Mamata Banerjee: ‘দিল্লির সরকারও পারে…পার্টি টু পার্টি কথা বলে’, পাওনা নিয়ে কেন্দ্রকে ফের তোপ মমতার

Mamata Banerjee: উল্লেখ্য, রাজ্যের ডেঙ্গি পরিস্থিতি সহ কেন্দ্র সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের দুর্নীতির অভিযোগ তুলে কেন্দ্রকে চিঠি পাঠিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

Mamata Banerjee: ‘দিল্লির সরকারও পারে...পার্টি টু পার্টি কথা বলে’, পাওনা নিয়ে কেন্দ্রকে ফের তোপ মমতার
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: অবন্তিকা প্রামাণিক

Nov 23, 2022 | 3:06 PM

কলকাতা: বুধবার পাট্টা বিলি অনুষ্ঠানে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। এ দিন প্রায় ৪ হাজার পাট্টা তুলে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অনুষ্ঠান থেকে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, সরকার উদ্বাস্তুদের পাশে রয়েছে। গরিব মানুষকে কোনও ভাবেই উচ্ছেদ করা যাবে না বলে স্পষ্ট বার্তা দেন মমতা। আজ এনআরসি, সিএএ ও বকেয়া ১০০ দিনের কাজের টাকা সহ বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্রকে একহাত নেন তিনি। পাশাপাশি নাম না করে বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকেও কটাক্ষ করেন।

উল্লেখ্য, রাজ্যের ডেঙ্গি পরিস্থিতি-সহ কেন্দ্র সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের দুর্নীতির অভিযোগ তুলে কেন্দ্রকে চিঠি পাঠিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। সেই বিষয়কে তুলে ধরে মমতা বলেন, ‘রাজনীতির নাম করে প্রতিদিন যাঁরা বাংলাকে বদনাম করেন, এবং ১০০ দিনের কাজের টাকা দেবেন না বলে যাঁরা এই চিঠি লেখেন তাঁদের নাম বলতেও লজ্জা লাগে। আমি ধিক্কার জানাই’ এরপর বকেয়া ১০০ দিনের টাকা প্রসঙ্গে তুলে বলেন, ‘বিরোধী থাকাকালীন আমরা উন্নয়নের জন্য উন্নয়নের টাকা বন্ধ করিনি। গরীব মানুষের টাকা বন্ধ করে দিইনি।’

পরবর্তীতে বিজেপিকে আক্রমণ করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘লক্ষ্মীর ভান্ডার পুরো রাজ্যের টাকা। তাই নিয়েও চিঠি লিখেছে। বলেছে এই প্রকল্পে কেন্দ্রের টাকার অপব্যবহার হচ্ছে।’ এরপর মমতা প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘কোথা থেকে এল? যেন কাঁঠালি না কলা-হলুদ গুড়ো। সব কিছুতেই কাজে লাগে। আসলে অকাজে লাগে। এই কাঁঠালি কলা তাও ভাল কাজে লাগে।’ এরপর ব্যাঙ্গ করে মুখ্যমন্ত্রী জানান, ‘একদল লোক আছে শুধু বদনাম করতে পারে। আগে আমরা কৈকেয়ী-মন্থরা-কুচুটি বলতাম। কুটুস-কুটুস করে মিথ্যা কথা বলে আর কান ভাঙায়। এরাও তেমনই করছে।’

মুখ্যমন্ত্রী এ দিন বলেন, ‘দিল্লি সরকারও পারে, সরকার-থেকে সরকার কথা না বলে পার্টি টু পার্টি কথা বলেন। পার্টি যদি বলে সূর্য ওঠেনি। বলবে ওঠেনি। আগে জনগণ। পার্টি পরে। তুমি ভুলে গেছ যে তুমি জনগণের জন্য এসেছ।’

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক অতীতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার কেন্দ্রের বরাদ্দ অর্থের অপব্যবহার করছে এমন অভিযোগ জানিয়ে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমনকে চিঠি লিখেছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। কেন্দ্রীয় প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ করা অর্থ লক্ষ্মীর ভান্ডার-সহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রকল্পে বেআইনিভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে এমনই অভিযোগ জানান নন্দীগ্রামের বিধায়ক। এ দিন, সেই ইস্যুকেই হাতিহার করেন মমতা।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla