হাজার টাকার মাছ ক্রয় ‘মাস্ক ম্যানের’, টাকা গুনতে গিয়ে কপালে হাত দোকানির

তদন্ত শুরু করেছে হরিদেবপুর থানার পুলিস। তবে মুখে মাস্ক থাকায় অভিযুক্তর যথাযথ বর্ণনা দিতে পারছেন না দোকানিরা।

হাজার টাকার মাছ ক্রয় 'মাস্ক ম্যানের', টাকা গুনতে গিয়ে কপালে হাত দোকানির
টাকা গুণতে গিয়ে কপালে হাত দোকানির।
সায়নী জোয়ারদার

|

Jan 24, 2021 | 5:00 PM

কলকাতা: মুখে মাস্ক পরে নকল নোট ধরিয়ে হাজার টাকার মাছ নিয়ে পগারপার ‘ঠগি’। শুধু মাছ বিক্রেতাই নন, ওই ব্যক্তির খপ্পড়ে পড়ে সাতসকালে ঠকতে হল বাজারের এক সব্জি বিক্রেতা ও এক ডাব বিক্রেতাকেও। মাস্কের যে কী ‘মহিমা’ হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে পুলিস। অভিযোগকারীরা তো বর্ণনাই দিতে পারছেন না অভিযুক্তর। রবিবার হরিদেবপুরের কালীতলা বাজারে একে শোরগোল পড়ে যায় এই ঘটনা ঘিরে।

ছুটির সকালের বাজার। গায়ে চাদর, মাফলার, মাস্ক পরে ভিড় ক্রেতাদের। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এক ব্যক্তি মাস্ক পরে বাইক নিয়ে বাজারে এসেছিলেন এদিন। বাজারের এক বয়স্ক মাছ বিক্রেতার কাছে গিয়ে বলেন, সমস্ত মাছ তিনি কিনে নেবেন। বৃদ্ধা তো এমন প্রস্তাবে বেজায় খুশি। বেছে, পরিষ্কার করে সমস্ত মাছ প্যাকেটবন্দি করে ওই ব্যক্তির হাতে তুলে দেন। ১ হাজার টাকার মাছ! দোকানির হাতে একটি ৫০০ টাকার নোট, একটি ২০০ টাকার নোট ও তিনটি ১০০ টাকার নোট দেন তিনি।

আরও পড়ুন: নন্দীগ্রামে ‘প্রার্থী’ মমতার ভোট প্রচারে বিশেষ ‘টিম’ তৃণমূলের

সেখান থেকে এক সবজি বিক্রেতার কাছে গিয়ে ৪০ টাকার সবজি কেনেন। ১০০ টাকার নোট দিলে ওই সবজি বিক্রেতা আবার ৬০ টাকা ফেরতও দেন। এরপর এক ডাব বিক্রেতার কাছে গিয়ে ১০০ টাকার ডাব কেনেন। বাজার সেরে কখন যে ওই ব্যক্তি বাজার ছেড়েছেন, কারও খেয়ালে নেই। খেয়াল করার কথাও নয়।

কিন্তু হঠাৎই ওই ডাব বিক্রেতা দেখেন ১০০ টাকার নোটটি নকল। সেখান থেকেই শুরু হইচই। এরপর একে একে সবজি বিক্রেতা, মাছ বিক্রেতা সকলেই দেখেন তাঁরাও ঠকেছেন এবং একই ক্রেতা তাঁদের ‘অপরাধী’। সঙ্গে সঙ্গে হরিদেবপুর থানায় ছোটেন তাঁরা। অভিযোগও জানান। কিন্তু কেউই সেভাবে ব্যক্তির বর্ণনা দিতে পারছেন না। একে শীতবস্ত্র, তার উপর মাস্ক। কেউ ভাল করে মুখটাই যে খেয়াল করেননি।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla