‘ওদের মুখে প্রতিহিংসা শব্দটা মানায় না’

নারদ-কাণ্ডে চার নেতার গ্রেফতারিতে প্রতিহিংসার অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। ভোটে হেরে বিজেপি এই গ্রেফতারি করাচ্ছে বলে দাবি শাসক দলের।

'ওদের মুখে প্রতিহিংসা শব্দটা মানায় না'
ফাইল ছবি

কলকাতা: সদ্য বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় এসেছে তৃণমূল। আর তারপর্ বড়সড় ধাক্কা। সাত সকালে রাজ্যের মন্ত্রীর বাড়িতে হাজির সিবিআই। গ্রেফতার করা হয়েছে চার নেতা। এই ঘটনায় এক দিকে যখন তৃণমূল প্রতিহিংসার রাজনীতির কথা বলছে, তখন বিজেপি রাজ্যের হিংসার ঘটনার কথা মনে করিয়ে দিতে চায়। বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা বলে, ‘ওদের মুখে প্রতিহিংসা শব্দটা মানায় না’।

সোমবার সকালেই গ্রেফতার করা হয়েছে ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, শোভন চট্টোপাধ্যায় ও মদন মিত্রকে। এদের মধ্যে শোভন দল বদলে বিজেপিতে গেলেও বাকি তিনজনই শাসক দলের বিধায়ক। এই ঘটনাকে নিছক আইনি পদক্ষেপ বলেই উল্লেখ করছে বিজেপি। এ দিন রাহুল সিনহা বলেন, ‘এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপির কোনও লেনদেন নেই।’ তৃণমূল অপরাধ ঢাকতে রাজনীতির ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

আরও পড়ুন: ‘রাজ্যপালের অনুমোদন অবৈধ, কেন গ্রেফতার নয় মুকুল রায়কে?’

রাজ্যের ভোট পরবর্তী হিংসার কথা আরও একবার মনে করিয়ে দেন তিনি। বলেন, ‘যারা আজ বলছে প্রতিহিংসার কথা, তারা বিজেপির লক্ষ লক্ষ কার্যকর্তার ওপর হামলা চালিয়েছে। বিজেপি কর্মীদের ঘরছাড়া করেছে, খুন করেছে।’ উল্লেখ্য, গত কয়েক দিন ধরে রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনায় শাসক দলের বিরুদ্ধে আঙুল তুলেছে বিজেপি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের প্রতিনিধিদের পর রাজ্যপালও হিংসার ঘটনা ঘটেছে, এমন জায়গাগুলো পরিদর্শন করেছেন। রাজ্যপালের সঙ্গে এই ইস্যুতে রাজ্য সরকারের সংঘাও প্রকাশ্যে এসেছে। আর এই আবহেই সিবিআই-এর কোপে চার তাবড় নেতা।