলিশ স্টেশনের কাছে আরসি নাথ বর্ডার আউটপোস্টের কাছে টহল দিচ্ছেন জওয়ানরা। সেই সময় আচমকাই জঙ্গি হামলা হয় বলে খবর। বিএসএফ সূত্রে জানা গিয়েছে শহিদ সাব ইনস্পেকটরের নাম ভুরু সিং ও কনস্টেবলের নাম রাজ কুমার। পুলিশের ডেপুটি ইনস্পেক্টর জেনারেল অরিন্দম নাথ জানিয়েছেন, এই দুই জওয়ানই সীমান্তে টহলদারি চালাচ্ছিলেন। পুলিশ জানিয়েছে, জঙ্গিরা আগে থেকেই ওই এলাকায় গা ঢাকা দিয়েছিল বলে অনুমান করা হচ্ছে। তারপর অতর্কিতেই এই হামলা চালায় তারা। এরপর তারা ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত পেরিয়ে চলে গিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিএসএফের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, জঙ্গিদের সঙ্গে বিএসএফের গুলির লড়াই চলে। তখনই বিএসএফের দুই জওয়ান আক্রান্ত হন ও পরে তাঁদের মৃত্যু হয়। রক্তের দাগ দেখে বিএসএফের অনুমান জঙ্গিরাও জখম হয়েছে। জঙ্গিদের ধরতে ব্যাপক তল্লাশি চলছে।

এই ঘটনার পর থেকেই বিএসএফের সার্ভিস রাইফেলগুলি নিয়ে পালিয়েছে জঙ্গিরা। পুলিশ জানিয়েছে সেগুলি পাওয়া যাচ্ছে না। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব টুইট করে জানিয়েছেন, ‘ধালাইতে বিএসএফ জওয়ানদের ওপর এই হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। তাঁদের এই আত্মবলিদান ব্যর্থ হবে না। শহিদদের পরিবারের পাশে আমাদের দেশ কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে থাকবে।’ আরও পড়ুন: ‘এক ব্যক্তি এক পদ’ নীতির জের! মুখ্য পৌরপ্রশাসকের পদ থেকে ইস্তফা খাদ্যমন্ত্রীর?

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla